সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৩২ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ওসমানীনগরে দুই ভূয়া ডাক্তারকে জেল হাজতে প্রেরণ

pic-13-10-16বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:
ওসমানীনগরে ভূয়াঁ ডিগ্রীধারী ডাক্তারকে আটক করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার গোয়ালাবাজারে অভিযান চালিয়ে দুই ভূয়া ডিগ্রীধারী চিকিৎসককে আটক করা হয়েছে। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালানা কালে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের দ্বায়িত্ব পালন করেন, ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: শওকত আলী। এসময় গোয়ালাবাজারের হাজি মার্কেটস্থ শাহজালাল মেডিসিন সেন্টারে অভিযান চালিয়ে ভূয়া ডিগ্রীধারী এস এম সেলিম ও সুমুন ফার্মেসী থেকে এম এ মান্নানকে আটক করা হয়। এ সময় ভ্রাম্যমান আদালতের কাছে উনার সাইনবোর্ডে উল্লেখিত ডাক্তারীর সনদের কোন কাগজ পত্র দেখাতে না পারায় আদালত আটককৃতদের মেডিকেল ও ডেন্টাল আইন ২০১০ অনুযায়ী ১ লক্ষ টাকার জরিমানা ও অনাদায়ে ৭ দিনের বিনাশ্রম জেল প্রদান করেন। পরবর্তী আটককৃত ব্যক্তিরা ১ লক্ষ টাকা জরিমানা প্রদান করতে না পারায় জেল হাজতে প্রেরণ করার নির্দেশ প্রদান কারে আদালত।

জানা যায়, সিলেটের প্রবাসী অধ্যুষিত উপজেলা হিসেবে খ্যাত ওসমানীনগরে সরকারি কোন হাসপাতাল ও পূর্ণাঙ্গ স্বাস্থ্য সেবামূলক প্রতিষ্ঠান না থাকায় বর্তমানে ভূয়া এমবিবিএস নামধারীদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল হয়ে উঠেছে উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে ব্যাঙের ছাতার মতো গঁজিয়ে ওঠা ফার্মেসিগুলো। ২০১১ সালের শেষের দিকে র‍্যাব- ৯ উপজেলার বাণিজ্যিক প্রাণকেন্দ্র গোয়ালাবাজারে অভিযান চালিয়ে ভূয়া এমবিবিএস ডিগ্রীধারী এস এম সেলিমসহ দুই প্রতারককে আটকের পর বেশ কিছু দিন উপজেলায় ভুয়া ডাক্তাররা আত্মগোপনে চলে যায়।

সম্প্রতি আবারও এসএম সেলিম, এম মান্নান সহ একাধিক ভুয়া ডাক্তার এলাকার কিছু প্রভাবশালী নেতার প্রশয়ে গোয়ালা বাজারস্থ হাজি মার্কেটের শাহজালাল মেডিক্যাল সেন্টার ও সুমন ফের্মেসীতে নিজেদের মেডিসিন,গাইনী, বক্ষব্যাধি, যৌন রোগে অভিজ্ঞ ডাক্তার হিসেবে চটকদার সাইনবোর্ড টানিয়ে রোগীদের সাথে প্রতারণা করে যাচ্ছে। অবশেষে বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক করা হয়। অন্যদিকে ফামের্সীগুলোতে ভ্রাম্মমান আদালত পরিচালনা খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক একাধিক ভূয়া ডিগ্রীধারী ডাক্তারা গোয়ালাবাজার এলাকায় থাকা তাদের চেম্বার থেকে চলে গিয়েছেন বলে নির্ভরশিল সূত্রে জানা যায়।

ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শওকত আলী ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটককৃতরা অভিজ্ঞতা সনদের কোন কাগজপত্র দেখাতে পারায় তাদের এক লক্ষ টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে সাত দিনের বিনাশ্রম কারান্ড প্রদান করা হয়। জরিমানার টাকা প্রদান করতে অপারগতা প্রকাশ করায় তাদের জেল হাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তিনি আরও জানান চিকিৎসা ক্ষেত্রে সাধারণ মানুষ যাহাতে প্রতারণার স্বীকার না হন সে লক্ষ্যে আমি প্রতি সপ্তাহে অন্তত এক বার উপজেলার প্রধান প্রধান বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালানার চেষ্ঠা করব।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: