সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৯ মার্চ, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ চৈত্র ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রেমিক-প্রেমিকাকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি : আটক ৫

b-shal-pic-20161013192248নিউজ ডেস্ক:
বরিশাল নগরীর ফলপট্টি এলাকার আবাসিক হোটেল ‘ধানসিঁড়ি’ থেকে প্রেমিক-প্রেমিকা অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আটকরা হলেন, সৈয়দ বাবু, আরিফ হোসেন, রাসেল, সোহাগ ও অমিত। আটকদের বাড়ি বরিশাল নগরীর বিভিন্ন স্থানে। তারা নিজেদের বরিশাল থেকে প্রকাশিত বিভিন্ন আঞ্চলিক পত্রিকার সাংবাদিক হিসেবে দাবি করেছে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে আটক পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। অপহৃত প্রেমিক ওবায়দুরের ভাই আবুল কালাম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

বিকেলে ওই মামলায় আটকদের গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অপহৃত প্রেমিক ওবায়দুর রহমান রাজবাড়ির বালিয়াকান্দি নরুয়া এলাকার বাসিন্দা। প্রেমিকার বাড়ি বরগুনার বেতাগীর বোকামিয়া এলাকায়।

মামলার বাদী কালাম জানান, গত ১১ অক্টোবর তার ভাই (ওবায়দুর) প্রেমিকাকে নিয়ে বরিশাল নগরীর ধানসিঁড়ি হোটেলের ৩০৯নং কক্ষে উঠেন। আসামি সৈয়দ বাবু, আরিফ হোসেন, রাসেল, সোহাগ ও অমিত ওই কক্ষে গিয়ে তাদের নিকট চাঁদা দাবি করেন। এক পর্যায়ে কাজি ডেকে এনে পাঁচ লাখ টাকা কাবিনামা তৈরি করায়। আসামি রাসেল তার ভাইয়ের নিকট থেকে দুই হাজার টাকা নিয়ে যায়।

রাত ২টায় তাদের দুইজনকে হুমকির মুখে হোটেল থেকে নামিয়ে নগরীর বটতলা কবিরের বাড়িতে নিয়ে আটকে রেখে মোবাইলের মাধ্যমে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।

চাঁদা না দিলে তাদের দুই জনকে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়া হবে বলে হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে কালাম তার ভাইয়ের বিকাশের মাধ্যমে ১৭ হাজার ২০০ টাকা পাঠায়। আসামিরা ভাইয়ের নিকট থেকে বিকাশের পিন নম্বর নিয়ে ওই টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যায়।

পরদিন ১২ অক্টোবর আসামিরা কবিরের ঘর থেকে তাদের নগরীর হালিমা খাতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকার একটি পত্রিকা অফিসে নিয়ে আটকে রাখে। এরপর বারবার ওই দাবিকৃত দুই লাখ টাকা দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। তাদের আশ্বস্ত করা হয় আপনাদের টাকা সংগ্রহ করে যত দ্রুত সম্ভব দেয়ার চেষ্টা করছি।

এরপর বাদী তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বুধবার রাতে নগরীতে আসেন। আর আসামিদের বুঝাতে চেষ্টা করেন তাদের টাকা রাতের মধ্যে দেয়া হবে। দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে যেন তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

আসামিরা এ কারণে তার সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করতে থাকে। একপর্যায়ে বাদীর সন্দেহ হয়, টাকা পেয়েও যদি তার ভাই ও তার সঙ্গে থাকা প্রেমিকাকে ছেড়ে না দেয় অপহরণকারীরা। এরপর বাদী কোতোয়ালী থানায় এসে ওসিকে ঘটনাটি অবহিত করেন।

কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের (ওসি) মো.আওলাদ হোসেন জানান, বুধবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে এএসআই আনিসুর রহমানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে অপহরণকৃতদের উদ্ধার এবং অপহণকারীদের আটক করা হয়।

এ ঘটনায় অপহরণকৃত ওবায়দুরের ছোট ভাই আবুল কালাম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। এসআই জাহিদুল ইসলামকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে। আটকদের গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: