সর্বশেষ আপডেট : ৩৬ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শব্দ চয়নে আটকে গেছে পাক-ভারত পররাষ্ট্রসচিব বৈঠক

paki-india20161013140758আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
জটিলতা একটি শব্দকে ঘিরে। আপাতত সেই শব্দটিই ভারত ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্রসচিব পর্য়ায়ের বৈঠক শুরুর পথে প্রধান বাধা হয়ে দাড়িয়েছে। ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের উরি সেনাঘাঁটিতে হামলার পর ভারতের ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ নিয় দু’দেশের মাঝে উত্তেজনা এখনো অব্যাহত রয়েছে।

এরপর প্রথা মোতাবেক পর্দার আড়ালে ‘ট্র্যাক-টু’ আলোচনাও শুরু হয়েছে। কিন্তু পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের আনুষ্ঠানিক আলোচনা শুরু করায় সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে শব্দচয়নকে ঘিরে। সেই শব্দটি হল ‘দ্বিপাক্ষিক’। পাকিস্তান বলছে, আলোচনার নাম দেওয়া হোক, ‘সার্বিক’ বা ‘সুসংহত’ আলোচনা। ইংরেজিতে যাকে বলা হয় ‘কম্পোজিট ডায়ালগ’। অতীতে যেমন বলা হতো। কিন্তু ভারত বলছে ‘না’। কাগজে-কলমে লিখে দিতে হবে, এই আলোচনার নাম হচ্ছে ‘দ্বিপাক্ষিক’ আলোচনা।

এর আগে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নাটকীয়ভাবে চলে গিয়েছিলেন লাহোরে নওয়াজ শরিফের সঙ্গে দেখা করতে। তার পর থেকেই এই বিবাদের শুরু। মোদির সফরের পরে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ পাকিস্তানে ‘ফলো-আপ’ বৈঠকও করেছেন। সে সফরে সুষমার সঙ্গে নওয়াজ শরিফের মা ও পুরো পরিবারের আড্ডাও হয়েছিল।

কিন্তু দু’দেশের পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের বৈঠক শুরু হওয়া মাত্রই দু’পক্ষের বিবাদ বাধে ওই শব্দটি নিয়ে। সুষমার সামনেই দুই সচিবের কথা কাটাকাটি হয় ‘দ্বিপাক্ষিক’ শব্দটি নিয়ে। কিন্তু এই শব্দটির মধ্যে এমন কী লুকিয়ে রয়েছে, যা জন্ম দিচ্ছে সংঘাতের? সে দিন কিন্তু দু’পক্ষের কেউই এ নিয়ে কোনও ব্যাখ্যা দেয়নি।

এখন যদিও বিষয়টি নিয়ে সরাসরি মুখ খুলছেন ভারত-পাকিস্তানের কূটনীতিকরা। ভারতের পররাষ্ট্রসচিব জয়শঙ্কর বলেন, ‘দ্বিপাক্ষিক মানে দ্বিপাক্ষিক। সেখানে কোনও তৃতীয় পক্ষ থাকবে না।’ দিল্লিতে কর্মরত পাকিস্তানের হাই কমিশনার আব্দুল বাসিত বলেছেন, ‘পাকিস্তানের আশঙ্কা, দ্বিপাক্ষিক মানে হুরিয়তের সঙ্গে আমাদের সরকার স্বাধীন ভাবে কথা বলতে পারবে না। গেরোটা এখানেই। বাসিতের যুক্তি, হুরিয়তের সঙ্গে কথা বলা পাকিস্তানের কাশ্মির নীতির অঙ্গ। তাই আমাদের আশঙ্কা, দ্বিপাক্ষিক শব্দটি মেনে নিলে ভবিষ্যতে হুরিয়ত নেতাদের সঙ্গে কথা বলার অজুহাতে পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের বৈঠক ভেস্তে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আনন্দবাজার।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: