সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ৪ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নবীগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষণ

daily-sylhet-gonodhorshonনবীগঞ্জ প্রতিনিধি:
নবীগঞ্জে একদল দুর্বৃত্ত কতৃক মালদ্বীপ প্রবাসীর স্ত্রীকে গণধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার চানপুর গ্রামে। এ ঘটনায় ধর্ষিতা গৃহবধু ২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ১ জনকে আসামী করে নবীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের টুনাকান্দি গ্রামের মৃত সঞ্জব আলীর লম্পট পুত্র রুয়েল মিয়া দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষিতা গৃহবধুর ভাসুরের মেয়েকে উত্তোক্ত করে আসছিল। এ ঘটনাটি তারা স্থানীয় মেম্বার সাইফুর রহমানসহ মুরুব্বীদের জানায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রুয়েল মিয়া হনুফা বিবি’র ঘরে ঢুকে ভাসুর কন্যাকে অকত্য ভাষায় গালাগালি করে এক পর্যায়ে চড়থাপ্পড় মারে। এনিয়ে হনুফা বিবি রুয়েল মিয়াকে গালমন্দ করেন। এ সময় লম্পট রুয়েল তাকে দেখে নেয়ার হুমকী দেয়। গত সোমবার দিবাগত গভীর রাতে রুয়েল মিয়া (২২) ও চানপুর গ্রামের মছদ্দর আলীর ছেলে শাহ আলম (২৫)সহ অজ্ঞাতনামা অপর যুবককে সাথে নিয়ে মালদ্বীপ প্রবাসী আমির হোসেনের ঘরের বেড়ার টিনের নীচ দিয়ে গর্ত করে ভিতরে প্রবেশ করে ঘুমন্ত গৃহবধুর হাত-মুখ বেধেঁ গলায় ছুরি ধরে প্রাণে হত্যার ভয় দেখিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগে প্রকাশ।

এসময় তাদের শব্দে ঘুমন্ত শিশু বাচ্চা জেগে উঠে চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন ছুটে আসতে দেখে লম্পটরা পালিয়ে যায়। এ সময় ধর্ষণকারীরা ব্যবহৃত দু’টি মোবাইল ফোন, নগদ ৩৫ হাজার টাকা ও ১ ভড়ি ওজনের স্বর্ণের বালা নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় গ্রামের লোকজনের মাঝে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। তারা ধর্ষনকারী লম্পটদের গ্রেফতারের দাবী জানান। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ মোঃ আব্দুল বাতেন খান বলেন, ধর্ষণরীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে। তারা যেই হোক কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।

ধর্ষিতা গৃহবধু বলেন, তার স্বামী প্রবাসে থাকায় অবুঝ দু’ শিশু বাচ্চাদের নিয়ে প্রতিদিনের ন্যায় ঘটনার দিন রাতে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। রাত প্রায় দেড়টার দিকে উল্লেখিত লম্পটরা ঘরের বেড়ার টিনের নীচ দিয়ে প্রথমে একটা গর্ত করে আলমিরার জন্য প্রবেশ করতে না পেরে অন্যস্থানে গর্ত করে ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় তারা মোবাইলের লাইট জ্বালিয়ে তাকে বিছানা থেকে টেনে হেচড়ে মাটিতে ফেলে ওড়না দিয়ে হাত, মুখ ও গলা বাধিয়া ফেলে। এ সময় লম্পট শাহ আলম ছুরি দিয়া তার পড়নে থাকা সেলোয়ারের ফিতা কাটে। লম্পট রুয়েল সেলোয়ার খোলে প্রথমে তাকে জোর পুর্বক ধর্ষণ করে। পরে পালাক্রমে অন্যান্য লম্পটরা ধর্ষণ করেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: