সর্বশেষ আপডেট : ৮ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিশ্বনাথে দর্শনার্থীদের পদচারনায় মুখর পূজামন্ডপ

14619915_1137392033006994_1169683166_n-1বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:
সিলেটের বিশ্বনাথে মন্ডপে মন্ডপে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা যাচ্ছে হিন্দু স¤প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা উপলক্ষে। দেবীর আগমনে দর্শনার্থীদের পদচারনায় মুখরিত হচ্ছে উপজেলার প্রতিটি এলাকা।

জগৎজননী শ্রীশ্রী দূর্গা দেবীর পদপাত সনাতন ধর্মালম্বীরা ভাসছে আনন্দের জোয়ারে। বিশ্বনাথে ২৫টি মন্ডপে এক যুগে অনুষ্টিত হচ্ছে দূর্গাপূজা। এর মধ্যে বিশ্বনাথে ১২টি মন্ডপকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন।

পূজায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা যোরদার করেছে পুলিশ প্রশাসন। প্রতিটি পূজা মন্ডপে পুলিশ ও আনসার সদস্য মোতায়েন রয়েছে। ভ্রাম্যমান টিমের টহল অব্যাহত রয়েছে। পাশাপাশি মন্ডপগুলোকে ঘিরে সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ সদস্যরাসহ অনান্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর নজরদারী রয়েছে।

সরেজমিনে এলাকার বিভিন্ন পূজা মন্ডপ ঘুরে দেখা যায়, পূর্ণার্থী ও দর্শনার্থীদের মন্ডপে উপচে পড়া ভীড় লক্ষ করা গেছে। নতুন জামা-কাপড় পরে শিশু থেকে বৃদ্ধ সবাই আসছেন মন্ডপে মন্ডপে জগৎজননী মাকে এক পলক দর্শন করতে। ঝুঁকিপূর্ন মন্ডপগুলোতে মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে কড়া তল্লাশীর মধ্যে দিয়ে মন্ডপে প্রবেশ করতে হচ্ছে দর্শনার্থীদের। এলাকার জনপ্রতিনিধিরা দল বেধে মন্ডপগুলো পরিদর্শন করতে দেখা যায। তবে শান্তিপূর্ণভাবে এবারের পূজা উদযাপন হচ্ছে বলে জানান জনপ্রতিনিধিরা।

শুক্রবার ভোর থেকেই শুরু হয়েছে শারদীয় দূর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা। বাংলার ঘরে ঘরে এখন সাজ সাজ রব। দেবী দুর্গার বোধনের মধ্য দিয়ে আজ ৭ অক্টোবর (২২ আশ্বিন) শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে মূল পূজা। প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে ১১ অক্টোবর শেষ হবে ৫দিন ব্যাপি পূজা। এবছর মা আসছেন ঘোড়ায় চেপে। যাবেনও একই বাহনে। প্রতিবছর মা দুর্গা সন্তানদের নিয়ে পতিগৃহ কৈলাস থেকে পিতৃগৃহ এই বসুন্ধরায় আগমন করেন। এবছর কুলাউড়া উপজেলার সার্বজননী ২২টি ও ব্যক্তিগত ৩টি পূজামণ্ডপে হিন্দুধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ উৎসব দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

পর্যায়ক্রমে শনিবার ২৩ আশ্বিন (৮ অক্টোবর) মহাসপ্তমী, রবিবার ২৪ আশ্বিন (০৯ অক্টোবর) মহাঅষ্ঠমী, সোমবার ২৫ আশ্বিন (১০ অক্টোবর) মহানবমী এবং মঙ্গলবার ২৬ আশ্বিন (১১ অক্টোবর) বিজয়া দশমী ও প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে সব মহানুষ্ঠানের আয়োজন।
উপজেলার জানাইয়া সার্বজননীন পূজা মন্ডপে আসা সুমন মিয়া নামের নামের এক দর্শনার্থীর সাথে কথা হলে তিনি জানান, এবছর প্রতিটি মন্ডপে কড়া নিরাপত্তা লক্ষ করা যাচ্ছে। এ নিয়ে আমরা তিনটি মান্ডপে গিয়েছি প্রতি মন্ডপে পুলিশের উপস্থিতি লক্ষ করেছি। তাই আমরা নিবিঘ্রে প্রতিটি মন্ডপ ঘুরব।

বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম বলেন,পূজাকে কেন্দ্র করে যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে পুলিশ প্রশাসনের কঠোর নজরদারী রয়েছে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুহেল আহমদ চৌধুরী বলেন, সোমবার উপজেলার বেশ কয়েকটি পূজামন্ডপ পরিদর্শন করি। তবে শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপন হচ্ছে পূজা।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: