সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ১৪ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নবীগঞ্জে তন্নী হত্যা: বিএনপির ঘোলাপানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা, আওয়ামীলীগে ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড়

unnamed-1-73নবীগঞ্জ প্রতিনিধি::
নবীগঞ্জে মেধাবী কলেজ ছাত্রী তন্নী রায় হত্যাকান্ডকে পুজি করে বিএনপি ও জামায়াত জোট ঘোলাপানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করছে বলে দাবী করেছেন সরকারী দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ। এমন প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে নবীগঞ্জ শহরে নাগরিক ঐক্য মঞ্চের ব্যানারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে। উক্ত মানববন্ধন নাগরিক ঐক্য মঞ্চের নাম দিলেও ভিতরে ভিতরে বিএনপি, জামায়াত ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা প্রচার প্রচারণা, দাওয়াতসহ সার্বিক তত্ত্বাবধানের দায়িত্ব পালন করেন। সেখানে আওয়ামীলীগের দায়িত্বশীল নেতাদের উপস্থিত থাকতে দেখা যায়নি।

এছাড়া তন্নী হত্যাকান্ড নিয়ে নানা সমালোচনা দানা বাধছে। কলেজ ছাত্রী তন্নী নিখোজের পর তার পিতা বিমল রায় নিখোজ ডায়েরী করার সাথে সাথে পুলিশ প্রেমিক রানু রায়কে গ্রেফতারের উদ্যোগ নেয়। কিন্তু তন্নীর বাবার আপত্তির কারনে সে উদ্যোগ ব্যর্থ হয়। পরবর্তীতে ২০ সেপ্টেম্বর বিকালে বরাক নদী থেকে বস্তা বন্দি অবস্থায় তন্নীর মৃতদেহ উদ্ধার হয়। নিখোঁজ থেকে তন্নী রায়ের মৃতদেহ উদ্ধারের পর থেকেই তন্নীর পরিবার রয়েছে নীরব। তদন্তকারী কর্মকর্তাদেরকেও তথ্য দিয়ে তেমন সযোগিতা করতে দেখা যায়নি।

এদিকে এ ঘটনার পর থেকেই বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসুচী পালন করা হয়েছে। উক্ত কর্মসুচীতে আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দও সংহতি প্রকাশ করেছেন। অথচ সর্ব শেষ মানববন্ধন নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে বির্তক। এখানে অরাজনৈতিক ব্যানারের নামে পৌর বিএনপির সভাপতি মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরী, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান শেফু, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি সফিকুর রহমান পারছুসহ বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা তন্নীর ঘটনাকে পুজি করে বর্তমান গণতান্ত্রিক উন্নয়মুখী সরকারের বিরুদ্ধে বিষাগারে মেতে উঠে। তারা তন্নী’র খুনিদের গ্রেফতারের পরিবর্তে সরকার বিরোধী বক্তব্য দিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা করায় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

সরকারী দলের নেতাকর্মীদের দাবী মেধাবী কলেজ ছাত্রী তন্নী হত্যাকান্ডের বিচার হউক, এটা সবাই চাই। সরকার ও প্রশাসনের এ ব্যাপারে আন্তরিকতার কোন ঘাটতি নেই। তন্নীর বিচার নিশ্চিত করতে আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ সরকারের কেন্দ্রীয় দপ্তরেও যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন। কিন্তু একটি বিশেষ রাজনৈতিক দল, যারা পেট্রোল দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মারে, গাড়ী জ্বালায়, জঙ্গী ও সন্ত্রাসীদের মদদ দেয় তারাই আজ তন্নী ঘটনাকে ভিন্নখাতে নেয়ার জন্য সরকারের বিরুদ্ধে বিষাদাগার করে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে গোলা পানিতে মাছ শিকার করার অপচেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ করেন আওয়ামীলীগ নেতারা।
আওয়ামীলীগের একাধিক দায়িত্বশীল নেতারা বলেন, উক্ত মানব বন্ধনে ওই সব বক্তারা, তন্নীর প্রেমিক রানু রায়’কে আওয়ামীলীগ কর্মী উল্লেখ করে যে সব বক্তব্য প্রদান করেছেন, তা বিভ্রান্তকর ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত।

এদিকে উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি কুর্শি ইউপি চেয়ারম্যান আলী আহমদ মুসা বলেন, বৃহস্পতিবারের মানব বন্ধনে তিনি ছিলেন না। কিন্তু মাইকে তার নাম ঘোষন এবং গতকাল শুক্রবার স্থানীয় কিছু পত্রিকায় তার নাম প্রকাশিত দেখে ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: