সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সেই কিশোরকে নির্যাতনের ভিডিও প্রকাশ (ভিডিও)

madaripur20161007160852নিউজ ডেস্ক:
মানুষের মানবিক গুণাবলী দিনদিন লোপ পাচ্ছে। মোবাইল চুরির অপবাদে কামরুল বেপারী ও এর সহযোগীদের নির্যাতনের এক মিনিটের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওটি এখন মানুষের হাতে হাতে।

ভিডিওটি প্রকাশের পর এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত অপর আসামিদের গ্রেফতারে তেমন কোনো পুলিশি তৎপরতা চোখে পড়েনি। অন্যদিকে পুলিশ বলছে- অন্যদের গ্র্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

মোবাইল চুরির অপবাদে মাদারীপুরের শিবচরের কিশোর মেহেদী হাসানকে (১৪) নির্মম ভাবে নির্যাতন করা হয়। গলা ও পায়ে লোহার শিকল বেঁধে নিজ বাড়িতে বসে নির্যাতন চালায় শিবচর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের ছোট ভাই কামরুল বেপারী ও তার সহযোগীরা।

নির্মম নির্যাতনের শিকার কিশোর মেহেদী জীবন বাঁচাতে কামরুল বেপারীর দুই পা জড়িয়ে ধরে। কিন্তু তাতে পাষণ্ড কামরুলের মন একটুও গলেনি। ফিল্মমি স্টাইলে ঘুরে ঘুরে মেহেদীকে মারধর করে। পরে শিকল বেঁধে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখা হয়।

কিশোর মেহেদীর পরিবারের লোকজনও তখন নির্বাক। তারাও বাধ্য হয়ে দেখছে ওই দৃশ্য। কিন্তু ভয়ে মুখ খুলতে পারেনি। ওদের ভয়ে মুখ খুলতে পারেনি এলাকার শতশত মানুষও। শত শত উৎসুক জনতা দাঁড়িয়ে নির্বিকার হয়ে কিশোর নির্যাতনের দৃশ্য দেখছেন। ধারণকৃত ভিডিও দৃশ্যেই সেই প্রমাণ মিলেছে। এ ঘটনা তখন ব্যাপক সমালোচনার ঝড় তুলে।

খবর পেয়ে গত ২৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে মেহেদীকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর পুলিশ তাকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

মেহেদীর পরিবার ও একাধিক সূত্রে জানা গেছে, শিবচরের কাদিরপুর ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বি কে নগর পশ্চিম কাজীকান্দি গ্রামের কৃষক মনোয়ার খাঁর মেঝ ছেলে মেহেদী পেশায় রাজমিস্ত্রি।

মেহেদী স্থানীয় প্রভাবশালী কামরুল বেপারীর ডিস লাইনের কাজও করতো। সে বিভিন্ন গ্রামে ডিস লাইনের সংযোগ দিতো এবং মেরামতের কাজ করতো। কয়েকদিন আগে মেহেদী হাসান কামরুল বেপারীর ঘরে ডিস লাইনের কাজ করে। ওই সময় কামরুল বেপারীর দুইটি মোবাইল সেট হারিয়ে যায়।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মেহেদী জানায়, আমি মাইরের ভয়তে প্রথম স্বীকার করছি চুরি করছি। আসলে করিনি। কামরুল বেপারি তার দুই ছেলে সিজান, শাহান ও আল-আমিন নামের আরো একজন আমারে বেদম মারপিট করেছে। সারা শরীরেও খুব ব্যথা। ঠিকমতো কথা বলতে পারি না।

মেহেদীর মা পারুল বেগম জানান, পুলায় চুরি করছে কইয়া কামরুল বেপারী ও তার ছেলেরা ওরে মারছে। পরে পুলিশ যাইয়া ওরে উদ্ধার কইরা আনছে।

অভিযান পরিচালনাকারী শিবচর থানার এসআই জাকির হোসেন ও আলমগীর হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে আমরা শেকলে বাঁধা অবস্থায় থেকে মেহেদীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি।

অভিযুক্ত কামরুল বেপারি বলেন, নির্যাতনের অভিযোগ সঠিক না। ওরে ডাক দেয়ার পর ও দৌঁড় দিয়েছিল। পরে জনতা ওরে ধইরা কিছু মাইর ধইর করছে।

শিবচর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকির হোসেন মোল্লা জানান, অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। জাগো নিউজ

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: