সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৩০ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখায় চা বাগানের ভূমি দখল করে ঘর নির্মাণ, প্রশাসনের রহস্যজনক নিষ্ক্রিয়তা

unnamed-3জালাল আহমদ::
মৌলভীবাজারের বড়লেখায় স্কয়ার গ্রুপের মালিকানাধীন শাহবাজপুর চা বাগানের ভূমি জবরদখল করে বাঁশের বেড়া দিয়ে খুপরি ঘর নির্মাণ করছে একটি প্রভাবশালী ভূমিখেকো চক্র। বাগানের ভূমি জবরদখল করে খুপরি ঘর নির্মাণে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের নিয়ে আদিবাসী খাসিয়াদের ঢাল হিসেবে সামনে রেখে পরোক্ষভাবে ভূমি দখল ও এ কাজে সহযোগিতা করছে নেপথ্যে থাকা ওই ভূমিখেকো চক্রটি। চা বাগানের অভ্যন্তরে দুর্গম এলাকায় অন্তত অর্ধশত খুপরি ঘর নির্মাণ করে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রসহ রাতভর পাহারা দেয়ায় ভয়ে কাজে যেতে পারছে না নিয়মিত শ্রমিকরা। এ নিয়ে ভূমিখেকো চক্র ও বাগানপক্ষের মধ্যে যে কোনো সময় ভয়াবহ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে। এলাকার শান্তি- শৃক্সক্ষলা বজায় রাখতে গত সোমবার (০৩ অক্টোবর) উপজেলা প্রশাসন সমঝোতা বৈঠক করে বিরোধীয় ভূমিতে উভয়পক্ষকে না যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের এ নিষেধাজ্ঞাকে তোড়াই কেয়ার করে গত সোমবার রাতেও আরও কয়েকটি খুপরি ঘর নির্মাণ অব্যাহত রাখে ভূমিখেকোচক্রটি।

সরেজমিন চা বাগান এলাকায় গিয়ে জানা গেছে, স্কয়ার গ্রুপের মালিকানাধীন অর্গানিক চা উৎপাদনকারী ও রপ্তানিমুখি শাহবাপুর চা বাগানের চা সেকশনের একটি টিলায় ছোটো ছোটো একাধিক খুপরি ঘর। আর দখল পাহারার অস্ত্র-রসদ দিয়ে খাসিয়া সম্প্রদায়ের লোকজনকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে নেপথ্যে থাকা একটি ভূমিখেকো চক্র। বাগানের লিজকৃত ১নং খতিয়ানের ১৪৮, ৫১৭, ৫২০ ও ৭০১ দাগের সাড়ে ৪০০ একর ভূমির ওপর গত ২৮ সেপ্টেম্বর রাতের আঁধারে স্থানীয় একদল ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের নিয়ে জবরদখল করে অবৈধ ঘরসহ স্থাপনা নির্মাণ করছে। বাগানের ভূমি জবরদখল করে খুপরি ঘর নির্মাণে আদিবাসী খাসিয়াদের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে পরোক্ষভাবে ভূমি দখল ও তাতে সহযোগিতা করছে নেপথ্যে থাকা প্রভাবশালী একটি ভূমিখেকো চক্র। দখলকারী সন্ত্রাসীরা ইতোপূর্বে বাগান এলাকায় একাধিক হত্যাকা- ঘটিয়েছে।

জবরদখলের ঘটনায় বাগানপক্ষ ও ভূমিখেকো চক্রের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোনো সময় দু’পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন এলাকাবাসী। বাগানের শ্রমিক নিরঞ্জন কর্মকার, বাবুল বাউরি, লক্ষীন্দর ব্যানার্জি, মেঘনাথ নায়েক প্রমুখ অভিযোগ করেন, খাসিয়ারা বাগানের দখলীয় পিচলাটিলা নামক এলাকার ভূমি জবরদখল করে ২৫টি অবৈধ ঘর নির্মাণ করে। তাদের হুমকি-ধামকিতে সপ্তাহ ধরে শ্রমিকরা কয়েকটি টিলায় চা পাতা তুলতে যাওয়ার সাহস পাচ্ছে না।

চা বাগানের মহাব্যবস্থাপক আলী আহমেদ জানান, ১১ বছর আগে নির্মিত চা বাগানের সীমানা পিলার, নেট উপড়িয়ে এবং ১০-১২ হাজার চা গাছ কেটে প্রভাবশালীদের ছত্রচ্ছায়ায় স্থানীয় সন্ত্রাসী বটল মিয়া, মাসুক মিয়া, মেলেট খাসিয়া, কার্লিম, কবিনেল, দিরীমদের খাসিয়া, লোকাস বাহাদুর প্রমুখ পিচলাটিলার অন্তত সাড়ে ৪০০ একর ভূমি জবরদখলে নিয়ে ২৫টি খুপরি ঘর তৈরি করে রাতে সেখানে পাহারা দিচ্ছে। এলাকাবাসী অনেকে ভয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, প্রকৃতপক্ষে খাসিয়াদের ঢাল হিসেবে সামনে ব্যবহার করছে একটি প্রভাবশালীমহল। একসময় তারাই খাসিয়াদের উচ্ছেদ করে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নেবে ওই ভূমিটি। গত ৩০ সেপ্টেম্বর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে খাসিয়াদের অবৈধ দখল ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিলেও নেপথ্যের চক্রটি তা মানেনি। সরেজমিনে গিয়ে আলাপকালে স্থানীয় অনেকে এটাকে প্রশাসনের ¯্রফে আইওয়াশ মনে করে জানান, আসলে প্রশাসন রহস্যজনক নীরব ভূমিকা পালন করছে প্রভাবশালীদের চাপে। দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে দখলদার চক্রটি ক্রমশ বাগানের ভিতরের দিকে প্রবেশের চেষ্টা চালাচ্ছে। এতে করে বাগানের শ্রমিকসহ কর্মকর্তারা নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন।

থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শহিদুর রহমান জানান, পুলিশ পাঠিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। দখলদারদের স্থাপনা সরিয়ে নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, বাগানের লিজকৃত ভূমি খাসিয়ারা দখলে রাখতে পারবে না।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: