সর্বশেষ আপডেট : ১৬ মিনিট ১৬ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পানি চুরি ও বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্ব

feni-23শওকত জামিল ::
ফেনী নদীর পানি চুরি হয়ে যাচ্ছে। কথা এই অর্থেই সত্যি যে, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে কোনো চুক্তি ছাড়াই অতি গোপনে এই পানি উত্তোলন করে নেওয়া হচ্ছে। বাঙলাদেশকে অবহিত না করেই রামগড়, উত্তর ফটিকছড়ি ও মীরসরাই সীমান্ত এলাকাসংলগ্ন স্থানগুলোর ওপারে দক্ষিণ ত্রিপুরার সাব্রুমসহ বিভিন্ন এলাকার ১৭টি সীমান্ত পয়েন্টে ২৬টি পাম্প মেশিন বসানো হয়েছে। ফেনী নদী থেকে পানি তুলে নেওয়ার লক্ষ্যে স্থাপিত এ সমস্ত বিদ্যুৎচালিত লো-লিফট পাম্প মেশিন অত্যন্ত উচ্চ-ক্ষমতাসম্পন্ন। বর্ষা মৌসুম ব্যতীত অন্য ১০ মাসের শুষ্ক মৌসুমে ফেনী নদীর জল-প্রবাহ থেকে দৈনিক একশত কিউসেকেরও বেশি পানি তুলে নিয়ে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ সাব্রুম মহকুমার সীমান্তবর্তী হাজার হাজার একর ফসলি জমিতে জলসেচের ব্যবস্থা করেছে।

এভাবে একতরফাভাবে ফেনী নদীর পানি প্রত্যাহারের গোপন প্রক্রিয়াটি অব্যাহত রয়েছে বলতে গেলে প্রায় কয়েক দশক ধরে। পানি উত্তোলনের অবৈধ এ সমস্ত পাম্প মেশিন অতি গোপনে বসানো হয়েছে ১৯৮২ থেকে ২০০২ সনের মধ্যে। এরপরও, এখন ভারতীয় কর্তৃপক্ষ চুক্তির মাধ্যমে আরও ১দশমিক ৮২ কিউসেক পানি ফেনী নদী থেকে তুলে নিতে চায়, উল্লিখিত অবৈধ উপায়ে পানি প্রত্যাহার-করা অব্যাহত রেখেই। গোপনে ফেনী নদীর পানি তুলে নেওয়ার ব্যাপারে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে আপত্তি জানিয়ে বলা হয়েছে, অবৈধভাবে পানি তুলে নিয়ে যাওয়ার অনৈতিকতা বন্ধ করে ন্যায্য হিস্যা অনুযায়ী দু’দেশের মধ্যে ফেনী নদীর পানি বণ্টনে কোনো আপত্তি নেই। আমরা বাংলাদেশের এই যৌক্তিক অবস্থানটিকে বন্ধুরাষ্ট্র ভারত যথাযথ মর্যাদা দেবে বলেই আশা করি।

ভারতীয় কর্র্র্তৃপক্ষ মানুষের নজরে না আসার জন্য অধিকাংশ পাম্প হাউজ নির্মাণ করেছে সীমান্ত এলাকায় মাটির নীচে, টিন আর পাকা দেয়ালের ঘেরাও দিয়ে পাম্প হাউজ থেকে নদীর পানিতে ৬-৮ ইঞ্চি জিআই এবং পিভিসি পাইপ টেনেছে মাটি খনন করে। এই জাতীয় অনৈতিকতা বন্ধুকর্মের মধ্যে পড়ে না। ফেনী নদীর মোহনায় বাঁধ দিয়ে মুহুরী প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ এই নদীতে সেচের জন্য পানি রিজার্ভ করে। মুহুরী প্রকল্প নিয়ে কোনো বিরোধ নেই। এটা বৈধ ও স্বীকৃত। ভারতীয় কর্তৃপক্ষ সেই রিজার্ভের পানি বাংলাদেশকে ঘুমে রেখে এতোদিন ধরে হাপিশ করে দিচ্ছে। এই সমস্যার সমাধানের জন্যে প্রয়োজন হলে ঢাকা-দিল্লি বৈঠক ডাকাও হবে সঙ্গত পদক্ষেপ।

লেখক : প্রভাষক, চট্টগ্রাম

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: