সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

চাকরি না হওয়ায় প্রতিমা তৈরি করেই স্বাবলম্বী আশিষ

1475484153নিউজ ডেস্ক: চাকরি না পেলেও হতাশ হওয়ার কিছু নেই। নিজের বুদ্ধি দিয়েই বেকারত্ব ঘুচানো যায়। হয়তো কিছুদিন সময় লাগে এবং কষ্ট ভোগ করতে হয়। কথাগুলো বললেন স্নাতক পাস করা আশিষ। শত চেষ্টা করেও টাকা ছাড়া চাকরি না হওয়ায় অবশেষে প্রতিমা তৈরি ও অঙ্কন কাজ করেই স্বাবলম্বী হয়েছেন তিনি।

আশিষের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নে চৌকা মনাকষা গ্রামে। আশিষের পিতা শশাংক শেখর সিনহা পেশায় একজন দর্জি।

বিনোদপুরের আইড়ামারিতে প্রতিমা তৈরির সময় সরেজমিনে কথা হয় আশিষ কুমার সিনহার সাথে। তিনি জানান, গরীব বাবার আয়ে লেখাপড়া করা সম্ভব ছিল না। তাই ছোট থেকে বাবার নিকট থেকেই প্রতিমা তৈরির প্রাথমিক জ্ঞান অর্জন করে নিজ চেষ্টার ফলে সব ধরনের প্রতিমা তৈরি করতে শিখি।
জীবনের প্রথম ১৯৯৯ সালে বিনোদপুর ইউনিয়নের আইড়ামারী গ্রামের একটি মন্দিরে প্রতিমা তৈরি করে দুই হাজার ৩০০ টাকা উপার্জন করি। প্রতিমা তৈরির মাধ্যমে আমার উপার্জিত টাকা দিয়ে সংসার চালানোর পাশাপাশি লেখাপড়া করি। কিন্তু ২০১২ সালে আমার পিতা ভীষন অসুস্থ হওয়ায় একদিকে অসুস্থ পিতার চিকিত্সার খরচ, অন্যদিকে সংসার চালানোর কারনে আর উচ্চশিক্ষা অর্জনের সুযোগ পাইনি। এসময় বিভিন্ন স্থানে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরির আবেদন করে লিখিত পরীক্ষায় টিকেও টাকা সংগ্রহ করতে না পারায় চাকরি হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে প্রতিমা তৈরীর কাজকেই পেশা হিসাবে গ্রহন করি। বর্তমানে আমি প্রতিমাসে ৯/১০হাজার টাকা উপার্জন করি।

তিনি বলেন, আমার বাড়িতে প্রতিমা তৈরির একটি কারখানা করেছি। শুধু মাঝে মাঝে দূর্গা পূজার প্রতিমা বাইরে গিয়ে করি। ছোট ছোট প্রতিমাগুলি তৈরির কাজ প্রায় সারা বছরই চলে। সেখান সামান্য কিছু উপার্জন করতে পারি। বছরের বাকি সময় আমি ব্যানার ও সাইনবোর্ডসহ বিভিন্ন ধরনের অঙ্কনের কাজ করে সামান্য কিছু উপার্জন করতে পারি।

তিনি সরকারের সুদৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, আমাদের তৈরি প্রতিমাগুলো সরকারের মাধ্যমে বিদেশে রফতানি করার ব্যবস্থা করলে একদিকে সরকারি রাজস্ব বাড়বে, অন্যদিকে অনেক বেকার যুবক স্বাবলম্বী হতে পারবে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: