সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধের কোন আশঙ্কা নেই : মুশতাক খান

o-11-550x309আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কাশ্মিরকে কেন্দ্র করে আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ভারত-পাকিস্তানের সম্পর্ক। ভারত বলছে বুধবার মধ্যরাতে তারা পাকিস্তান শাসিত কাশ্মিরের ভেতরে সেনা অভিযান চালিয়েছে এবং এতে কয়েকজন নিহত হয়েছে। তবে ভারতের এই দাবি নাকচ করে দিয়েছে পাকিস্তান। এ মাসের ১৮ তারিখে ভারত শাসিত কাশ্মিরের উরিতে এক সেনা শিবিরে সন্ত্রাসী হামলায় ১৮ জন সৈন্য মারা যাবার পর থেকেই দুই প্রতিবেশির মধ্যে চরম উত্তেজনা চলছে।

এই উত্তেজনা কি যুদ্ধের ঝুঁকি তৈরি করেছে সে প্রসঙ্গে বিবিসি বাংলার কথা বলেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. মুশতাক খান। তিনি বলেন, আমার মনে হয় এই দুই দেশের মধ্যে সত্যিকার অর্থে যুদ্ধের কোন আশঙ্কা নেই। কারণ এখন ভারত-পাকিস্তান দুই দেশই পারমানবিক শক্তিধর দেশ। দুই দেশের আন্তর্জাতিক যে সব মিত্র দেশ আছে তাদের কেউই চায় না ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে এখন কোন যুদ্ধ হোক। একদিকে চীন করিডর নির্মাণের জন্য পাকিস্তানে বড় ধরনের বিনিয়োগ করেছে। একইসঙ্গে চীন ভারতের সঙ্গে অনেক ব্যবসা করছে। রুশ ভারতের অনেক দিনের মিত্র। সেই রুশ এখন পাকিস্তানের সাথে একসাথে সামরিক ট্রেনিং করছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এখন ভারতের খুব ভাল বন্ধু। কিন্তু এখন যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানকে কাছে টানার চেষ্টা করছে। কারণ আফগানিস্তান সমস্যা পাকিস্তানকে ছাড়া সমাধান সম্ভব না। তাই এই তিনটি প্রধান শক্তি দুই দেশের সাথেই তাদের ভাল সম্পর্ক এবং তাদের কেউই চায় না এখানে যুদ্ধ হোক। দুই দেশেই পারমানবিক শক্তিধর হওয়ার ফলে যুদ্ধ হওয়ার আশঙ্কা খুবই কম। এটা মূলত এই যে ঘটনাগুলো ঘটছে এটা হচ্ছে নরেন্দ্র মোদির যে অভ্যন্তরীণ রাজনীতি সেখানে ভারতের জনগণ পাকিস্তানের ওপর খুব ক্ষুদ্ধ। কারণ পাকিস্তানের পক্ষ থেকে ভারতে যেসব আক্রমণ হচ্ছে সেটার বিরুদ্ধে কিছু একটা করতে হবে এই ধরনের একটা পরিস্থিতি ভারতের মধ্যে তৈরি হয়েছে। সে কারণেই ভারত আক্রমণ করার চেষ্টা করছে।

এই দেশের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে এত বৈরি সম্পর্ক সেখান থেকে উত্তোরণের কোন সম্ভবনা আছে কিনা সে বিষয়ে মুশতাক খান বলেন, সমস্যার মূল যে কারণ সেটা যতদিন পর্যন্ত ভারত সমাধান করবে না ততদিন পর্যন্ত এই সমস্যা চলতে থাকবে। মূল সমস্যা হচ্ছে কাশ্মির। কাশ্মিমের সংখ্যাগরিষ্ট মানুষ মুসলমান তারা ভারতের সাথে থাকতে চায় না। গত দুই-তিন মাস ধরে সেখানে সহিংস পরিস্থিতি চলছে। এই পরিস্থিতিতে আপনার যদি বাইরের শত্রু থাকে তাহলে তারা সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করবে। পাকিস্তানের যে গোয়েন্দা বাহিনী আছে তারা চাইবে কাশ্মিরের লোকদের সাহায্য করতে। পাকিস্তানের সাথে যুদ্ধ করে এই সমস্যার সমাধান করা যাবে না। এটার সমাধান একটাই হতে পারে সেটা হল স্বায়ত্ত্বশাসন। স্বায়ত্ত্বশাসন ছাড়া কাশ্মীরের স্বাধীনতা ভারত কখনই দিবে না। ভারত যদি কাশ্মীরকে স্বাধীনতা দেয় তাহলে ভারতের অন্যান্য রাজ্য স্বাধীনতা চাইবে। সেক্ষেত্রে ভারত টিকবে কিনা সেটা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

এই দুই দেশের বিবাদমান পরিস্থিতিতে আঞ্চলিক রাজনীতিতে এর কোন প্রভাব পড়বে কিনা সে প্রসঙ্গে মুশতাক খান বলেন, আঞ্চলিক রাজনীতিতে একটা প্রভাব পড়ছে। কারণ ভারত যেহেতু এই অঞ্চলের সবচেয়ে শক্তিশালি দেশ তাই ভারতের আশেপাশে যেসব ছোট দেশ আছে তার ভারতকে সমর্থন না করে পারছে না। পাকিস্তানকে একঘরে করার একটা চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু আন্তর্জাতিক মহলে এখনকার পেক্ষাপটে পাকিস্তানকে একঘরে করা সম্ভব না। কারণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রুশ এই তিনটি শক্তি এখন পাকিস্তানের সাথে কাজ করছে।
সূত্র: বিবিসি বাংলা.

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: