সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কমলগঞ্জের পতনউষার ইউনিয়নে প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচন অনিয়মের অভিযোগ

2-daily-sylhet-666কমলগঞ্জ প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের পতনউষার ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ তোলেছেন পরিষদের পাঁচ সদস্য। মাসিক সমন্বয় সভা আহ্বান করে বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচন বিষয়ে পাঁচ ইউপি সদস্যে দুই দিনের সময় প্রার্থনা উপেক্ষা করে চেয়ারম্যানের নিজস্ব লোককে প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচনের উদ্যোগ নিয়ে পাঁচ ইউপি সদস্য সভাস্থল ত্যাগ করেন। পরে চেয়ারম্যান প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন।

পতনউষার ইউনিয়নের সদস্য রিপন ইসলাম, মোহাম্মদ কুদ্দুস, আব্দুস সোবহান চৌধুরী, মো: শায়েক আহমদ ও সাজিদ আলী অভিযোগ করে বলেন, বৃহস্পতিবার পতনউষার ইউনিয়নের মাসিক সমন্বয় সভায় আলোচ্যসূচী অনুযায়ী পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা মূল্যায়ন, প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচন প্রসঙ্গ ও ১৩টি স্থায়ী কমিটি গঠন বিষয়ে আলোচনা ছিল। ইউপি চেয়ারম্যান মনগড়াভাবে নিজের পছন্দের ইউপি সদস্যকে প্যানেল চেয়ারম্যান করতে চাইলে সভায় সবাই একমত হতে পারেননি। পরে ভোট প্রদানের মাধ্যমে প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচনের জন্য ইউপি চেয়ারম্যান মত প্রকাশ করলেও এ বিষয়ে দুই দিন পর সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত দাবী করে পাঁচ ইউপি সদস্য সভা স্থল ত্যাগ করেন। পরবর্তীতে ইউপি চেয়ারম্যান তওফিক আহমদ একতরফাভাবে নিজের পছন্দের ইউপি সদস্যকে প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন।

অভিযোগকারী ইউপি সদস্যরা বলেন, নির্বাচন দেখিয়ে প্যানেল চেয়ারম্যান মনোনিত করলে প্রার্থীদের নামের তালিকাসহ সকল সদস্যদের স্বাক্ষর থাকতে হবে। এখানে প্রতিপক্ষের প্রার্থীতাসহ কোনকিছু ছাড়াই চেয়ারম্যান চাতুরীপনা করে সভায় উপস্থিতির স্বাক্ষর ব্যবহার করেই অনিয়মের মাধ্যমে প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচন করেন।

অভিযোগ সম্পর্কে মনোনিত প্যানেল চেয়ারম্যান নারায়ন মল্লিক বলেন, কয়েকজন সদস্য স্ভাস্থল ত্যাগ করলেও নির্বাচনের মাধ্যমে তাকে প্যানেল চেয়ারম্যান মনোনিত করা হয়েছে। অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান তওফিক আহমদ বলেন, নীতিগতভাবেই আজ বৃহস্পতিবার প্যানেল চেয়ারম্যান মনোনিত করতে হয়। পাঁচজন সদস্য সভাস্থল ত্যাগ করে গেলেও অন্যান্যরা ভোট প্রদান করেই প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন। এখানে কোন প্রকার অনিয়ম হয়নি।

অভিযোগ সম্পর্কে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, তিনি ঢাকায় সরকারী কাজে ব্যস্ত আছেন। তবে অভিযোগ শুনেছেন। কমলগহে।জ ফিরে বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলেও তিনি জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: