সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ক্যানভাসে তরুণ শিল্পীদের সাহসী আঁচড়

1474826670নিউজ ডেস্ক: শিল্পী আতিকুন নাহার জ্যোতি এঁকেছেন ধর্ষিতা নারীদের বঞ্চনার কথা। ক্যানভাসে তনুসহ আরো বেশ ক’জনের মুখ। ফুলের মত এই মানুষগুলো মুছে গেছে। নারীরা এই সমাজে নিরাপদ নন। নিরাপত্তাহীনতার কারণে, সমাজ ও মানুষের চাপে নারীর গুটিয়ে থাকার বিষয়টিকে ফুটিয়ে তুলতে চেয়েছেন। তার ছবিও চমক সৃষ্টি করে ভাবতে বাধ্য করে দর্শককে। শিল্পী অজয় সান্যাল এঁকেছেন জনগণের চাওয়া-পাওয়া নেতাদের কাছে দাবা খেলার ঘুঁটির মত।

তরুণ শিল্পীদের সাহসী শিল্প উচ্চারণ ফুটে উঠেছে চারুকলার জয়নুল গ্যালারিতে শুরু হওয়া শিক্ষার্থীদের বার্ষিক চিত্রকর্ম প্রদর্শনীতে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের অঙ্কন ও চিত্রায়ণ বিভাগের শিক্ষার্থীদের শিল্পকর্ম নিয়ে এ প্রদর্শনী। ক্যানভাসে শিল্পীদের নতুন ভাবনা ও প্রকাশভঙ্গি হূদয়কে আন্দোলিত করে। বিষয় উপস্থাপনের ধরন চমকে দেয়, তাদের অঙ্কন-শৈলী মুগ্ধ করে।

শিল্পী রফিকুন নবী বলেন, বার্ষিক প্রদর্শনী শিল্পী হিসাবে এটা প্রথম ধাপ। এ প্রদর্শনীতে সুযোগ পাওয়া যে কোনো তরুণ শিল্পীর কাছে বড় সুযোগ। কিংবা কে আগামীতে শিল্পী হিসাবে এগিয়ে যাবে এই প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে তার যাত্রা শুরু হয়।

গতকাল বিকালে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্পী রফিকুন নবী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শিল্পী শিশির ভট্টাচার্য। সভাপতিত্ব করেন চারুকলা অনুষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিল্পী নিসার হোসেন।

আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে শিল্পীদের সোচ্চার হতে হবে। জঙ্গিবাদ নির্মূলে শিল্পী সমাজকে তাদের শিল্পচর্চা দিয়ে সমাজ, দেশ ও বিশ্বকে প্রগতিশীলতার পথে এগিয়ে নিতে হবে। এছাড়া বার্ষিক প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন বিভাগে পুরস্কার পাওয়া শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদ প্রদান করা হয় অনুষ্ঠানে। প্রদর্শনীতে শতাধিক শিক্ষার্থীর সাম্প্রতিক শিল্পকর্মের মধ্যে থেকে ৬১জন শিল্পীর কাজ প্রদর্শনীতে স্থান পেয়েছে। এর মাঝে ১০ জন শিল্পীকে পুরস্কৃত করা হয়। সব মাধ্যমের মধ্যে সেরা নির্বাচিত হয়ে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন পুরস্কার পেয়েছেন শেখ ফাইজুর রহমান। এছাড়াও বিভিন্ন বিভাগে পুরস্কার পেয়েছেন ভুটানের শিক্ষার্থী উগেইন শেরিং, সৈকত সরকার, প্রসূন হালদার, মৃণাল বণিক, পূর্ণিয়া মৃত্তিকা, জয়ন্ত মণ্ডল, আফিয়া আবিদা সুলতানা, মোঃ ইমতিয়াজ ইসলাম ও সুনন্দা রানি বর্মন।

প্রদর্শনী চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

ভালো নেই নদী, ভালো নেই বাংলাদেশ

সংবাদমাধ্যমের আলোকচিত্রী ফ্রেমে নানাভাবে ধরা পড়েছে বাংলার নদীগুলো। বিগতযৌবনা নদীর দুই তীরে সবুজ বাংলাদেশ, নদীনির্ভর জনপদ আর নদীর বিপন্নতার গল্পগুলো নিয়ে তারা আয়োজন করেছেন ‘নদ-নদীর আলোকচিত্র’ শীর্ষক এক প্রদর্শনী। বিশ্ব নদী দিবস উপলক্ষে নদী নিরাপত্তার সামাজিক সংগঠন নোঙ্গরের ব্যানারে আয়োজিত হয়েছে এ উত্সব।

গতকাল রবিবার রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনের লবিতে চারদিনব্যাপী এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। ২০ জন আলোকচিত্রীর তোলা ৩৬টি ছবি নিয়ে সাজানো হয়েছে এই প্রদর্শনী। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, “নদীমাতৃক বাংলাদেশে আজ নদী হারিয়ে গেছে, হারিয়ে গেছে নদীকে ঘিরে নানা উত্সব। দখল, দূষণের অত্যাচারে নদীর পানি আজ দূষিত। টেকসই উন্নয়ন ও সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সরকার অন্য অনেক ইস্যুর মতো পরিবেশ ইস্যুটিকেও ‘সমান গুরুত্ব’ দিয়ে দেখছে বলে জানান তথ্যমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সিনিয়র আলোকচিত্রী সাংবাদিক সৈয়দ জাকির হোসেন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, নোঙর সভাপতি সুমন শামস।

প্রদর্শনীর ছবিগুলোতে উঠে এসেছে নদী দু’পাড়ের গ্রাম-জনপদ আর প্রকৃতির গল্প। কোথাও নদী প্রমত্তা, কোথাও ধীর আবার কোথাও ক্ষীণস্রোতা, কোথাও আবার আগ্রাসী। তবে সব ছাপিয়ে ছবিগুলোতে উঠে এসেছে নদী ভাঙন আর দূষণের কথাই। রাজনৈতিক ক্ষমতাকে হাতিয়ার বানিয়ে নদীখেকোদের তাণ্ডব, নদীর দু’পাড়ে সবুজের বিলুপ্তি আর যান্ত্রিক নগরী গড়ে ওঠার গল্প মূর্ত হয়েছে এসব ছবিতে। প্রদর্শনী চলবে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

চলছে জঙ্গিবাদ-বিরোধী নাট্যোত্সব

জঙ্গিবাদ-বিরোধী নাট্যোত্সবে গতকাল মঞ্চস্থ হয়েছে তিনটি নাটক। মহিলা সমিতি মঞ্চে কিশোরগঞ্জের নাটকের দল একতা নাট্যগোষ্ঠী মঞ্চস্থ হয়েছে ‘মহুয়া’ নাটকটি। এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে কুষ্টিয়ার দল বোধন থিয়েটার পরিবেশন করে নাটক ‘চন্দ্রাবতী কথা’। আর ঢাকার দল নাগরিক নাট্যাঙ্গন (বাংলাদেশ) জাতীয় নাট্যশালা মঞ্চে মঞ্চস্থ করে ‘গহর বাদশা ও বানেসা পরী’। আজ সোমবার জাতীয় নাট্যশালায় রয়েছে দেশ নাটকের ‘অরক্ষিতা’, ঢাকা পদাতিকের ‘হেফাজত’, দৃশ্যপট-এর ‘সক্রেটিসের জবানবন্দী’।

নিয়মিত টিকিটের মূল্য ২০০ ও ১০০ টাকা। শিক্ষার্থী ও নাট্যকর্মীরা ২০ টাকার বিনিময়ে নাটক দেখতে পারবেন। টিকিট পাওয়া যাবে প্রদর্শনীর আগে কাউন্টারে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: