সর্বশেষ আপডেট : ৩৮ মিনিট ১৬ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ বৈশাখ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

অস্বাস্থ্যকর খাবারে ঝুঁকিতে বিশ্বের অর্ধেক মানুষ

1474888739নিউজ ডেস্ক: অস্বাস্থ্যকর খাবারের কারণে বিশ্বে তিনজনে একজন মানুষ স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে বলে সতর্ক করেছেন গবেষকরা। খাদ্য ও কৃষি বিশেষজ্ঞদের স্বাধীন একটি প্যানেল এই গবেষণা পরিচালনা করেছে। গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, অপুষ্টির কারণে বিশ্ব জুড়ে পাঁচ বছরের কম বয়সী প্রায় একচতুর্থাংশ শিশু ঠিক মতো বেড়ে উঠছে না। এছাড়া ২০৩০ সাল নাগাদ বিশ্বের এক-তৃতীয়াংশ মানুষ অতিরিক্ত ওজন বা স্থুলতায় ভুগবে।

‘গ্লোবাল প্যানেল অন এগ্রিকালচার অ্যান্ড ফুড সিস্টেম ফর নিউট্রিশন’এর এ প্রতিবেদন জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থায় উপস্থাপন করা হয়েছে। ঘানার সাবেক প্রেসিডেন্ট জন কফুর এবং যুক্তরাজ্য সরকারের সাবেক প্রধান বিজ্ঞান বিষয়ক উপদেষ্টা জন বেডিংটন ওই প্যানেলের নেতৃত্ব দেন।

তারা বলেন, বিশ্বে দুইশ’ কোটি মানুষের দৈনন্দিন আহারে সুস্বাস্থ্যের জন্য যে ভিটামিন ও মিনারেল থাকা প্রয়োজন তা থাকে না। এর ফলে হূদরোগ, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস এবং অন্যান খাদ্যজনিত রোগের ঝুঁকি বাড়ে বলে মন্তব্য করেন তারা। যদি বর্তমান অবস্থা চলতে থাকে তবে ২০ বছর পর পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে বলেও প্যানেল থেকে সতর্ক করা হয়েছে। বলা হয়, শিশু ও মাতৃ অপুষ্টি, উচ্চ রক্তচাপ ও খাদ্যাভাসজনিত অন্যান্য রোগের কারণে মানুষের অকাল মৃত্যুর হার ধুমপান, বায়ু দূষণ, অস্বাস্থ্যকর পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা অথবা অনিরাপদ যৌনকর্মের তুলনায় বেশি। এইচআইভি অথবা ম্যালেরিয়া নিয়ন্ত্রণে যেভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে সেই একই গুরুত্ব দিয়ে অস্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ নিয়ন্ত্রণ করলেই কেবল এই সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজে পাওয়া সম্ভব বলে মনে করেন গবেষকরা।

fakhrul_islam

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: