সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুইপারের ইনজেকশনে রোগীর মৃত্যু, সংসদে ক্ষোভ

7b95_129281নিউজ ডেস্ক: ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে সুইপারের দেয়া ইনজেকশনে রোগী মৃত্যুর ঘটনায় সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সংসদ সদস্যরা। এটাকে দেশের হাসপাতালগুলোতে চলমান নৈরাজ্যের অংশ আখ্যায়িত করে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজী বলেছেন, এই ধরনের অবজ্ঞা ও নিষ্ঠুর আচরণ চলতে পারে না। দায়িত্ব পালনে অবহেলার জন্য হাসপাতালের কর্তা ব্যক্তিদের বিচার দাবি করেন তিনি।

রবিবার জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে স্বতন্ত্র এই সদস্য এসব কথা বলেন।

শুক্রবার ঢাকা মেডিকেলে বিপ্লব মণ্ডল নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়। অভিযোগ ওঠে, ওই রোগীকে সুমন নামে ঢামেকের এক সুইপার ইনজেকশন দেয়। সেই কারণেই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। পরে রোগীর স্বজন ও উপস্থিত লোকজন গণধোলাই দিয়ে সুমনকে পুলিশে সোপর্দ করে। এই ঘটনায় তদন্ত কমিটি করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

সাংসদ ফরাজী বলেন, ‘ঢাকা মেডিকেলে এক রোগী ভর্তি হলেন। কিন্তু ডাক্তার চিকিৎসা দেয়ার আগেই হাসপাতলের সুইপার তাকে ইনজেকশন দিলো। পরে তিনি মারা গেলেন। এটা আমরা কল্পনাও করতে পারি না।’

সাংসদ বলেন, ‘হাসপাতালের ডাইরেক্টর সাহেব কী করেন। ডিজি সাব কী করেন? আমাদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী অত্যন্ত দক্ষ একজন মন্ত্রী। তার ওপর আমাদের আস্থা ও বিশ্বাস আছে। তিনি শক্তিশালী একজন নেতা। কিন্তু তার অধীনে যারা কাজ করেন তারা ঠিকভাবে কাজ করছেন না। এজন্য দেশের সব মানুষ দুঃখিত। হাসপাতারে এ ধরনের নৈরাজ্য চলতে পারে না। হাসপাতালে চিকিৎসকরা চিকিৎসা করবেন। এর পরিবর্তে যদি যার কোনো অক্ষর জ্ঞান নাই এই ধরনের ব্যক্তি চিকিৎসা দেয় এর চেয়ে আর দুঃখজনক ঘটনা আর হতে পারে না।’

রুস্তম আলী ফরাজী বলেন, ‘আমি বলছি এ বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সংসদের শুধু ৩০০ বিধিতে বিবৃতি দেবেন। সংসদ সদস্যদের নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করবেন। এতে সংসদ সদস্যদের অন্তর্ভুক্ত করে কেন এই ধরনের ঘটনা ঘটে তা বের করতে হবে।’

ঝিনাইদহ-২ আসনের সংসদ সদস্য তাহজিব আলম সিদ্দিকী অনির্ধারিত আলোচনা অংশ নিয়ে বলেন, ‘মহান সংসদের কাছে আমার বিনীত জিজ্ঞাসা, যাদের ঘামে, শ্রমে ও রক্তে আমাদের এই নগর সভ্যতা, যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে আমাদের এই অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি, তাদের কি বছরে দুবার ঈদ উদযাপনের লক্ষে নিরাপদে, নির্বিঘ্নে বাড়ি যাওয়ার অধিকার নেই?’

সাংসদ বলেন, ‘এবার ঈদের পূর্বে বাড়ি ফেরার সময় এবং ঈদ উদযাপনের পরে কর্মক্ষেত্রে ফেরার সময় কী নিদারুণ দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে নগরবাসীকে। ঈদের সময় অধিক যানবাহনে কিছুটা দুর্ভোগ হবে-এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু, ৪০ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজটে যাত্রীদের ত্রাহি নাভিশ্বাস উঠবে-এটি কোনোভাবেই প্রত্যাশিত নয়।’

স্বতন্ত্র এ সংসদ সদস্য বলেন, ‘তারপরে ঘাট পারাপারের সময় দেখা গেছে ফেরিতে উঠতেই রাত পার হয়ে গেছে। অজানা কারণে কর্তৃপক্ষের প্রস্তুতি নেই এবং ফেরিঘাটগুলো বিকল। এটি কর্তৃপক্ষের অবহেলা, না অযোগ্যতা-জানি না। কিন্তু, ঘরমুখো যাত্রীদের কাছে এটি নির্মম তামাশাই মনে হয়েছে। তারপরেও যারা নিরাপদে বাড়ি গিয়েছেন এবং বাড়ি থেকে নিরাপদে ফিরেছেন, তারা নিশ্চয়ই নিজেদেরকে ভাগ্যবান মনে করছেন। কারণ সড়ক, রেল এবং নদীপথ এবার বরাবরের চেয়ে অনেক বেশি রক্তাক্ত হয়েছে।’ তিনি জানান, পত্রিকার রিপোর্টমতে, সড়ক, রেল এবং নদীপথে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ২৬৪ জন এবং আহত হয়েছেন এক হাজারেরও বেশি।

এই অযাচিত মৃত্যুর দায় কে নেবে এমন প্রশ্ন রেখে সাংসদ বলেন, ‘কায়েমি স্বার্থের কাছে আত্মসমর্পণকারী মন্ত্রীরা, অযোগ্য এবং দায়িত্বহীন সরকারি কর্মকর্তা, মুনাফালোভি বাসমালিক, অপেশাদার, উচ্ছৃঙ্খল এবং বেপরোয়া বাসচালকরা? যারা বছরে দুবার মাটির টানে, শেকড়ের সন্ধানে বাড়ি ফিরতে চায়? এতোগুলো নিষ্পাপ প্রাণ অকালে ঝরে গেল, কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে কোনোরকম কার্যকর প্রতিক্রিয়া আমরা পাইনি।’

তাহজিব আলম বলেন, ‘আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেই এমন নজির আছে যে, রেল দুর্ঘটনার পরে রেলমন্ত্রী লালবাহাদুর শাস্ত্রী নিজ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন। কিন্তু, যোগাযোগ খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আমাদের কোনো মন্ত্রীকে সামান্য দুঃখ প্রকাশও করতে শুনিনি।’

স্বতন্ত্র এই সংসদ সদস্য আরও বলেন, ‘আমাদের সেতুমন্ত্রী গাড়ি চালকদের কখনো রাস্তার রাজা, কখনো আলেকজান্ডার হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। আমার প্রশ্ন হলো- রাস্তায় যদি এতো প্রতাপশালী আলেকজান্ডারই থাকে, তাহলে মন্ত্রী-মন্ত্রণালয় এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষরা কোথায়?’ – ঢাকাটাইমস

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: