সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘ছবিটির গল্প আপনার সমস্ত মনোযোগ আটকে রাখবে’

1474785303বিনোদন ডেস্ক:
‘আয়নাবাজি’ চলচ্চিত্রটি শুরু থেকেই আলোচনায়। আপনার নিজের অভিজ্ঞতাটা একটু বলুন—
প্রথম কাজগুলো অনেক স্পেশাল হয়। ‘আয়নাবাজি’ আমার জন্য সেরকম। দীর্ঘদিন ধরে উপস্থাপনার সঙ্গে যুক্ত থাকলেও সেরকম করে কখনো অভিনয় করা হয়নি। ঘটনাক্রমে অমিতাভ রেজা ভাই আমাকে তার ছবিতে অভিনয় করার জন্য বললেন। ছবির চিত্রনাট্য, চরিত্র, পরিচালক সবকিছু মিলিয়ে যখন দেখলাম পজেটিভ তখন অভিনয়ের জন্য অডিশন দিলাম। চলচ্চিত্রটির মাধ্যমে সব গুণী মানুষদের সাথে কাজ করার সুযোগ হয়েছে। সেই জায়গা থেকে আমি ভালো একটা শেখার পরিবেশ পেয়েছি। ছবির গল্প কেমন হয়েছে সেটা দর্শকরা দেখার পর মন্তব্য করবেন। কিন্তু আমি বলতে পারি ছবির গল্প আপনার সমস্ত মনোযোগ আটকে রাখবে।

আয়নাবাজিতে আপনার চরিত্র সম্পর্কে যদি একটু বলতেন—
আমি ছবিতে সাধারণ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছি। কারণ ছবির গল্পটি আয়নাকে ঘিরেই, যে চরিত্রটি চঞ্চল ভাই করেছেন। ওনাকে ঘিরেই অনেক চরিত্র আসে-যায়। আমার চরিত্রের নাম হূদি। আয়না আর আমি একই গলিতে থাকি। একটা সময় আমি আয়নাকে ভালোবেসে ফেলি, আমাদের প্রেম হয়ে যায়। অনেক সহজ একটি চরিত্র। আমি কাজটি স্বাচ্ছন্দে করতে পেরেছি।

আপনার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র মুক্তি পেতে যাচ্ছে, কিভাবে কাটছে অপেক্ষার দিনগুলো?
পরীক্ষা দেওয়ার পর রেজাল্টের জন্য যেমন অপেক্ষা করতে করতে নাওয়া-খাওয়া, চোখের ঘুম উধাও হয়ে যায় আমার ক্ষেত্রে এখন এমনটাই মনে হচ্ছে। বাকিটা অবশ্যই দর্শকদের ওপর, তারা আমার প্রথম কাজকে কিভাবে নেবেন। এটা নিয়েও একটা টেনশন কাজ করছে সারাদিন।

চলচ্চিত্রে নিয়মিত দেখা যাবে কি-না?
আপাতত আয়নাবাজির প্রচার-প্রচারণা নিয়েই ব্যস্ত আছি। আয়নাবাজি মুক্তি পাক তারপর দেখা যাবে। আগেও বলেছি ফিল্মে অভিনয় করার জন্য অনেক প্রস্তাব পেয়েছি। কিন্তু সব মিলিয়ে ভালো গল্প, চরিত্র ও পরিচালক পেলে চলচ্চিত্রে অভিনয় করতেও পারি। আবার নাও করতে পারি। তবে এ ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত কিছু বলতে পারবো না।

চলচ্চিত্রে নতুন মুখ আপনি। সেই জায়গা থেকে প্রথম কাজটি কি চ্যালেঞ্জ হিসেবে মনে করেন?
অবশ্যই, নিজেকে নিয়ে চ্যালেঞ্জ ছিল। কারণ অভিনয়ে আমার অভিজ্ঞতা নেই, অভিনয়কে ভয় পেতাম। নিজেকে নিয়ে আত্মবিশ্বাস না থাকার কারণে আগে কখনো রাজি হইনি। কিন্তু এই ছবিতে আমার আত্মবিশ্বাস শুধু নির্মাতা অমিতাভ রেজাকে ঘিরে ছিল। আমার ভেতর যদি কিছু থেকে থাকে তাহলে সেটি তিনিই বের করতে পারবেন। সেই ভরসা ছিল, এজন্য শুরুতেই অমিতাভ ভাইকে বলেছিলাম, আমি একেবারেই আনকোড়া, আমার কোনো অভিজ্ঞতা নেই, সব দায়িত্ব আপনার।

বড়পর্দার কারণেই কি ছোটপর্দায় কিছুটা কম দেখা যাচ্ছে আপনাকে?
কাজের ক্ষেত্রে বড়পর্দা ছোটপর্দা বলে কিছু নেই। আমি বিশ্বাস করি কাজ দিন শেষে শুধু কাজ, হোক বড়পর্দা বা ছোটপর্দা। আর নিজের আগ্রহেই ছোটপর্দা থেকে কিছুটা সরে এসেছি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: