সর্বশেষ আপডেট : ৪২ মিনিট ৫৭ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বালাগঞ্জে স্কুল কমিটি গঠন করা নিয়ে সংঘর্ষে আহত কলেজ ছাত্রকে ওসমানীতে প্রেরণ

unnamedবালাগঞ্জ প্রতিনিধি:
বালাগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের রাধা কোনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠন করাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে কলেজ ছাত্র সহ এক পক্ষের ৪ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে গুরুতর আহত কলেজ ছাত্র ইমরুল হাসান জুসেফকে রবিবার সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে এই ঘটনায় এখ পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নী বলে বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তরিকুল ইসলাম নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, শনিবার বেলা ১১টার দিকে রাধাকোনা স্কুলের কমিটি গঠনের লক্ষে এক সভা আহবান করা হয়। নির্ধারিত সময়ে সভা শুরু হলে বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুস শহিদ দুলাল সভায় প্রস্তাব উত্তাপন করে বলেন-শুধুমাত্র রাধাকোনা গ্রাম ভিত্তিক কমিটি গঠন না করে সবার অংশ গ্রহনের মাধ্যমে এলাকা ভত্তিক কমিটি গঠন করতে হবে।

এই প্রস্থাবের জোরালো বিরুধীতা করেন একই ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার আনেয়ার উদ্দিন আহমদ। প্রস্থাবনার বিষয়টিকে কেন্দ্র করে দুই মেম্বার তর্কে জড়িয়ে পড়লে সভায় উপস্থিত থাকা দুই মেম্বারের লোকজন কথা কাটাকাটি করে হাতাহাতি ও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে বর্তমান মেম্বার আব্দুস শহিদ দুলালের ভাতিজা কলেজ ছাত্র ইমরুল হাসান জুসেফ, ভাগিনা মাছুম আহমদ, খায়রুল আলম বাবুল ও প্রতিবেশী সামাদ আহমদ আহত হন। আহতদেরকে বালাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে চিকিৎসা দেয়া হয়।

এর মধ্যে গুরুতর আহত কলেজ ছাত্র জুসেফকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করার পর কোনা উন্নতি না হওয়ায় চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী রবিবার বেলা ১২টার দিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে প্রেরন করা হয়েছে। চিকিৎসকরা জানান, আহত জুসেফের মাথায় মারত্মক আঘাতে জখম ও রক্তক্ষরন হয়েছে। তার মাথায় জখম অংশে বেশ কয়েকটি সেলাই দেয়া হয়েছে এবং উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেটে ওসমানী হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাও: সৈয়দ আলী আসগর বলেন, ঘটনা সংঘঠিত হওয়ার সময় আমি সংঘাস্থলেই ছিলাম। স্কুলের কমিটি গঠন করা নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘঠলেও বর্তমান মেম্বার পক্ষের লোকজন বেশি আহত হয়েছেন।

৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুস শহিদ দুলাল বলেন, সাবেক মেম্বার আনোয়ার উদ্দিন আহমদ তার ভাইকে স্কুল কমিটির সভাপতি করা সহ তিনি মনগড়া কমিটি গঠন করতে চেয়েছিলেন তাতে বাঁধা দেয়ায় আমার লোকজনের উপর হামলা করা হয়েছে। বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মুনিম বলেন, বিষয়টি আপোষে নিস্পত্তি করার জন্য আমরা চেষ্টা করছি।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: