সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বৃক্ষ নিধনের অভিযোগ

unnamed-13কুলাউড়া অফিস : বড়লেখায় জমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জেরে উপজেলার সুড়িকান্দি গ্রামের নাজিম উদ্দিনের বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা ও বৃক্ষ নিধনের ঘটনা ঘটেছে। ২২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তার বাড়ির সামনের জমিতে এ ঘটনা ঘটে। প্রতিপক্ষের নুরুল ইসলাম গং দেশীয় অস্ত্রের মূখে নাজিম উদ্দিনের বসত বাড়ির সামনের জমি থেকে প্রায় ৩০০ আগর গাছের চারা এবং ২০টি কলাগাছ ও সীম ঝাড় কেটে ফেলে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নাজিম উদ্দিন শুক্রবার প্রতিপক্ষের ৭ জনের নাম উল্লেখ, ৩/৪ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় মামলা করেছেন ।লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৭৫ সনে সুড়িকান্দি গ্রামের তৈমুছ আলী ও হাছন রাজার কাছ থেকে ২২ শতক ভূমি (এসএ দাগ নং-২৮১) সাব কাবালায় (রেজি: নং ৪২৬৯) ক্রয় করেন একই গ্রামের নূর উদ্দিন গং। খরিদা সূত্রে মালিক নূর উদ্দিনরা ও তাদের উত্তরাধীকারগণ ভোগদখল করছিলেন। দীর্ঘ প্রায় ৪০ বছর পর সম্প্রতি বিক্রি হওয়া ভূমিটি নিজেদের দাবি করেন হাছন রাজার ছেলে নুরুল ইসলাম গংরা।

এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। ঘটনার দিন প্রতিপক্ষের নুরুল ইসলাম, বদরুল ইসলাম, শাহিন আহমদ, লাহিন আহমদ, জাহেদ, জাবেদ ও জাবের আহমদসহ ১০/১২জন দেশীয় অস্ত্রের মূখে নাজিম উদ্দিনের বাড়ির সামনের জমির ৩০০ আগর চারা উপড়ে দেয় এবং ২০টি কলা গাছ ও সীম ঝাড় কেটে ফেলে। এসময় ছবি তুললে ও বাধা দিলে বাড়ির লোকজনকে অস্ত্রের মূখে ধাওয়া করে ও হত্যার হুমকি দিয়ে তারা পালিয়ে যায়। অভিযোগকারী নাজিম উদ্দিন বলেন, আমাদের বাবা-চাচারা জমিটি ক্রয় করেছেন। দীর্ঘ ৪০ বছর থেকে ভোগদখল করছি। কিন্তু সম্প্রতি হাছন রাজার ছেলে নুরুল ইসলাম গংরা জায়গাটি তাদের দাবি করে বিভিন্ন সময় হামলা চালায়। তারা আমার দখলীয় বৈধ জমিতে অনধিকার প্রবেশ করে ৩০০ আগর চারা উপড়ে দেয় এবং ২০টি কলা গাছ ও সীম ঝাড় কেটে ফেলে। এতে আমার প্রায় ২ লাখ টাকার টাকার ক্ষতি হয়েছে।

নুরুল ইসলাম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, পুলিশ আসার পর ঘটনাটি তিনি জেনেছেন। নালিশা ভূমির চারপাশে রাতের আদারে নাজিম উদ্দিন বেড়া দিলে আমি ঘটনার দিন বিকেলে বেড়াটি উপড়ে ফেলি। কিন্তু কোন গাছ কাটিনি।
বড়লেখা থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ সহিদুর রহমান অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাটির তদন্ত চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: