সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শহীদ মনির, তপন ও জুয়েল স্মরণে সিলেটে জাসদের সমাবেশ

14409451_1740798632807389_8226365938301385889_oনিজস্ব প্রতিবেদক ::
শহীদ মনির, তপন ও জুয়েল স্মরণসমাবেশে বক্তারা বলেছেন, স্বাধীনতার পর থেকে জামায়াত-শিবিরচক্র যে রগ কাটা ও মানুষ হত্যার সাম্প্রদায়িক সহিংস রাজনীতি শুরু করেছিল তারাই আজ সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের সাথে জড়িত। তাই জঙ্গিবাদের মূল হোতা জামায়াত-শিবিরচক্রের রাজনীতি নিষদ্ধ করতে হবে। বক্তারা বলেন, শহীদ মনির, তপন ও জুয়েলসহ আশির দশক থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত জামায়ত-শিবিরের হাতে নিহত ও নির্যাতিতদের বিচার পাওয়ার দ্বার উন্মোচিত করতে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে মামলাগুলোর পুনর্তদন্তের মাধ্যমে খুনি জামায়ত-শিবির চক্রের বিচার করতে হবে। গতকাল শনিবার বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে কেন্দ্রীয় জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর জাসদের সভাপতি অ্যাডভোকেট জাকির আহমদের সভাপতিত্বে স্মরণসমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন। এরপর উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর পরিবেশনায় গণসংগীত ও সন্ধ্যায় শহীদ মিনার থেকে নগরীতে আলোর মিছিল বের করা হয়।
মহানগর জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহরাব আলী ও জেলা জাসদ নেতা গিয়াস আহমদের পরিচালনায় জামায়াত-শিবির ক্যাডারদের হাতে শহীদ মনির, তপন ও জুয়েলের ২৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সিলেট জেলা ও মহানগর জাসদের উদ্যোগে আয়োজিত স্মরণসমাবেশে বক্তব্য রাখেন এ হত্যামামলার বাদি ও সিলেট জেলা জাসদের তৎকালীন সভাপতি ছদর উদ্দিন চৌধুরী, গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি ব্যারিস্টার মো. আরশ আলী, জেলা জাসদের সভাপতি কলন্দর আলী, ওয়াকার্স পার্টির সিলেটের সভাপতি কমরেড আবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক কমরেড সিকন্দর আলী, মহানগর ন্যাপের সভাপতি মো. ইসহাক আলী, জাসদ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক শেখ আবদুস সোবহান, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ছয়ফুল আলম, মহানগর জাসদের সাধারণ সম্পাদক নাযাত কবির, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন সুমন, ঐক্য ন্যাপ সিলেটের সাধারণ সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস, মৌলভীবাজার জেলা জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঈনুল ইসলাম শামীম, সাম্যবাদি দলের নেতা বজ গোপাল চৌধুরী, ৮০ দশকে বাসদ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান, জাসদ নেতা আমিরুল ইসলাম চৌধুরী এহিয়া, বাবুল হোসেন, কবির আহমদ, হালিম আহমদ, অধ্যক্ষ গোলাম কিবরিয়া, জহির রায়হান, বাছির আহমদ বাদল, বেলায়েত হোসেন পলিট, দেলোয়ার হোসেন, মো. দেলোয়ার আহমদ।
14480479_1740798876140698_5674523036761214762_oশহীদ মনির, তপন ও জুয়েল হত্যামামলার বাদি ছদর উদ্দিন চৌধুরী স্মৃতিচারণ করে বলেন, ১৯৮৮ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর জামায়াত-শিবিরের হাতে নিহত মনির, তপন, জুয়েল হত্যার মামলা করতে কেউ সেদিন বাদি হতে রাজি হননি। এমনকি জাসদের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদকও বাদি হননি। এরপর মামলায় যাদেরকে সাক্ষী করা হয়েছিল, সেই সব বাম রাজনীতিবিদ নামধারীরা জামায়াতের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আর সাক্ষ্য দেননি। সে সময় বিচারক থেকে শুরু করে সবাই জামায়াতের দ্বারা প্রভাবিত ছিলেন। যার কারণে সেদিন আমরা নারকীয় এই হত্যাকান্ডের বিচার আমরা পাইনি। এখন সময় এসেছে পুনরায় এই হত্যামামলার তদন্ত করে খুনিদের বিচার করার। তিনি বলেন, মনির, তপন ও জুয়েল শুধু জাসদের কর্মী ছিল না; তারা মেধাবী ছাত্রও ছিল।
সভাপতির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট জাকির আহমদ বলেন, বিএনপি জোট দেশকে জঙ্গি রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চায়। এ কারণে তারা মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী চক্র জামায়াত-শিবিরকে দিয়ে তারা ৯০-এর দশক থেকে এখন পর্যন্ত দেশের মেধাবী ছাত্রনেতাসহ সাধারণ মানুষকে হত্যা করাচ্ছে। তিনি বলেন, স্বাধীনতার ৪৫ বছর পরও যেভাবে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার হচ্ছে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হচ্ছে, ঠিক সেইভাবে জামায়াত-শিবির কর্তৃক সংঘটিত সকল হত্যাকান্ডের বিচার করতে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: