সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কালের আবর্তে হারিয়ে যাচ্ছে সেই পালকি

palki-daily-sylhetআমিনুল ইসলাম::
দেখতে দেখতে পৃথিবীতে কালের অনেক পালা বদল হতেই চলছে। এক সময় বিয়ের রায়বরদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠত বেহারা পাড়া। আর সেই বেহারাদের ছিল খুবই কদর। প্রতিদিন ৬ থেকে ৮ জন নতুন জামাই বউদের বরণ করতে রং বেরংয়ের পালকি সাজাতে ব্যস্থ থাকতো তারা। দিনের শুরু থেকেই মধ্য রাত পর্যন্ত ওরা বর বধুকে যাত্রী করে ছুটেই চলতো গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে। তাদের চলার একমাত্র দিশারী ছিল হাতে থাকা বাঁশের লাঠি আর অন্ধকারে লন্ঠনের নিভো নিভো আগুন। কিন্তু এখন আর সেই বেহারাদের পাড়া গায়ের কিছু হাওড় অঞ্চল ব্যতিত কোথাও দেখা মেলেনি।

অনেকের আবার ধারণা তাও হাতে গণা কয়েক বছরের মধ্যে পুরোপুরি হাওড় অঞ্চল থেকেও হারিয়ে যাবে সেই পালকি। আজকের অনেক শিশুরা বেহারাদের কাঁধে পালকি দেখে মনে করে এ যেন পুতুল খেলা। হয়তো সেই শিশুরা জানেনা এটি এক সময়ের ঐতিহ্যবাহী বাংলার কদরের পালকি। তখন বর মুখে রুমাল দিয়ে পালকি চড়ে বধু বরণে আসতো। আর যাবার বেলায় বর পায়ে হেটে আর নতুন বধু পালকিতে করে স্বামীর গৃহে প্রবেশ করত। মাত্র কয়েক বছর পূর্বে পালকি ছাড়া বিয়ের অস্তিত কল্পনা করা যেতনা। কিন্তু আজ কি সেই কদরের বেহারাদের খোজ কেউ রাখে?

কানাইঘাট উপজেলার এক সময়ের আলোচিত মালিপাড়ায় ওদের খোঁজ নিতে গিয়েছিলাম। কিন্তু অনেক খুঁজাখুঁজি করেও সেই বেহারাদের দেখা পাইনি।

অবাক হয়ে যখন তাদের খুঁজতে লাগলাম তখন ছোট একটি কুড়ে ঘরের বারান্দায় ২৫-৩০বছরের মহিলাকে দেখে নমষ্কার জানিয়ে তাকে দিদি বলে ডাকলাম। অনেক কথার উত্তরে সে জানায়,ভাই এখন আর কেউ আমাদের খুজায় না। নতুন করে রাস্তাঘাট আর ডিজিটাল মডেলের গাড়ি বের হওয়ায় আমাদের ভাত ওরা কেড়ে নিয়েছে। তাই দু-মূঠো ভাত যোগাড় করতে মালিপাড়ার বেহারারা কেউ সেলুনে কাজ করে আর কেউবা রিক্সা চালিয়ে তাদের জীবিকানির্বাহ করছে।

আপনাদের পাড়ায় এখন কি কোন পালকি আছে? এমন উত্তরে দিদি বলেন গোটা পাড়ায় একটি মাত্র পুরনো পালকি আছে। তাও আবার বাড়িতে নেই। এটা তার স্বামী অন্য কোথায় রেখে দিয়েছে। যা সেও জানে না। যেই পাড়ায় সকাল হতে না হতেই শুরু হতো পালকি ধোয়া মুছা আর সাত রংয়ের কাগজ দিয়ে সাঁজানোর কাজ। সেই পাড়ায় আজ শুনশান নীরবতা, আর সেই মালি পাড়ায় পালকির সাঁজগোজ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: