সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ২২ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এটাই সৌন্দর্য্য!

beauty-550x365নিউজ ডেস্ক: যে রূপ দেখলে আপনি হয়তো আৎকে উঠবেন কিংবা হয়তো মাঝে মাঝেই তা বিভৎস রূপে আপনার চোখের সামনে ভেসে উঠবে। কিন্তু জেনে রাখুন, যে রূপ আপনার ভ্রুকুঞ্চনের কারণ তা হয়তো অন্য কোন স্থানে, অন্য কোন জাতিতে এক অপরূপ প্রতিমা হয়ে ধরা দেয়। যে রূপ আপনার চোখে ব্যাথা ধরায়; সে রূপের মোহে হয়তো অন্য কেউ নিজেকে হারায়।

ব্রিটেনের বিউটিফ্ল্যাশ নামক রূপচর্চা বিষয়ক একটি জরিপ সংস্থা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে প্রচলিত অদ্ভূদ কিছু রূপের বর্ণনা দিয়ে একটি তথ্যতালিকা প্রকাশ করেছে। জেনে নিন সে তালিকায় স্থান পাওয়া ব্যাতিক্রম কিছু রূপের কথা-
চীনে এক সময় পা’কে লম্বা করার জন্য টানা দিয়ে রাখা হতো এবং মেয়েদের পায়ের পাতা ছোট রাখতে কাঠের জুতো পরা হতো। এখন অবশ্য এটি নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

ভারতের আপাতানি নৃ-গোষ্ঠি নাকের দুই পাশে ছিদ্র করে গোলাকৃতির কাঠের ছিপি ঢুকিয়ে রাখতো। আর প্রাথমিক অবস্থায় এটা করা হতো মূলত ওই নৃ-গোষ্ঠির মেয়েদের সৌন্দর্য্য একটু কমিয়ে আনার জন্য, যাতে তারা অপহরণের হাত থেকে বেঁচে যায়। কিš‘ কালক্রমে এটিই তাদের রূপের একটি অংশ হয়ে যায়।
অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে চোখকে আরও বড় করে উপস্থাপন দক্ষিণ কোরিয়ার একটি অন্যতম সৌন্দর্য্যচর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। গোল গোল চোখ তাদের ভিষন টানে।

এশিয়ানদের অন্যতম এক বৈশিষ্ট হলো শরীরের ত্বককে ঘষে মেজে উজ্জ্বল রাখা। আফ্রিকা এবং মধ্যপ্রাচ্যেও এই বৈশিষ্ট লক্ষ্য করা যায়।

দারুণ ব্যাথার কারণ হলেও, ইন্দোনেশিয়ার কিছু উপজাতি তাদের দাঁত নিয়মিত ধারালো করে রাখেন। আর আফ্রিকার কিছু উপজাতীয় মহিলা শক্তির নিদর্শন হিসেবে নিজেদের শরীরে আঘাত করে খুঁত তৈরী করেন।
কেনিয়ার মাসাই জনগোষ্ঠি তাদের কানের লতিকে টেনে লম্বা করেন। তাদের ধারণা কানের লতি যত লম্বা হবে তারা ততই সুন্দর হয়ে উঠবেন।

আফ্রিকার অন্য একটি অংশে কিছু উপজাতীয় মহিলা একটি প্লেট বসিয়ে তাদের নিচের ঠোঁটটিকে ধীরে ধীরে প্রসারিত করেন। এটা তাদের একটি সৌন্দর্য্য রীতি। তাদের ঠোঁট যত বড় প্লেট ধারণ করবে তারা তত বেশি সুন্দর।
থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলে কিছু এলাকায় রিং বসিয়ে মেয়েদের ঘাড় লম্বা করার প্রচলন এখনো রয়েছে। যার গলা যত বেশি কয়েলাকৃতির রিং ধারণ করবে অন্যজনের চেয়ে তার রূপের প্রশংসায় মাতবে সবাই।
নিউজিল্যান্ডের মাউরিদের মধ্যে মুখে ট্যাটু এঁকে তাদের পদ এবং মর্যাদা প্রকাশ করা হয়।
সৌন্দর্য্যে প্রকাশে আপনারও নিশ্চয়ই কিছু গোপন টোটকা আছে, তাই না? সূত্র : ডেইলি মেইল

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: