সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

থানায় হাজির হয়ে ‘নিখোঁজের’ আসল রহস্য জানালেন অভিনেতা বৈরাগী

full_1818156125_1474284058ডেইলি সিলেট ডেস্ক: ৪১ দিন নিখোঁজ থাকার পর আজ সোমবার দুপুরে কলাবাগান থানায় এসে হাজির হয়েছেন নিখোঁজ অভিনেতা ফখরুল হাসান বৈরাগী। এদিকে, তিনি বৈরাগী কোথায় কীভাবে ছিলেন তা জানানোর জন্য তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলন করতে যাচ্ছে ডিএমপি। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানিয়েছেন ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম।

এদিকে গণমাধ্যমে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়ে প্রকাশিত সংবাদকে ‘উদ্দেশ্যমূলক’ এবং যে নারী তার স্ত্রী পরিচয়ে এ সংবাদ দিয়েছেন তাকেও স্ত্রী হিসাবে অস্বীকার করেছেন এ অভিনেতা। সোমবার দুপুরে কলাবাগান থানা পুলিশের সহায়তায় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে এসে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে এসব তথ্য জানান তিনি।

এ বিষয়ে কলাবাগান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াসির আরাফাত বলেন, ‘অভিনেতা ফখরুল হাসান বৈরাগীর স্ত্রী রাজিয়া হাসান গত দেড়মাস ধরে তার নিখোঁজ থাকার যে বিষয়টি জানিয়েছেন তা সঠিক নয়। ফখরুল হাসান নিজেই আমাদের জানিয়েছেন তিনি নিজের ছেলের বাসায় ছিলেন। রাজিয়া হাসানও তার স্ত্রী নন।’

উল্লেখ্য, অভিনেতা ফখরুল হাসান বৈরাগী গত দেড়মাস ধরে নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানান তার স্ত্রী হিসাবে পরিচয় দানকারী রাজিয়া হাসান নামে এক নারী। বোনদের সঙ্গে সম্পত্তির দ্বন্দ্বের কারণে বৈরাগী নিখোঁজ হতে পারেন বলে তখন তিনি আশঙ্কাও প্রকাশ করেছিলেন। নিখোঁজের বিষয়ে একটি সাধারণ ডায়েরির (জিডি) কথা বললেও তিনি কোন থানায় জিডি করেছেন তা সাংবাদিকদের জানাননি।

তবে ওই নারীর (রাজিয়া হাসান) সঙ্গে দীর্ঘদিন একসঙ্গে থাকার কথা স্বীকার করে অভিনেতা ফখরুল হাসান বৈরাগী বলেন, ‘আমি নিজের ইচ্ছায়, স্বজ্ঞানে আমার আগের সংসারে চলে এসেছি। রাজিয়া হাসান নামে যে নারী আমার স্ত্রী পরিচয় দিয়ে এই খবর প্রকাশ করেছে সে আমার স্ত্রী নয়। বর্তমানে তার সঙ্গে আমার বনিবনা হচ্ছিল না। আমি ধারণা করছি সে আমার ক্ষতি করতে পারে।’

এ অভিনেতা বলেন, ‘গত পরশুদিন আমি শুনি অনলাইনে আমার নিখোঁজের খবর দেওয়া হয়েছে। তাই মনে করছি এটার প্রতিবাদ জানানো দরকার। যেহেতু এটি পারিবারিক ব্যাপার তাই আমি কাউকে জানানো দরকার মনে করিনি। আত্মীয়-স্বজনকেও সেভাবে জানাইনি। কাল পত্রিকায়ও দেখলাম আমি নিখোঁজ রয়েছি বলে খবর প্রকাশ হচ্ছে। তাই আমি মনে করলাম এটার সমাপ্তি হওয়া দরকার। আমি নিখোঁজ নই, পরিবারের সঙ্গে আছি।’

রাজিয়া হাসান নামে ওই নারীর বিষয়ে ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘সে দাবি করেছেন সে আমার স্ত্রী, তবে সেরকম কোনও রেকর্ড নেই। আমি তার সঙ্গে মোহাম্মদপুরে ছিলাম। আমার সেখানে একটি ছেলেও আছে। আর একটি পালক মেয়ে আছে। কিন্তু, মান-অপমান সহ্য করে আমি আর থাকতে পারিনি। এরপর আমি আমার আগের সংসারের ছোট ছেলেকে ফোন দিই। আমি জানাই তাদের সঙ্গে থাকতে চাই, এরপর ছোট ছেলে আমাকে মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে নিয়ে যায়। আমার দুই ছেলে কেরানীগঞ্জের আঁটিবাজারে থাকে।’

যেহেতু তার (রাজিয়া হাসান) সঙ্গে আমার মনের মিল হচ্ছিল না, তাই আমি তার সঙ্গে থাকছি না উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘এই বয়সে আর তার সঙ্গে থাকতে চাই না। আল্লাহ যে কদিন বাঁচিয়ে রাখবে আমি আমার এই দুই ছেলের সঙ্গেই থাকতে চাই। আমার প্রথম স্ত্রী মারা যাওয়ার পর রাজিয়া হাসান জোর করে আমার ছেলেদের আলাদা করে দেয়। এরপর থেকে আমি তার সঙ্গেই ছিলাম।’

বিভিন্ন গণমাধ্যমে নিখোঁজের খবর প্রকাশের দু’দিনের মধ্যে আজ থানায় হাজির হয়ে এসব কথা বলেন ফখরুল হাসান বৈরাগী।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: