সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ১১ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দোয়ারায় ইউপি চেয়ারম্যান লাঞ্ছিত : পাল্টাপাল্টি হামলা, ভাঙচুর

rocwদোয়ারাবাজার সংবাদদাতা ::
দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার মামুনুর রশীদকে মারধর ও লাঞ্ছিত করাকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি হামলা, বাড়িঘরে ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গতকাল সোমবার সারাদিন সুরমা ইউনিয়নের পরিস্থিতি ছিল উত্তপ্ত। এক পর্যায়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ নিয়ে যে কোনো সময় বড় ধরনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সুরমা ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান খন্দকার মামুনুর রশীদ ও একই ইউনিয়নের টিলাগাঁও গ্রামের মৃত আহমদ আলীর পুত্র সাবেক সেনাসদস্য হারুনুর রশীদের মোবাইলে ফোনে গত রোববার রাত বারোটার পরে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দু’জনের মধ্যে উত্তেজনামূলক বাগ্বিতন্ডা হয়। এরই জের ধরে সোমবার সকালে চেয়ারম্যান মামুন, হারুনের বাড়ির পাশে টিলাগাঁও রাবার ড্যাম্প এলাকায় যাবার পরেই হারুনের ছেলে ও ভাতিজার সাথে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তারা চেয়ারম্যানকে মারপিট ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। এ ঘটনায় চেয়ারম্যান দোয়ারাবাজার থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই চেয়ারম্যানের পক্ষের কিছু সংখ্যক লোক প্রতিপক্ষের বাড়িঘরে হামলা চালান। এঘটনার পর দোয়ারাবাজার থানার এসআই ফিরুজ আল মামুন , ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
হারুনুর রশীদ জানিয়েছেন, গত রাতে চেয়ারম্যানে আমার মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়ে বলেছেন, আমাকে পিটিয়ে টিলাগাঁও থেকে ধরে থানায় নিয়া যাবে। গতকাল সোমবার সকালে চেয়ারম্যান আমার ছেলে-ভাতিজাকে রাস্তায় পেয়ে মারধর করে। পরে আবার দুপুরে ২৫/৩০ জন লাঠিয়াল বাহিনী নিয়ে আমার বাড়িতে থাকা মহিলাদেরকে মারধরকরাসহ বাড়িঘর হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়েছেন।
জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মামুনুর রশীদ বলেছেন, হারুন এক মোটরসাইকেল ড্রাইভারকে মারধর করার হুমকি দেন। আমি তাকে বিষয়টি জানার জন্য রাতে ফোন দিলে তিনি আমার সাথে বাজে আচরণ করেন। এরই জেরে সকালে এব্যাপারটি সুরাহা করতে টিলাগাঁও এলাকায় যাওয়ার পথে তার আত্মীয়স্বজনরা আমার উপর অতর্কিত হামলা করেন। একপর্যায়ে আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।
জানতে চাইলে দোয়ারাবাজার থানার ওসি (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: