সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ২৯ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রঙিন স্মার্টকার্ড বিতরণ শুরু ২ অক্টোবর

smartcardডেইলি সিলেট ডেস্ক ::
ভোটারদের হাতে থাকা লেমিনেটেড জাতীয়পরিচয়পত্রে রঙিন ছবি থাকলেও উন্নতমানের স্মার্টকার্ডে দেখা যাবে সাদা-কালো ছবি। নির্বাচন কমিশন আগামী ২ অক্টোবর থেকে উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্ট কার্ড) বিতরণের কাজ শুরু করবে। ওই দিন বিকেল পাঁচটায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কার্ড বিতরণের কাজ উদ্বোধন করবেন।
কমিশন সচিবালয় থেকে জানা যায়, ইতিমধ্যে ঢাকা জেলার ৫০ লাখ কার্ড মুদ্রণের কাজ শেষ হয়েছে। চট্টগ্রাম জেলার কার্ড মুদ্রণের কাজ চলছে। ২০১৭ সালের জুনের মধ্যে ৯ কোটি কার্ড মুদ্রণের কাজ শেষ হবে এবং বিতরণের কাজ শেষ করা হবে ডিসেম্বরের মধ্যে।বর্তমানে ভোটারসংখ্যা ১০ কোটির বেশি। কিন্তু প্রকল্পের টাকায় কার্ড দেওয়া হবে ৯ কোটি ভোটারকে। তবে এই প্রকল্পের মেয়াদেই সরকারি টাকায় অতিরিক্ত ১ কোটি ভোটারকে স্মার্ট কার্ড দেওয়া হবে।কার্ড বিতরণের সময় নাগরিকদের বিদ্যমান কার্ড জমা নেওয়া হবে এবং তাঁদের ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের মণি স্ক্যান করা হবে। এই কার্ডের মেয়াদ হবে ১০ বছর।
কমিশন সচিবালয় থেকে জানা যায়, বর্তমানে যে কার্ড ভোটারদের হাতে রয়েছে, তা সাধারণ অফসেট কাগজে প্রিন্ট দিয়ে লেমিনেট করা। আর স্মার্ট কার্ড হবে প্লাস্টিকের তৈরি। সহজে নষ্ট হবে না।বিশ্বব্যাংকের কাছ থেকে ঋণ হিসেবে নেওয়া প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ের এই প্রকল্পের মেয়াদ এ বছরের জুনে শেষ হওয়ার কথা ছিল। পরিকল্পনা অনুযায়ী কার্ড বিতরণের কাজ শুরু করার কথা ছিল ২০১৪ সালের শেষের দিকে। কিন্তু নির্বাচন কমিশন যথাসময়ে কাজ শেষ করতে পারেনি। এ কারণে বিশ্বব্যাংক প্রকল্পের মেয়াদ ১৮ মাস বাড়িয়ে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত নির্ধারণ করে।
জানতে চাইলে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন বিভাগের মহাপরিচালক সুলতানুজ্জামান মো. সালেহউদ্দিন বলেন, স্মার্ট কার্ড বিতরণের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নির্বাচন কমিশন নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ২ অক্টোবর সময় দিয়েছেন। সে অনুযায়ী ওই দিন থেকে কার্ড বিতরণের কাজ শুরু হবে। আগামী বছরের ডিসেম্বরে প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। যে কারণে ওই সময়ের মধ্যে বিতরণের কাজ শেষ করতে হবে। আর সেটা করতে হলে কার্ড মুদ্রণের কাজ শেষ করতে হবে আগামী বছরের জুনের মধ্যে।কমিশন সচিবালয় থেকে জানা যায়, পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রপতির স্মার্ট কার্ড প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) কাছে হস্তান্তর করবেন। এরপর সিইসি প্রধানমন্ত্রীর হাতে কার্ড তুলে দেবেন। সবশেষে প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যদের মধ্যে কার্ড বিতরণ করবেন। রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, সিইসি ও জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের কার্ড ইতিমধ্যে মুদ্রণ করা হয়েছে।নিবন্ধন বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, স্মার্ট কার্ড প্রিন্টারে প্রতিদিন গড়ে দেড় লাখ কার্ড মুদ্রণ করা সম্ভব এবং প্রতিদিন গড়ে ১ লাখ ৮০ হাজার কার্ড বিতরণ করা সম্ভব হবে। কার্ড বিতরণের জন্য সারা দেশের প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে ক্যাম্প থাকবে। এ জন্য ১ হাজার ৫০০ জন অপারেটর নিয়োগ করা হয়েছে।
নির্বাচন কমিশন সচিবালয় বলছে,আন্তর্জাতিক মানের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে কার্ডেদৃশ্যমান ছবি সাদা-কালোই হবে। তবে কার্ডে যুক্ত মেমোরি চিপে রঙিন ছবি থাকবে।
১০ বছর মেয়াদী এ স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র আগামী ৩ অক্টোবর থেকে ঢাকা মহানগর ও কুড়িগ্রামের প্রত্যন্ত চরাঞ্চলে বিতরণ শুরু হবে। তার আগের দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যচক্রমের উদ্বোধন করবেন।নির্বাচন কমিশন সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ইউনিক পরিচিতি নম্বর, হলোগ্রামযুক্ত, মেমোরি চিপ ও বারকোডসহ আন্তর্জাতিক মানের এ জাতীয় পরিচয়পত্রে নাগরিকের সাদা-কালো ছবি থাকবে। কারিগরি ও অন্যান্য সুবিধার কথা মাথায় রেখে ভোটারের রঙিন ছবি ব্যবহার সম্ভব হচ্ছে নাপলিকার্বনেটেড কার্ড ব্যবহার করা হচ্ছে বলেই তাতে ছবি সাদা-কালো হবে বলে জানান তিনি।স্মার্টকার্ডের এক পিঠে ভোটারের নাম, পিতা-মাতার নাম, জন্মতারিখ, এনআইডি নম্বর, স্বাক্ষর এবং অপর পিঠে ঠিকানা, ব্লাড গ্রুপ এবং ইস্যুর তারিখ দেওয়া থাকবে। এছাড়া থাকবে ছবি, মোমোরি চিপ, বারকোডসহ বিভিন্ন নিরাপত্তা ফিচার, যা জালিয়াতি করা কঠিন হবে বলে ইসির দাবি।
জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান মো. সালেহ উদ্দিন বলেন,পলিকার্বনেট লেজার দিয়ে পোড়ানো হয় বলে ছবি সাদা-কালোই হয়। এতে ছবির রেজুলেশন ভালো থাকে, উজ্জ্বল দেখায়। সারা পৃথিবীতেই এ ধরনের কার্ডে সাদা-কালো ছবি থাকে। তবে মেমোরি চিপে ভোটারের রঙিন ছবি সংরক্ষিত থাকছে।তিনি জানান, স্মার্ডকার্ডে প্রয়োজনীয় সব তথ্য যুক্ত করার পরও অন্তত ৬০ কিলোবাইট ব্যবহার উপযোগী মেমোরি থাকবে। পরে ওই স্পেস বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা যাবে। কার্ডের নিরাপত্তায় এপিঠ-ওপিঠে চারটি ছবি থাকবে।
স্মার্টকার্ড বিতরণের সব ধরনের প্রস্তুতি গুছিয়ে আনা হয়েছে জানিয়ে এনআইডি উইংয়ের মহাপরিচালক জানান, এর প্রচারের জন্য জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে ‘ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর’ করা হয়েছে। শিগগিরই এ কর্মসূচির বিস্তারিত প্রকাশ করা হবে।জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান জানান, শতভাগ পলিকার্বনেটে তৈরি এই স্পার্ট কার্ড হবে মেশিন রিডেবল, যাতে নাগরিকের প্রয়োজনীয় ব্যক্তিগত তথ্য সংরক্ষিত থাকবে।
তথ্যের কিছু হবে দৃশ্যমান, আর কিছু বায়োমেট্রিক। হলোগ্রামযুক্ত কার্ডে থাকবে দ্বিমাত্রিক বারকোড। আর্দ্রতা, রাসায়নিক ও ইলেকট্রো ম্যাগনেটিক ফিল্ড প্রতিরোধী হবে এই কার্ড।কার্ড বিতরণে ৭৫টি টিমে মোট দেড় হাজার জন কাজ করবেন জানিয়ে ইসি সচিব সিরাজুল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধনের পরদিন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলার একটি চরে বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। ৩ অক্টোবর থেকে ঢাকা মহানগরী ও প্রত্যন্ত এলাকায় একযোগে বিতরণ শুরু হবে।
রাজধানীতে ৯৭টি ওয়ার্ডে একটি করে ক্যাম্প থাকবে। ভোটাররা সংশ্লিষ্ট ক্যাম্পে গিয়ে এখনকার লেমিনেটেড কার্ড জমা রেখে ও ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি দিয়ে নিজের স্মার্টকার্ড নিতে পারবেন।বর্তমানে দেশে প্রায় ১০ কোটি ভোটার রয়েছেন। তাদের অধিকাংশের হাতে কাগজের তৈরি প্লাস্টিক লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র রয়েছে। স্মার্টকার্ডের মত কোনো বিশেষত্ব নেই এ পরিচয়পত্রে।
স্মার্টকার্ড নেওয়ার সময় নাগরিকদের ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি দিতে হবে। এজন্য প্রতিটি এলাকায় ক্যাম্প করে কার্ড বিতরণ ও চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি নেওয়া হবে। আগের লেমিনেটেড পরিচয়পত্রটি সে সময় ফেরত দিতে হবে নাগরিকদের।নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, দেশের প্রায় ১০ কোটি ভোটারের মধ্যে মোটামুটি ৯ কোটির হাতে লেমিনেটেড এনআইডি রয়েছে। বিভিন্ন নাগরিক সুবিধা পেতে এই জাতীয় পরিচয়পত্রের অনুলিপি জমা দেওয়ার বাধ্যবাধকতাও রয়েছে।
ইসির পরিকল্পনা অনুযায়ী, প্রথমে ঢাকা সিটি করপোরেশন, জেলা-উপজেলা, পৌরসভা ও সবশেষে ইউনিয়ন পর্যায়ে স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে। ঢাকায় স্মার্টকার্ড বিতরণের পর দেশের অন্যান্য সিটি করপোরেশনগুলোতেও তা বিতরণ করা হবে।২০১৭ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে দেশের সকল ভোটারের হাতে স্মার্টকার্ড পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ইসির। ওই সময়ই বিশ্ব ব্যাংকের সহায়তাপুষ্ট এ প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা।
নাগরিকদের স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র দিতে গত বছরের জানুয়ারিতে ফ্রান্সের একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করে ইসি। দেড় বছরেও এনআইডি বিতরণ শুরু করতে না পারায় মে মাসে ‘জরুরি ভিত্তিতে উৎপাদন ও বিতরণ কার্যক্রম’ নিতে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়কে তাগাদা দেয় অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ।
এরপর গত ২ অগাস্ট স্মার্টকার্ডের প্রযুক্তি ও কারিগরি দিকসহ সার্বিক বিষয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জানায় ইসি। স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র থেকে মানুষ কী ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাবে, তা প্রচারের ওপর গুরুত্ব দিতে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।ইসির জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জান মো. সালেহ উদ্দিন জানান, ‘জাতীয় পরিচয়পত্র করে পরিচয় দিন গর্ব ভরে’ স্লোগান নিয়ে সেপ্টেম্বরে নাগরিকদের হাতে স্মার্টকার্ড তুলে দেওয়ার সব প্রস্তুতি তারা শেষ করেছেন। ইতোমধ্যে ঢাকার ১০টি নির্বাচনী থানায় প্রয়োজনীয় স্মার্টকার্ড পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।কোথায় কীভাবে স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে- সে বিষয়ে বিস্তারিত সূচি পরে জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।
আয়কর দাতা শনাক্তকরণ নম্বর (টিআইএন) প্রাপ্তি, ড্রাইভিং লাইসেন্স নম্বর প্রাপ্তি ও নবায়ন, পাসপোর্ট প্রাপ্তি ও নবায়ন, চাকরির জন্য আবেদন, স্থাবর সম্পত্তি কেনা-বেচা, ব্যাংক হিসাব খোলা ও ঋণ প্রাপ্তি, সরকারি বিভিন্ন ভাতা উত্তোলন, সরকারি ভর্তুকি, সাহায্য, সহায়তা প্রাপ্তি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি, বিমানবন্দরে ই-গেইট এর মাধ্যমে আগমন ও বহির্গমন সুবিধা, শেয়ার আবেদন ও বিও অ্যাকাউন্ট খোলা, ট্রেড লাইসেন্স প্রাপ্তি, যানবাহন রেজিস্ট্রেশন, বিয়ে ও তালাক রেজিস্ট্রেশন, গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি সংযোগ গ্রহণ, মোবাইল ও টেলিফোন সংযোগ গ্রহণ, বিভিন্ন ধরনের ই-টিকেটিং, সিকিউরড ওয়েব লগ ইন, ই-ফরম পূরণে নাগরিকের সঠিক ও নির্ভুল তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংযোজনের কাজে ১০ ডিজিটের এই স্মার্টকার্ড ব্যবহার করা যাবে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: