সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ১৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রেস্টুরেন্ট ব্যবসায় প্রভাব ফেলে সেলফি

91204801_food-selfie-getty-1200-550x347নিউজ ডেস্ক : সেলফি এই প্রজন্মের তরুরদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়। স্মার্টফোনের কল্যানে গত এক বছরে সেলফি তুমুল জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আজকাল রেস্তোরাগুলোতে গেলেই দেখা যায় খাওয়ার পাশাপাশি সেলফি তোলার ধুম। ফলে রেস্তোরাগুলো পরিচিতি পেয়ে যাচ্ছে দ্রুত।

খাওয়া আর আড্ডার জন্য রেষ্টুরেন্টগুলো প্রায়ই থাকে জমজমাট। ব্যস্ত ঢাকার একটি রেস্টুরেন্টে ঢুকে দেখা গেলো খাবার খেতে আসা বিভিন্ন কাস্টমারের মাঝে একদল তরুন তরুনীও খেতে এসেছে। কিন্তু খাওয়ার আগেই তারা তাদের মোবাইলে সেলফি তুলছে। আজকাল রেস্টুরেন্টগুলোতে এই দৃশ্য খুবই স্বাভাবিক। খাওয়া আর আড্ডার মাঝে সেলফি কেন এতোটা জনপ্রিয়।
সেলফি তুলতে থাকা এক কাস্টমার বললেন, একটি অজানা রেস্টুরেন্ট সেলফির কারণে অনেক দ্রুত পপুলার হয়ে যাচ্ছে। অনেকেই খেতে এসে সেলফি দিয়ে দেখাচ্ছে আমরা কোথায় আছি বা খাচ্ছি। এমনকি খাবার ভালো না লাগলেও অনেকে সেলফি তুলে দিচ্ছে। সেলফি মেনিয়ার কারণে।

এক তরুনী জানালেন, ফেসবুক তো একটি সোশ্যাল মিডিয়া। তাই সোশ্যাল হওয়ার জন্যই আমরা সেলফি দেই। এখানে এসেছি খাচ্ছি সেটা জানানোর জন্যই ফেসবুকে ছবিগুলো দেয়া হয়। আমার ফ্রেন্ডরাও চাইলে আসতে পারো। ভালো লাগলে ভালো, বা খারাপ লাগলে খারাপ বলছি। বা অন্য কারো সেলফি দেখে আমরা নতুন রেস্টুরেন্ট সম্পর্কে জানতে পারছি।
তরুনদের এই সেলফি প্রবনতা মাথায় রেখে দোকানের নিত্যনতুন ডেকোরেশনও করেন অনেকে।

রেস্টুরেন্ট বানিজ্যে সেলফির প্রভাব কতটুকু? এই বিষয়ে ঢাকার একটি নামী রেস্টুরেন্টের স্বত্বাধিকারী মহিউদ্দিন জানান, যেহেতু এখন সবাই অনেক বেশি ফেসবুকের সাথে যুক্ত সেহেতু তারা এসব রেস্টুরেন্টের ছবি অনেক বেশি করে ফেসবুকে দেয়। তাই রেস্টুরেন্ট বিজনেসে সেলফির প্রভাব অস্বিকার করার কোন উপায় নাই। রেস্টুরেন্টগুলো এই ধরনের কাজকে উৎসাহিত করে এবং এটার সাথে ট্যাগ হওয়ারও চেষ্টা করে। বিশেষ করে তরুন প্রজন্ম সেলফি তুলতে রেস্টুরেন্টকে প্রেফার করে। তারা ভাবে এখানকার পরিবেশ কেমন, এখানে ছবি তুললে ভালো আসবে কিনা।

ঢাকার আরেকটি রেস্টুরেন্টের স্বত্বাধিকারী বলেন, আমরাও একসময় সেলফি অফার দিয়েছি। যেমন কেউ সেলফি তুলে আমাদেরকে ট্যাগ করলে ডিসকাউন্ট পাবে। এধরনের অফার আমাদের খুব সাপোর্ট দেয়। কোন কাস্টমার যদি এখানে খাওয়ার সময় সেলফি তুলে পোষ্ট দেয় তাহলে তার বন্ধুবান্ধব বা ফলোয়ার যারা আছে তারাও রেস্টুরেন্ট সম্পর্কে জানতে পারছে। আমাদের ব্যাবসায় সেলফির একটা প্রভাব আছে তবে সেই সাথে খাবারের মান ও পরিবেশ বজায় রাখাটাও গুরুত্বপূর্ণ।

সেলফির কারণে রেস্টুরেন্টর পরিবেশেও আসছে নিত্যনতুস সাজ। খাবারের পাশাপাশি বিনোদনের ব্যাবস্থাও রাখছে কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ডেকোরেশনের কারণে খাবারের গুনগত মান নিয়ে কোন ধরনের কমপ্রোমাইজ করা হচ্ছে কিনা। এই বিষয়ে ভুত রেস্টুরেন্টের ম্যানেজার নোমান মাহমুদ বলেন, এখন মানুষ শুধু খেতেই আসে না, পাশাপাশি বিনোদনের জন্যও আসে। খাবার অবশ্যই ভালো হতে হবে সেই সাথে সার্ভিসও ভাল হতে হবে। সেলফির বিষয়ে তিনি বলেন, এটা রেস্টুরেন্ট ব্যাবসার জন্য পজেটিভ। রেস্টুরেন্টে বসে সেলফি তুললে সেই রেস্টুরেন্টের একটা বিজ্ঞাপনও হচ্ছে।

এদিকে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী খাবারগুলো স্বুস্বাদু হওয়া সত্বেও সেখানে সেলফির কোন প্রভাব থাকে না। এটি কি শুধু ডেকোরেশনের জন্যই। এই বিষয়ে হোটেল রব্বানির ম্যানেজার মনিরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, খাবারের মান ও পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা ঠিক রেখে ভালো ব্যাবহার করলে কাস্টমার এমনিতেই আসবে। ভালো খাবার খেয়ে অনেকেই প্রসংসা করবে তাদের কথা শুনে আরো কাস্টমার আসবে। আর খাবার যদি ভালো না হয়, শুধু ডেকোরেশন যদি ভালো হয় তাহরে সেলফি দেখেই কাস্টমার আসবে।
বিবিসি

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: