সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ১ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শ্রীমঙ্গলে ‘আঁচল’ ব্যান্ডের পূরবী’র কৃতিত্ব

_-copyজীবন পাল: বাংলাদেশের একমাত্র ফিমেইল ব্যান্ড ‘আঁচল’ এর অক্টোপ্যাডিস্ট পূরবী জিপিএ-৫ পেয়েছে। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত এসএসসি পরীক্ষায় সে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে।

শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালাপুরের ইউনিয়নের মাইজদিহি এলাকায় শ্যামল কান্তি বৈদ্য ও সবিতা বৈদ্যের একমাত্র মেয়ে পূরবী বৈদ্য। মা সবিতা বৈদ্য গৃহিণী। বাবা শ্যামল কান্তি বৈদ্য একজন এনজিও কর্মী। জলবায়ূ ও পরিবেশ নিয়ে কাজ করা আমেরিকান দাতা সংস্থা দ্বারা পরিচালিত বাংলাদেশের সিএনআরএস এনজিও’র আয়তাধীন ক্রেল প্রোজেক্টে এনজিও কর্মী হিসেবে কর্মরত পূরবী’র বাবা শ্যামল কান্তি বৈদ্য।

মেয়ে বাংলাদেশের আলোচিত একমাত্র ফিমেইল ব্যান্ডের একজন সদস্য হওয়ায় এবং মেয়ের এসএসসি’র এই সফলতার অনুভূতি জানতে চাইলে পূরবী’র বাবা শ্যামল কান্তি বৈদ্য বলেন, প্রথমে আমি বলবো আমার মেয়ের এই সফলতায় আমিসহ আমাদের পরিবারের সবাই সন্তোষ্ট। অভিভাবক হিসেবে আমি সব সময় তাকে যতটা সাপোর্ট দেওয়ার দিয়ে গেছি। এই ক্ষেত্রে বলবো, আমাদের সন্তানকে মানুষের মত মানুষ হিসেবে গড়ে তোলতে যে জিনিসটি বেশি দরকার তা হলো সন্তানের প্রতি অভিভাবকদের সহযোগিতা। তার এই অর্জন ও আঁচলের সাথে সম্পৃক্ততা দুটোতেই আমি গর্বিত।

তাছাড়া এরকম একটি ব্যান্ডে জড়িত থেকেও আমার মেয়ে তার এই ভাল ফলাফল দ্বারা আমাদের বুঝিয়ে দিলো যে সংগীত বা ব্যান্ড তার পড়াশোনার ক্ষেত্রে নেতিবাচত কোন প্রভাব ফেলতে পারেনি।

তিনি বলেন, আমাদের অভিভাবকদের সকলের উদ্দেশ্যে আমি বলবো, আসুন আমরা আমাদের সন্তানকে তার মেধা বিকাশে তার পাশে থেকে সহযোগিতা করি। তাহলেই আমাদের সন্তানরা তার মেধা বিকাশে বাধাহীনভাবে সফল হবে।

পূরবী’র এই সফলতা ও আঁচল ব্যান্ড সম্পর্কে জানতে চাইলে ভৈরবগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুধাংশু শেখর পাল জানান, পূরবী’র এই অর্জন আমাদের বিদ্যালয়ের জন্য আসলেই একটা গর্বের বিষয়। পূরবী জিপিএ-৫ পেয়ে তার অর্জিত সফলতার মাধ্যমে তার মেধার উপযুক্ত উদাহরণ আমাদের সবার সামনে তুলে ধরলো। মূল কথা, পূরবীই আমাদের জন্য গর্বের বিষয়। আমার বিশ্বাস সে একদিন তার মেধা দিয়ে আমাদের এই বিদ্যালয়ের নাম তার ব্যান্ড আঁচলের মতই চারদিকে ছড়িয়ে দিবে।

এরকম এক প্রতিভার অধিকারী ও সফল ছাত্রী’র বসবাস কালাপুর ইউনিয়নের হওয়ায় কালাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের অনুভূতি জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক মুজুল জানান, পূরবী’র এই অর্জনটা শুধু যে তার নিজের তা কিন্তু নয়। তার এই অর্জন কালাপুর ইউনিয়নবাসীর। তার এই অর্জন সমগ্র শ্রীমঙ্গল উপজেলাবাসীর। সে কালাপুর ইউনিয়ন তথা শ্রীমঙ্গল উপজেলার একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র বলতে হয়। কেননা সে ও তার সাথের মেয়েরা তাদের ‘আঁচল’ ব্যান্ডের মাধ্যমে শ্রীমঙ্গলকে সারা বিশ্বের মানুষের কাছে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে। এরই সাথে তার এসএসসি’র এই অর্জিত ফলাফল আসলেই তার মেধার বহি:প্রকাশ বলতে হয়। তার সর্বাঙ্গীন সফলতা কামনা করছি। সেই সাথে তাকে সর্বাত্বক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করছি।

এ ব্যাপারে আঁচল ব্যান্ডের লিডার নন্দিতা দাশ জানান, আসলে আমাদের আঁচল ব্যান্ড মেম্বার পূরবী’র এই অর্জনটা প্রশংসার দাবি রাখে। আমাদের সমাজের তথা দেশের প্রেক্ষাপটে পড়াশোনার পাশাপাশি মিউজিক চালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি কষ্টকর ও চ্যালেঞ্জের একটি বিষয় বলতে হয়। সেই চ্যালেঞ্জকে পূরবী অনায়াসে মোবাবেলা করতে পেরেছে । পূরবী’র সাথে সাথে তার এই অর্জনটা আঁচল ব্যান্ড মেম্বার হিসেবে আমাদের আঁচল ব্যান্ডের সকল মেম্বারদের জন্য গর্বের একটি বিষয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আঁচল ব্যান্ডের সদস্য, অক্টোপ্যাডিস্ট পূরবী জানায়, আমার এই অর্জনের পিছনে যাদের অবদান সবচেয়ে বেশি তারা হলেন আমার মা বাবা। যাদের সাপোর্ট ছাড়া আমার এই অর্জন কোনদিনও সম্ভব হতো বলে মনে হয়না। পড়াশোনার পাশাপাশি মিউজিক করার ক্ষেত্রে আমার মা বাবার সাপোর্টের কথাটা আসলেই উদাহরণসরূপ হিসেবে আখ্যায়িত করা যায়। আমাদের সমাজে এরকম সাপোর্টটা সব অভিভাবকরা দিতে চাইনা। এর জন্য আমি আমার মা বাবার কাছে চির কৃতজ্ঞ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: