সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ১ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ফোন রিসিভ করলেই মৃত্যু! গুজবে ভাসছে নবীগঞ্জ

downloadমতিউর রহমান মুন্না, নবীগঞ্জ::
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার সর্বত্র চলছে মোবাইল ফোনের আতংক। জিরো নাম্বারে ফোন রিসিভ করলেই মৃত্যু বা শরীর জ্বলিয়ে কালো হয়ে গুরুতর আহত হওয়ার আতংক এখন উপজেলার সর্বত্র। গ্রাম থেকে শহর পর্যন্ত চলছে এ গুঞ্জন। গ্রামঞ্চালে অনেকেই ফোন রিসিভ করা থেকেও বিরত রয়েছেন। গত কয়েকদিন ধরে এ প্রতিনিধির কাছে একাধিক ফোন এসেছে অমুক গ্রামে ফোন রিসিভ করে তমুক মারা গেছে কেই কেউ বলছে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। যদিও কেউ সুনির্দিষ্ট তথ্য দিতে পারেনি। এমনকি হাসপাতাল কতৃপক্ষ ও এটাকে গুজব বলে উড়িয়ে দিয়ে বলছেন এ ধরনের কোন রোগী আমাদের হাসপাতালে আসেনি। এ সব ঘটনা বাস্তব না গুজব তা নিয়েও রয়েছে ব্যাপক আলোচনা। তবে এসব গুজব নিয়ে আতংকিত না হওয়ার জন্য সচেতন মহলের আহবান।

অনুসন্ধানে জানাযায়, কিছু অপ-প্রচারকারীরা প্রচার করছে তিনটা অথবা চারটা জিরো যুক্ত কোন মোবাইল নাম্বারে ফোন আসলে রিসিভ করলেই কানে বিকট আওয়াজের মাধ্যমে মোবাইল ব্যবহারকারীর মৃত্যু হয়ে যায়। এ গুজবকে অনেকেই বিশ্বাস করছেন। এমন গুজবে সাধারন মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। তাছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অনেকে স্ট্যাটাস দিয়ে এর সত্যতা জানতে চাচ্ছেন। সব মিলিয়ে এ গুজব নিয়ে যেন সারা দেশেই তোলপাড় চলছে।

প্রবাসে বসবাসরত সুমন নামের এক প্রবাসী মোবাইল ফোনে আলাপকালে জানান, ভাই দেশে কি চলছে ? আত্মীয় স্বজনদের ফোন দিলে রিসিভ করেনা। তারা বলে জিরো জিরো নাম্বার থেকে কল আসলে নাকি মানুষ মারা যায়। তাই এ ভয়ে কেউ কেউ ফোনও রিসিভ করছেনা। অনেকে আবার কথিত মৃত্যুর ভয়ে মোবাইল বন্ধ করে রেখেছে। গত দু’দিন আগে সদর ইউপির আলীপুর গ্রামের জনৈক মহিলা হাসপাতালে নিয়ে আসেন তার স্বজনরা। তারা জানান, জিরো জিরো নাম্বারে একটি কল রিসিভ করার পর তার সারা শরীর কালো হয়ে যায়। এ ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ ইদ্রিছ আলীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, এ ধরনের কোন আলামত শরীরে পরিলক্ষিত হয়নি। তিনি বলেন, মনের আতংকে এমনটা হতে পারে।

না অপ্রকাশের শর্তে এক গৃহবধূ জানান, মোবাইলে ফোন আসলে মানুষের নাকে কানে রক্ত বের হয়ে মারা যায়। তাই ভয়ে মোবাইল ফোনই বন্ধ করে রেখেছি। অপর এক গ্রহবধু জানান, তার অষ্টম শ্রেণী পড়–য়া মেয়ে প্রবাসের কোন কল আসলে রিসিভ বা কথা বলতে চায় না। সে নাকি শুনেছে জিরো জিরো নম্বারে ফোন রিসিভ করলে মানুষ মারা যায়। এ বিষয়ে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ রথীন্দ্র চন্দ্র দেব বলেন, এটা একটি গুজব ছাড়া কিছু নয়। হাসপাতালে এ ধরনের কোন রোগী আসেনি। তবে এটা একটি মানসিক রোগ। লোকের মুখে মুখে গুজব শুনে মনের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। এসব বিষয়ে আতংকিত না হওয়ার জন্য তিনি আহ্বান জানান। সুশিল সমাজের নেতৃবৃন্দরা মনে করেন, একটি বিশেষ চক্র এ সব গুজন ছড়িয়ে কোন ফায়দা নেয়ার অপচেষ্টা চলছে। এ ব্যাপারে সকল’কে গুজবে কান না দিয়ে সর্তক থাকার আহ্বান জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: