সর্বশেষ আপডেট : ১৭ মিনিট ৩৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ওবামাকে ‘মা’ তুলে গালি দিলেন দুয়ের্ত, পরে ‘দুঃখ প্রকাশ’

obama-550x309আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে ‘পতিতার ছেলে’ বলে গালি দেয়ায় ফিলিপাইনের বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুয়ের্তের সঙ্গে বৈঠক বাতিল করেছেন যুক্তরাষ্ট্র।

মঙ্গলবার দুপুরে লাওসের রাজধানী ভিয়েনতিয়ানে আসিয়ান সম্মেলনে একটি পার্শ্ব বৈঠকে প্রথমবারের মতো মিলিত হওয়ার কথা ছিল ওবামা-দুতের্তের। কিন্তু বৈঠকটি হওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে ওবামাকে মা তুলে গালি দেন দুতের্তে। এ কারণে দুতের্তের সঙ্গে বৈঠক বাতিল করেন ওবামা।

এর আগে হোয়াই হাউজের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেছেন, মঙ্গলবার ওবামা এবং দুতের্ত বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। তবে সোমবার এই ঘটনার পরে সেই বৈঠকের আদৌ কোনও প্রয়োজন আছে কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্বয়ং ওবামা। তবে দুতের্তে একরোখা। বলেছেন, ‘আরও মরবে। অনেকে মরবে। যতক্ষণ না শেষ মাদক পাচারকারীকে বার করা সম্ভব হবে, ততক্ষণ আমরা কাজ চালিয়ে যাব।’

এ ঘটনার কয়েকঘন্টার পর নিজে থেকেই নিজের ব্যবহারের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন ফিলিপিন্সের বিতর্কিত নতুন প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুয়ের্তে। মঙ্গলবার এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে দুয়ের্তে বলেন, তার ‘কঠোর মন্তব্য’ উদ্বেগ ও কষ্টেরই বহিঃপ্রকাশ ছিল। বার্তা সংস্থা এপিকে দেয়া ওই বিবৃতিতে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমার বক্তব্য মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রতি ব্যক্তিগত আক্রমণের মতো মনে হওয়ায়ও আমি দুঃখ প্রকাশ করছি।’

শুধু বারাক ওবামাই প্রথম নন। এর আগে ফিলিপিন্সে মার্কিন রাষ্ট্রদূতকেও ‘পতিতার ছেলে’, সাংবাদিকদের ‘বেজন্মা’ এবং পোপকেও নানা ‘অলঙ্কারে’ ভূষিত করে ব্যাপক সমালোচিত ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট দুতের্তে।

চীনের হ্যাংঝুতে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণ শেষে আসিয়ান সম্মেলনে যোগ দিতে লাওসের উদ্দেশে রওনা দেন ওবামা। সেখান ফিলিপাইনে বিচারবহির্ভূত হত্যাকা-ের বিষয় আলোচ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্তির আহ্বান জানিয়েছিলেন ওবামা।
এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে তড়িঘড়ি করে সংবাদ সম্মেলন ডাকেন দুতের্তে। বলেন, ‘ও নিজেকে (ওবামা) ভাবে টা কী! আমি আমেরিকার হাতের পুতুল নই। আমি একটি দেশের প্রেসিডেন্ট। আমি শুধু এ দেশের মানুষের কাছেই উত্তর দিতে বাধ্য। আর কারও কাছে নয়। সত্যি যদি আসিয়ান সম্মেলনে ফিলিপাইনেক নিয়ে এমন আলোচনা হয়, তাহলে শপথ করে বলছি- পতিতার ছেলে আপনাকে আমি গালি দেব। আপনাকে নিয়ে আমি শুকরের মতো কাঁদা পানিতে গড়াগড়ি খাব।’
দুতের্তের যুক্তি, ফিলিপিন্সের এই পরিস্থিতির জন্য আমেরিকাই দায়ী। মার্কিন ‘ঔপনিবেশিক অত্যাচারের’ ফলেই আজ এই খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে ফিলিপিন্স।

দুয়ের্তের বক্তব্যের পর বারাক ওবামা বলেন, ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট একজন বর্ণিল ব্যক্তিত্বের মানুষ। এ ধরনের বক্তব্য তিনি আগেও দিয়েছেন। আমি আমার লোকদের বলে দিয়েছি, খোঁজ নিতে- ফিলিপিন্স আদৌ কোনো গঠনমূলক আলোচনা চায় কি না। ফিলিপিন্সের মানুষ আমাদের খুবই আপন। মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই খুব শক্ত কাজ, সন্দেহ নেই। কিন্তু তা অবশ্যই আন্তর্জাতিক আইনের সীমারেখা লঙ্ঘন করে নয়।

উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট দুতের্তে ক্ষমতায় আসার পর দেশটিতে মাদক ব্যবসার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন। এমনকি তিনি মাদক কারবারীদের হত্যারও হুকুম দেন। এরপর গত দু’মাসে মাদকবিরোধী অভিযানে প্রায় ২ হাজার ৪০০ ব্যক্তিকে হত্যা করা হয়েছে। ব্যাপক সংখ্যক মানুষকে হত্যার জন্য মানবাধিকার সংগঠনগুলো দুতের্তের কঠোর সমালোচনা করে আসছে। কিন্তু তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, মাদকের বিরুদ্ধে তার যুদ্ধ চলবে।
সূত্র- আলজাজিরা, সিএনএন ও বিবিসি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: