সর্বশেষ আপডেট : ৫ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পর্তুগালে বৃহত্তর নোয়াখালীবাসীর বনভোজন

full_1703877377_1473085780প্রবাস ডেস্ক: উৎসবমুখর আনন্দঘন পরিবেশ ও নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের শহর থেকে দূরে সাগর কন্যার শহর ‘পেনিস’ এবং চীনের ইতিহাস এবং বৌদ্ধ ধর্ম গুরুদের ভাস্কর্যের উপর নির্মিতো ‘বাক্যালাহো বুদ্ধ ইডেন পার্কে’ অনুষ্ঠিত হয়েছে বৃহত্তর নোয়াখালীবাসীদের বনভোজন ও অভিষক-২০১৬’।

পর্তুগাল প্রবাসী নোয়াখালীবাসীদের সামাজিক সংগঠন বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন অব পর্তুগাল এই বনভোজনের আয়োজন করে।

৪ঠা সেপ্টম্বার ছয়টি বাস ও কয়েকটি ব্যক্তিগত গাড়িযোগে বিপুলসংখ্যক অংশগ্রহণকারী লিসবন থেকে এক সঙ্গে বনভোজনের নির্ধারিত স্থানে রওনা হন। নোয়াখালীবাসী ছাড়াও অন্যান্য জেলার প্রবাসীরাও সপরিবারে এতে যোগ দেন। বনভোজন স্থলে পৌঁছার আগে সকাল ১০ টার দিকে লিসবন টু পেনিস শহরের হাইওয়ের বোমভারুল রেস্টুরেন্টে ভুনা খিচুড়ি, কফি, জুস, পানি দিয়ে পরিবেশন করা হয় সকালের নাশতা।

সাগর সৈকতে পৌঁছানোর পর অংশগ্রহণকারীদের স্বাগত জানান সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন কবির জাহাঙ্গীর ও সাধারণ সম্পাদক মহিন উদ্দিন, প্রধান উপদেষ্টা রানা তসলিম উদ্দীন, উপদেষ্টা আবুল বাশর, সিনিয়ার সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, মিজানুর রহমান, শহীদুল ইসলাম, শরীফুল ইসলাম, আবদুল করিম মানিক প্রমুখ নেত্রীবৃন্দ।

সাগরের শ্নান আর নানা ধরনের অনুষ্ঠিত খেলা শেষ করে সকলে যোগ দেয় ‘বাক্যালাহো বুদ্ধ ইডেন পার্কে’। সেখানে প্রবাসীদের সাথে যোগদেয় পর্তুগালের মাণ্যবর রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহম্মেদ। এরফলে বিপুলসংখ্যক প্রবাসীদের উপস্থিতে পার্কটি এক সময় মনে হয়েছিল পর্তুগালের মাঝে প্রবাসী বাংলাদেশীদের ভালোবাসর এক খন্ড বাংলাদেশ।

এরপর পার্কে অনুষ্ঠিত হয় বৃহত্তর নোয়াখালী এসোসিয়েশন অব পর্তুগালের অভিষেক অনুষ্ঠান। ফুল এবং বিশেষ সম্মাননা পুরষ্কারের মাধ্যমে মাণ্যবর রাষ্ট্রদূতকে স্বাগত জানানো হয়। এরপর ৬১ সদস্যর নতুন বৃহত্তর নোয়াখালী এসোসিয়েশন অব পর্তুগালের কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করেন প্রধান উপদেষ্টা।

নতুন কার্যনির্বাহী কমিটিকে ফুল দিয়ে শুভেচছা জানান পর্তুগালের মাণ্যবর রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহম্মেদ। তারপর দুপুরে পরিবেশিত হয় লিসবনের রাধুনী রেস্টুরেন্টের সুস্বাদু চিকেন বিরিয়ানি। এরপর ‘বাক্যালাহো বুদ্ধ ইডেন পার্কে’ নানা ধরনের খেলাধুলা আর অংশগ্রহণকারীরা নিজের মতো করে আনন্দ উপভোগ করেন। গাছের নিচে সবুজ ঘাসের ওপর, কেউ বা নানা রঙের চাদর বিছিয়ে আরাম-আয়েশে গড়াগড়ি করে ক্লান্তি দূর করেন।

বনভোজনের শেষে প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণী ও বনভোজন অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ র‍্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়। বিকেল ৭টায় অংশগ্রহণকারীরা লিসবনে উদ্দেশে রওনা করা হন।

বনভোজনে উল্লেখযোগ্য যারা অংশ নেন তারা হলেন নব কার্যনির্বাহী কমিটির উপদেষ্টা শাহ আলম কাজল, মোশারফ হোসেন কিরন, নাইম জামসেদ, মির্জা কামাল হারুন, তাজুল ইসলাম, কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও ব্যবসায়ী জহিরুল আলম, মামুন হাজারী, সালা উদ্দিন, কাজী ইমদাদ,শওকত ওসমান, ইউসুফ তালুকদার, নাজির আহমেদ, এনামুল হক, একে রাকীব, সফিকুর রহমান, পারভেজ আহমেদ, রাসেল আহমেদ, মো. শাহীন প্রমুখ।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: