সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ২৫ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে ২০ কি.মি. দীর্ঘ সন্ত্রাস ও জঙ্গী বিরোধী মানববন্ধন থেকে ফেরার পথে সংঘর্ষে আহত ৫০

unnamed (1)জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, ছাতক::
ছাতকে সন্ত্রাস ও জঙ্গী বিরোধী মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করা হয়েছে। সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের ছাতক অংশে প্রায় ২০ কিলোমিটার সড়কে মানববন্ধনে উপজেলার বিভিন্ন স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। মুহিবুর রহমান মানিক এমপি’র আহ্বানে এবং উপজেলা পরিষদ, প্রশাসন ও স্থানীয় আ’লীগের উদ্যোগে ১ঘন্টা ব্যাপী বিশাল এ মানববন্ধন কর্মসুচী রোববার সকাল ১১টায় শুরু হয়। উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ থেকে বড়কাপন পর্যন্ত সড়কে এ মানবন্ধন কর্মসৃচী পালন করা হয়। মানববন্ধন কর্মসূচীতে অংশ নিতে সকাল ১০টা থেকেই বিভিন্ন স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা সড়কে লাইনে দাঁড়াতে শুরু করে।

রোদ ও প্রচন্ড গরমের কারনে মানববন্ধনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা অনেকটা ক্লান্ত হয়ে পড়ে অনেক শিক্ষার্থীকে অজ্ঞান হয়ে পড়তে দেখা গেছে। ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের পয়েন্টে পয়েন্টে ছিল দীর্ঘ যানজট। ২০ কিলোমিটার সড়ক জোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচীটি খন্ড-খন্ডভাবে হওয়ায় মূলত প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়কেই এ কর্মসূচী পালন করা হয়েছে।

মানববন্ধন চলাকালে সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম, পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ, উপজেলা চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুল, দোয়ারাবাজার উপজেলা চেয়ারম্যান ইদ্রিছ আলী বীর প্রতীক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান, ছাতক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাহাদত লাহিনসহ আ’লীগ নেতৃবৃন্দ ট্রাক, গাড়ী ও মোটরসাইকেল যোগে মানববন্ধন কর্মসূচী পরিদর্শন করে শিক্ষার্থীদের উৎসাহ দিতে দেখা গেছে।

শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ছাড়াও ইউপি চেয়ারম্যান গয়াছ আহমদ, আব্দুল মছব্বির, আওলাদ হোসেন মাষ্টার, আব্দুল হেকিম, বিল্লাল আহমদ, মুরাদ হোসেন, সায়েস্তা মিয়া, কাজী আনোয়ার হোসেন আনু, জসীম উদ্দিন মাষ্টার, সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম, আলহাজ্ব সুন্দর আলী, কদর মিয়া, আফজাল আবেদীন আবুল, আরজক আলী, ফজর উদ্দিন, আখলুছ মিয়া, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আনোয়ার রহমান তোতা মিয়া, আ.লীগ নেতা ছানাউর রহমান ছানা, চান মিয়া চৌধুরী, হাবিবুর রহমান মোশরফ, আতাউর রহমান আতা, আফতাব উদ্দিন, আব্দুল আওয়াল, মখলিছুর রহমান, আব্দুল মান্নান, দবির উদ্দিন, আবুল হাসনাত, গিয়াস উদ্দিন, আওলাদ আলী মাষ্টার, নুরুল হক, এড. শাহাব উদ্দিন, বাবুল রায়, এম রশিদ আহমদ, সাব্বির আহমদ, মাফিজ আলী, নাজমুল হোসেন, ফয়জুল কবির লাকী, সমরুজ আলী, সামিম আহমদ তালুকদার, সহ নেতৃবৃন্দ মানববন্ধন কর্মসূচীতে অংশ গ্রহন করেন। উপজেলা আ’লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্চাসেবকলীগ, শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগ, শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষা প্রতিষ্টান ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন নিজ-নিজ ব্যানারে কর্মসুচীতে অংশ গ্রহন করে।

উপজেলার ছাতক ডিগ্রী কলেজ, গোবিন্দগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ, জাউয়াবাজার ডিগ্রী কলেজ, জনতা ডিগ্রী কলেজ, বুরাইয়া স্কুল এন্ড কলেজ, হাজী আজমত আলী স্কুল এন্ড কলেজ, ঝিগলী স্কুল এন্ড কলেজ, টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ, সাউথ-ওয়েষ্ট সালেহ আহমদ স্কুল এন্ড কলেজ, চন্দ্রনাথ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বহুমূখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, গোবিন্দগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়, সিমেন্ট কারখানা উচ্চ বিদ্যালয়, হাজী কমর আলী উচ্চ বিদ্যালয়, বাংলাবাজার সামারুন নেছা উচ্চ বিদ্যালয়, পঞ্চগ্রাম হাইস্কুল, মঈনপুর হাইস্কুল, রইছ আলী উচ্চ বিদ্যালয়, শুকুরুন নেছা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়, সিবিপি উচ্চ বিদ্যালয়, পাইগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়, সমতা উচ্চ বিদ্যালয়, নতুন বাজার উচ্চ বিদ্যালয়, আব্দুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয়, ইসলামপুর উচ্চ বিদ্যালয়, হাফিজ আব্দুল গনী তালুকদার উচ্চ বিদ্যালয়, আয়াজুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়, চরমহল্লা উচ্চ বিদ্যালয়, মলি¬কপুর মডেল হাইস্কুল, এলংগী মডেল হাইস্কুল, মোগলগাঁও নিুমাধ্যমিক বিদ্যালয়, শাহজালাল উচ্চ বিদ্যালয়, কামরাঙ্গী হাইস্কুল, কামারগাঁও হাইস্কুল, ঝিগলী উচ্চ বিদ্যালয়, পালপুর উচ্চ বিদ্যালয়, মুনিরগাতি উচ্চ বিদ্যালয়, বড়কাপন নিু মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জামেয়া মুহাম্মদিয়া মুক্তিরগাঁও মাদ্রাসা, গোবিন্দনগর ফজলিয়া মাদ্রাসা, দিঘলী রহমানিয়া মাদ্রাসা, দশঘর মাদ্রাসা, দোলারবাজার মাদ্রাসা, খরিদিচর মাদ্রাসা, পালপুর মাদ্রাসা, গাবুরগাঁও মাদ্রাসা, লাকেশ্বর মাদ্রাসা, শাহ মোজাম্মিল আলী দাখিল মাদ্রাসা, কালারুকা দাখিল মাদ্রাসা, জাউয়া মাদ্রাসা, শেওতরপাড়া মাদ্রাসা, রুক্কা মাদ্রাসা, সিংচাপইড় মাদ্রাসা, আশাকাচর মাদ্রাসা, নুরুল্লাপুর মাদ্রাসা, বুরাইয়া মাদ্রাসা, বন্দেরগাঁও মাদ্রাসাসহ উপজেলার সকল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও সরকারী এবং বেসরকারী মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা মানববন্ধনে অংশগ্রহন করেছে।

মানববন্ধন চলাকালে ধারন বাজারে শিক্ষার্থীদের মধ্যে হাতা-হাতির ঘটনা ঘটেছে, জাউয়া বাজারে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজমান ছিল।

মানববন্ধন শেষে ফেরার পথে মঈনপুর জনতা কলেজ ও মঈনপুর উচ্চ বিদ্যালয় এবং শুকুরুন নেছা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ঘন্টাব্যাপী সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। সংর্ঘষ শেষ পর্যন্ত জালাল পুর থেকে পীরপুর এলাকা জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে। এক ঘন্টা সংর্ঘষে অন্তত ৫০ শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। আহত সকলেই জনতা ডিগ্রী কলেজ, মঈনপুর হাইস্কুল ও শুকুরুন নেছা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

গুরুতর আহত রফিকুল ইসলাম, সাব্বির আহমদ, ইমন মিয়া, শামীম আহমদ, জসিম উদ্দিন ও ইসমাইল আলীকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তোফায়েল আহমদ, তোয়াহা, রাজীব, সোহাগ, ছাদিকুল ইসলাম, কামরুল হাসান, সালাহ উদ্দিন, জামিল, মোহাম্মদ আলী, কলিম উদ্দিন, মুনসুর, সামছুল ইসলাম, সুলতান মিয়া, আবুতাহের, আনোয়ার, আশরাফুলসহ অন্যান্য আহত শিক্ষার্থীদের কৈতক হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। পরে পুলিশ ও আ.লীগ নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করতে সক্ষম হয়।

এ সময় আতংকে ছাত্রীদেরকে দিক-বিদিক ছুটা-ছুটি ও কান্না-কাটি করতে দেখা গেছে। সংঘর্ষ চলাকালে জালালপুর-দোলারবাজার সড়কে প্রায় এক ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: