সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জালালাবাদ ক্যান্ট. পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজে জঙ্গিবিরোধী সভা অনুষ্ঠিত

Pic Cantonment School & College-2স্টাফ রিপোর্টার ::
‘আমরা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হবো, আমরা আমাদের প্রিয় মাতৃভূমিকে শান্তির আবাস করব। ’
এই স্লোগান সামনে রেখে গতকাল শনিবার জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিরোধী আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ লে.কর্নেল মো. ইকবাল উর রহমান। প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক মো. এমাদাদুল হক সিদ্দিকীর পরিচালনায় সভায় আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট ৫২ ব্রিগেডের ডিকিউ মেজর মোস্তাফিজুর রহমান, সাংবাদিক ও কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী, দৈনিক সবুজ সিলেটের বার্তা সম্পাদক ছামির মাহমুদ ও খাদিমপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম বেলাল। শিক্ষকদের পক্ষ থেকে আলোচনায় অংশ নেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ লাহিন উদ্দিন, সহকারী শিক্ষক মো. নাসির উদ্দিন এবং সহকারী শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর আলম।

সভাপতির বক্তব্যে লে. কর্নেল ইকবাল-উর-রহমান বলেন, পারিবারিক বন্ধনের মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড থেকে বিরত রাখা সম্ভব। তিনি কর্মজীবী বাবা-মাদের সন্তানের সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক ও বিনোদনমূলক পারিবারিক পরিবেশের ওপর জোর দেন।

Pic Cantonment School & College-1সভায় আলোচকরা বলেন, আমরা সকলেই জানি ইসলাম হলো শান্তির ধর্ম। ইসলামে সন্ত্রাসবাদের কোনো স্থান নেই। হজরত মুহাম্মদ (সা.) ছিলেন শান্তির অগ্রদূত। তিনি কখনো সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করেননি। জিহাদ শব্দটিকে বর্তমানে অপব্যাখ্যাকারীরা জঙ্গিবাদ বা সন্ত্রাসবাদের সমার্থক শব্দ হিসেবে ব্যবহার করছে। আর তাদের এই অপব্যাখ্যার কারণে বিপথগামী হচ্ছে কিছুসংখ্যক যুবক। জিহাদ শব্দের প্রকৃত অর্থ জানতে হলে কোরআন ও হাদিসের সঠিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে। প্রয়োজনে বরেণ্য আলেম-ওলামাদের জিজ্ঞেস করতে হবে। তখন আর এ নিয়ে বিভ্রান্তির কোনো সুযোগ থাকে না। শয়তানের ওয়াসওয়াসা বা কুমন্ত্রণা থেকে নিজের নফস্ বা প্রবৃত্তিকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারাই হলো সর্বোত্তম জিহাদ। নিজে ভালো কাজ করা, অন্যকে ভালো কাজে উৎসাহিত করা, নিজে মন্দ কাজ থেকে বিরত থাকা, অন্যকে মন্দ কাজ থেকে বিরত রাখা এসবই জিহাদের অন্তর্গত।

Pic Cantonment School & College-3উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বক্তারা বলেন, তোমরা দেশের ভবিষ্যৎ নাগরিক। দেশের রাজনীতিতে, অর্থনীতিতে, সমাজনীতিতে, রাষ্ট্র পরিচালনায় সর্বক্ষেত্রে আগামীতে তোমরাই নেতৃত্ব দেবে। তাই এখন থেকেই কোনটা ভালো কোনটা মন্দ সেই বিবেক-বিবেচনাবোধ তোমাদের থাকতে হবে। এখন তোমাদের সবচেয়ে বড় কর্তব্য হলো নিয়মিত অধ্যয়ন করা। পাঠ্যপুস্তক অধ্যয়নের পাশাপাশি বরেণ্য লেখকদের বই পড়া, খেলাধুলা করা, সৃজনশীল কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করা ইত্যাদি কার্যক্রম তোমাদের জীবনবোধকে আরো উন্নত, মার্জিত ও পরিশীলিত করবে। এ ব্যাপারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোরও ছাত্র ছাত্রীদের এসব কাজে সহযোগিতা করার জন্য উদ্যোগ থাকতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: