সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৪২ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুনামগঞ্জে ভারতীয় রুপি, বাঁশ ও মদসহ আটক ১

unnamed (6)সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : ২৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন, সুনামগঞ্জ এর টেকেরঘাট, মাছিমপুর ও বোগলাবাজার বিওপি কর্তৃক পৃথক ৩টি অভিযানে ভারতীয় রুপি,বাঁশ ও মদ উদ্ধার করা হয়েছে।

৩ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকেল সোয়া ৪টায় জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার মাছিমপুর বিওপির নায়েব সুবেদার মোঃ হাবিবুর রহমান এর নেতৃত্বে একটি টহল দল সীমান্ত মেইন পিলার ১২০৯/৫-এস সামনে থেকে আনুমানিক ৮শত গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে শীলডুয়ার নামক স্থান হতে ১৩৬ বোতল ভারতীয় অফিসার্স চয়েস মদ ও ৩৫ বোতল ভারতীয় বিয়ার আটক করে, যার আনুমানিক মূল্য ২ লক্ষ সাড়ে ১২ হাজার টাকা।

এর আগে ২ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় দোয়ারাবাজার উপজেলার বোগলা বাজার বিওপির নায়েব সুবেদার শ্রী অলোক সরকার এর নেতৃত্বে একটি টহল দল সীমান্ত মেইন পিলার ১২২৮ এর নিকট হতে আনুমানিক ২ শত গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ইদুকোনা নামক স্থান হতে ১০,০০০ টি ভারতীয় ডুলো বাঁশ আটক করে, যার আনুমানিক মূল্য ৪ লক্ষ টাকা। বিজিবি এর উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারীরা ভারতীয় মদ, বিয়ার ও ডুলো বাঁশ ফেলে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে বিজিবি সদস্যগণ পরিত্যক্ত অবস্থায় বর্ণিত মদ, বিয়ার ও ডুলো বাঁশ আটক করে। এ ব্যাপারে মামলা দায়ের পূর্বক পরবর্তী আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহন করা হচ্ছে।

unnamed (5)শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে জেলার তাহিরপুর উপজেলার টেকেরঘাট সীমান্তের বুরঙ্গাছড়া এলাকা থেকে ভারতীয় ৩৬ হাজার রুপী সহ আটক হয় আবুল কালাম (৪৮) নামের এক বিজিবি সোর্স । শনিবার বিকেলে তাহিরপুর থানার মাধ্যমে তাকে প্রেরণ করা হয় জেলহাজতে। তিনি উপজেলার সীমান্ত সংলগ্ন লালঘাট (পূর্বপাড়া) গ্রামের মৃত ভানু হোসেনের ছেলে।

টেকেরঘাট বিওপির কোম্পানি কমান্ডার শফিকুল ইসলাম জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে নায়েক মো. রমজান আলীর নেতৃত্বে বিজিবির একটি টহল দল বুরুঙ্গাছড়া এলাকা থেকে কালামকে আটক করা হয়। এসময় তার দেহ তল্লাশি করে ভারতীয় ৩৬ হাজার রুপী জব্দ করা হয়।

উল্লেখ্য, স্থানীয় বালিয়াঘাট বিওপির বিজিবি সোর্স পরিচয়ে গত কয়েক বছর ধরে চোরাচালানিদের নিকট থেকে চাঁদা আদায়, মাদক, হুন্ডি ব্যবসা, সীমান্তের ওপারে শ্রমিক পাচার সহ নানা অপকর্মে জড়িত রয়েছেন আবুল কালাম। ইতিপূর্বে সুনামগঞ্জ- ৮ বর্ডারগার্ড ব্যাটাালিয়ন থাকা অবস্থায় তৎকালিন কমান্ডিং অফিসারের (অধিনায়ক) নির্দেশে কালামের বিরুদ্ধে ভারতে অবৈধ অনুপ্রবেশ ও চাঁদাবাজির দুটি মামলা দায়ের করে বিজিবি। মাস ছয়েক পর আইনের ফাঁক গলে বেরিয়ে এসে আবুল কালাম ফের হয়ে উঠে অপ্রতিরোধ্য।

সীমান্তবাসী জানিয়েছেন, কালামের সকল অপকর্মের সহযোগি হলেন স্থানীয় জনৈক এক সাংবাদিক পরিচয়ধারী। কে সেই সাংবাদিক পরিচয়ধারী অপকর্মের হোতা তাৎক্ষণিক ব্যাপক অনুসন্ধানকালে জানা যায়, গেল তত্বাবধায়ক সরকার আমলে বিজিবির নাম ভাঙিয়ে সীমান্তে জোয়াড়িদের কাছ থেকে নিয়মিত মোঠা অংকের চাঁদা নেয়ার অভিযোগে ওই সাংবাদিক পরিচয়ধারী ব্যক্তিকে আটক করে বালিয়াঘাট বিজিবি। পরে জেলা-উপজেলায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীদের অনুরোধে মুছলেকা নিয়ে ছেড়ে দেন তৎকালিন কমান্ডিং অফিসার।

এছাড়া ভারতীয় কয়লা চোরাচালানের অভিযোগে ওই সাংবাদিক পরিচয়ধারী ও তার সহযোগিদের বিরুদ্ধে তাহিরপুর থানায় চোরাচালান প্রতিরোধ আইনে একটি মামলা দায়ের করে বিজিবি। পরবর্তীতে পুলিশের দেয়া চার্জশীট থেকে বাদ পড়ে প্রাণে বেঁচে যান তিনি।
সুনামগঞ্জ বিজিবি ব্যাটালিয়ন- ২৮ এর কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল নাসির উদ্দিন আহমদ (পিএসসি) কালামকে ভারতীয় হুন্ডির টাকা সহ গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, কালাম আদৌ বিজিবির কোন সোর্স নয়। তিনি জানান, অপরাধী যেই হোক তাকেই আইনের আওতায় নিয়ে আসতে বিজিবি বদ্ধ পরিকর। সীমান্তে চোরাচালান প্রতিরোধ, অবৈধভাবে সীমান্ত পারাপার বন্ধসহ বিভিন্ন অপতৎপরতারোধে বিজিবি সদস্যরা তৎপর রয়েছে বলেও বিজিবির এই উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: