সর্বশেষ আপডেট : ৩৯ মিনিট ৩১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হজকালীন সময়ে মৃত্যুবরণকারী সৌভাগ্যবান

hajj-550x309আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হজ ও ওমরার নিয়তে যারা ইহরাম বাঁধেন, তারা আল্লাহর মেহমান। ইহরাম বাঁধার পর অনেকে মারা যান। আবার কেউ কেউ হজ পালন করার উদ্দেশ্যে পবিত্র নগরী মক্কা অথবা মদিনায় যাওয়ার পর ইন্তেকাল করেন। তাঁদের ব্যাপারে বিশ্বনবী সুসংবাদ দিয়েছেন এবং দাফন-কাফনের বিষয়ে সুস্পষ্ট বক্তব্য প্রদান করেছেন।

হাদিসে এসেছে, হজরত ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, আমরা বিশ্বনবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সঙ্গে এক সফরে ছিলাম। সে সময় ইহরাম অবস্থায় এক ব্যক্তি হঠাৎ উটের পিঠ হতে পড়ে গিয়ে ঘাড় ভেঙে মারা যায়। ফলে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, তোমরা সিদ্ধ পানিতে কুল গাছের পাতা দিয়ে তাকে গোসল দাও এবং তাঁর ইহরামের কাপড় দু’টি দিয়ে কাফন দাও। তবে তার শরীরে সুগন্ধি লাগাবে না এবং তার মাথা ঢাকবে না। কেননা কিয়ামতের দিন তাকে (ইহরামকারী মৃতব্যক্তিকে) তালবিয়া পাঠরত অবস্থায় ওঠাবেন। (বুখারি, মুসলিম, তিরমিজি ও ইবনে মাজাহ)

হাদিসের বর্ণনা অনুযায়ী, ইহরাম অবস্থায় মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তিকে কিয়ামতের দিন ইহরামের পোশাকে তালবিয়া পাঠরত অবস্থায় ওঠানো হবে। সুতরাং ইহরামপালনকারী মৃত ব্যক্তিদের জন্য কান্না বা রোনাজারি নয়, বরং ইহরামরত অবস্থায় মৃত ব্যক্তি সৌভাগ্যবান।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: