সর্বশেষ আপডেট : ৭ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে দু’গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ৬০

alllogo_dailysylhetpicbank (116)ছাতক প্রতিনিধি ::
ছাতকে মাছ কেনাবেচা নিয়ে দু’গ্রামবাসীর সংঘর্ষে ৬০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার পর্যন্ত ছাতক থানায় কোনো পক্ষই মামলা দায়ের করেনি বলে পুলিশ সত্রে জানা গেছে। ঘটনা আপসে নিষ্পত্তির চেষ্টা চলছে।
গত রোববার বিকেলে মাছ কেনা-বেচা নিয়ে জাউয়া ইউনিয়নের বড়কাপন বাজারে বাদেশ্বরী ও বাগারাই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে ঘটনায় মহিলাসহ অন্তত ৬০ ব্যক্তি আহত হন। গুরুতর আহত ৩৫ জনকে ভর্তি করা হয় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। বাদেশ্বরী গ্রামের আমির আলীর পুত্র মাছ বিক্রেতা আক্তার হোসেন ও বাগারাই গ্রামের মৃত হরমুজ আলীর পুত্র মাছ ক্রেতা সামছুল ইসলামের মধ্যে মাছ কেনা-বেচা নিয়ে দর কষাকষির এক পর্যায়ে বাকবিতন্ডা থেকে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জের ধরে দু’গ্রামবাসী তুমুল সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। প্রায় ঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষে মহিলাসহ উভয় গ্রামের অন্তত ৬০ ব্যক্তি আহত হয়।
গুরুতর আহত সামছুল হক (২৬), ফয়জুল হক (৩২), আতাউল হক (২৪), আশিক মিয়া (৫৫), সায়াদ মিয়া (৫০), আরজ আলী (৪৫), তাইবুর রহমান (২৫), ছায়ারুন নেছা (৩০), জিয়াউল হক(২০), ইমন মিয়া(১৮), জসিম উদ্দিন(৩০), নুরু মিয়া (৩৫), আক্তার হোসেন(২২), আছিম উদ্দিন (২৪), চান মিয়া (৬০), মিলন মিয়া (২০), আলী হোসেন (২৮), ফুলন মিয়া (৩০), ফজর আলী (৫৫), আব্দুল রজা (৫০), কাচা মিয়া (৫৫), আব্দুন নুর (৪০), সুজন মিয়া (৩৫), রহিমা বেগম (৩০), মাছমা বেগম (৫০), আমিরুল হক (৪৫), ফুরু মিয়া (৪৫), গুলু মিয়া (৪০)সহ অন্তত ৩৫জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আবুল হাসনাত (২২), কবির হোসেন (১৮), কচির আলী (২৫), আনছব আলী (৩৫), হরমুজ আলী (২৫), আফরোজ আলী (৩৭), আইন উদ্দিন (২৮), রুহেল মিয়া (১৫), রূপবান বেগম (৩৫), হারুন মিয়া (৬০), শফিক মিয়া (৪৫), আনফর আলী (৪৮), দেলোয়ার হোসেন (২৮), মইন উদ্দিন (৩৫), তেরাবান বিবি (৪৮), আজিজুল হক (২৮), মন্নান মিয়া (৫০), মইনুল হোসেন (২৭), হালেমা বেগম (৫০)সহ অন্যান্য আহতদের কৈতক হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।
খবর পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মুরাদ হোসেনসহ ইউপি সদস্য ও জাউয়া তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। জাউয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই শফিকুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে কোনো পক্ষই অভিযোগ করেনি।
ইউপি চেয়ারম্যান মুরাদ হোসেন জানান, বিষয়টি আপসে নিষ্পত্তির জন্য উভয় গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: