সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ০ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আমার ওপর রেগে আছো? দৃষ্টিহারানো ইনশাকে মুখ্যমন্ত্রী

151647_1আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কাশ্মীরে ভারতীয় বাহিনীর ছররা গুলির আঘাতে দৃষ্টি হারানো ১৫ বছরের ইনশা মালিক দিল্লির সফদরজঙ্গ হাসপাতালে চিকিৎাধীন। সেখানে তাকে দেখতে গিয়েছিলেন জম্মু-কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি।

ইনশাকে মেহবুবা প্রশ্ন করেন, ‘তুমি কি আমার ওপর রেগে আছো?’ দৃশ্যতই প্রবল অস্বস্তি আর একরাশ বিড়ম্বনা যেন ঠিকরে বেরোল শব্দগুলোয়।

মেহবুবার দাবি, তার প্রশ্নটা শুনেই নাকি কেঁদে ফেলেছিলেন ইনশার মা। তিনি তখন আশ্বাস দেন, ইনশা যাতে সেরা চিকিৎসা পায়, জম্মু-কাশ্মীর সরকার তা দেখবে। বিদেশে চিকিৎসার দরকার হলেও সমস্যা হবে না।

হাসপাতালের চিকিৎসকদের তিনি অনুরোধ জানান, ইনশার দৃষ্টি ফিরিয়ে দিতে যেন যথাসাধ্য করা হয়।

এমনকী মুখ্যমন্ত্রী এটাও বলেন, ‘যদি চোখ (কর্নিয়া) প্রতিস্থাপনের দরকার হয়, তাতেও পূর্ণ সহযোগিতা করবে রাজ্য সরকার।’

এই আশ্বাসের পাশাপাশিই মেহবুবার গলায় স্পষ্ট অসহায়তার সুর।

তিনি নিজেই বলেছেন, ‘ভাবছিলাম, কোথায় ভুলটা হল। একটা সংঘর্ষ হল। তার পর এমন একটা পরিস্থিতি তৈরি হয়ে গেল!’

কার্ফুর ঘেরাটোপে ৫০ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনো পুরোপুরি শান্ত নয় কাশ্মীর উপত্যকা।

বিরোধীদের মতে, শোপিয়ানের ইনশার মতো আরো যে সাধারণ নাগরিকেরা আহত হয়েছেন নিরাপত্তা বাহিনীর ছররা গুলিতে, যারা মারা গিয়েছেন- সকলের পরিবারেরই ক্ষোভের আঁচ এখন টের পাচ্ছেন মেহবুবা।

তাৎপর্যপূর্ণভাবে, কয়েক বছর আগে ওমর আবদুল্লার আমলে যখন বিক্ষোভ আর পাথরবৃষ্টিতে উত্তপ্ত ছিল উপত্যকা, তখন পরিস্থিতি সামলাতে মুখ্যমন্ত্রীর ব্যর্থতার অভিযোগ বারবার তুলতেন তৎকালীন বিরোধী নেত্রী মেহবুবা। আজ যে তিনি নিজেই একই রকম বিড়ম্বনায় পড়েছেন, ইনশাকে করা তার প্রশ্নতেই সেটা প্রকট।

সূত্র: এনডিটিভি

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: