সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৩০ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সামরিক বাহিনীকে সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিতে বললেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা

Khamenei-696x392আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, দেশের সামরিক বাহিনীকে অবশ্যই বিদেশি শত্রুর আগ্রাসন মোকাবেলা করতে হবে। এজন্য তিনি ইরানের সামরিক বাহিনীকে তাদের প্রস্তুতি জোরদার করার কথা বলেন।

ইরানের খাতামুল আম্বিয়া বিমানঘাঁটির কমান্ডার ও কর্মকর্তাদের সঙ্গে রোববার এক সাক্ষাতে সর্বোচ্চ নেতা এসব কথা বলেছেন। তিনি বলেন, শত্রুর যেকোনো আগ্রাসন মোকাবেলার ক্ষেত্রে খাতামুল আম্বিয়া বিমানঘাঁটি অগ্রভাগে রয়েছে।

আয়াতুল্লাহ খামেনেয়ী বলেন, ইরান একটি শয়তানি ও প্রতারক শক্তির সঙ্গে লড়াই করছে, যার মূলে রয়েছে ধর্মীয় বিশ্বাস, স্বাধীনতা ও অদম্য ইরানি জনগণ। তারা ইরানের প্রতিরক্ষা শক্তিকে দুর্বল করতে চায়।

সর্বোচ্চ এই নেতা বলেন, এমন শত্রুতার মুখে ইরানের সামরিক বাহিনীর প্রস্তুতিকে অবশ্যই জোরদার করতে হবে যাতে শত্রুরা কোনো রকমের আগ্রাসন চালোনোর চিন্তাও না করে।

তিনি বলেন, দুর্বলতা ও বাধা দূর করার ক্ষেত্রে প্রতিশ্রুতি, দৃঢ়সংকল্প ও জনশক্তির যোগ্যতা গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে কাজ করে। তিনি আরো বলেন, খাতামুল আম্বিয়া বিমানঘাঁটিকে অবশ্যই তার গুরুত্ব ও অবস্থানকে অনুধাবন করতে হবে। পাশাপাশি এ ঘাঁটিকে শত্রুর যেকোনো হামলার সংকল্প নস্যাতের জন্য অঙ্গীকার ও চূড়ান্ত সক্ষমতা দেখাতে হবে।

সর্বোচ্চ নেতা বলেন, আমাদের বিপরীতে রয়েছে বলদর্পী শক্তি এবং বিশ্ব ইহুদিবাদ যা একটি শয়তানি ও প্রতারক শক্তি এবং নিপীড়নমূলক ধারণাকে লালন করে।

ধর্মীয় এ নেতা আরও বলেন, কখনো এই বলদর্পী শক্তি ‘আমেরিকা’ নামে সামনে আসে, কখনো তারা ‘সাদ্দাম’নামে সামনে আসে। যাইহোক, শত্রুর অবস্থান ও পরিকল্পনা শনাক্ত করে দেশের প্রচুর সম্ভাবনা ও সক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে আমাদের একটি সঠিক অবস্থান নিতে হবে এবং তা বাস্তবায়ন করতে হবে।

তিনি বলেন, ইরানকে রুশ এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হস্তান্তর ও ফোরদো পরমাণু স্থাপনা নিয়ে বিদেশি প্রচারণা -শত্রুদের শয়তানি তৎপরতার গুরুত্বপূর্ণ দুটি উদাহরণ। সর্বোচ্চ নেতা বলেন, এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা হচ্ছে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা; আক্রমণমূলক নয়, তবু এই ব্যবস্থা যাতে ইরানের হাতে না যায় সেজন্য আমেরিকা সব রকমের চেষ্টা চালিয়েছে।

আয়াতুল্লাহ খামেনেয়ী বলেন, শত্রুরা এমনকি ইরানের আত্মরক্ষার অধিকারটুকুও স্বীকার করতে চায় না। প্রকৃতপক্ষে তারা চায় যে, তুমি প্রতিরক্ষাহীন থাকো যাতে তারা যখন খুশি হামলা চালাতে পারে। এ অবস্থায় তিনি খাতামুল আম্বিয়া বিমানঘাঁটিকে সতর্ক থাকতে ও সময়মতো কাজ করার পরামর্শ দেন। এজন্য তিনি উন্নত সামরিক সরঞ্জাম ব্যবহারের কথা বলেন যাতে শত্রুরা অবশ্যই বুঝতে পারে যে, হামলা চালাতে গেলে বিপর্যয় এবং শক্তিশালী প্রতিরোধের মুখে পড়তে হবে।

এর আগে খাতামুল আম্বিয়া বিমানঘাঁটির কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ফারজাদ ইসমাইলি এ ঘাঁটির গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, এটি হচ্ছে দেশকে রক্ষার সবচেয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যবস্থা।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: