সর্বশেষ আপডেট : ২৪ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তাহিরপুরে ৮শিক্ষার্থীকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত না নিয়ে সংশোধনের সুযোগ দেওয়ার দাবি

2. daily sylhet thahirpur newsUPPRজাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, তাহিরপুর::
সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে দু’দল শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এরেই প্রেক্ষিতে সংঘর্ষে জরিত ৮জন শিক্ষার্থীকে চিহ্নিত করে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছে স্কুল কতৃপক্ষ। এদিকে শিক্ষার্থীদের ভুলের জন্য বহিস্কারের মত কঠিন সিদ্ধান্ত না নেবার দাবি জানিয়েছেন সচেতন এলাকাবাসী। তারা মনে করেন এতে করে শিক্ষার্থীদের মনের মাঝে চরম ক্ষোবের সঞ্চার হবে। তারা লেখা পাড়ার পথ পরিহার করে যে কোন অপরাধ মুলক কাজের সাথে জরিয়ে পরতে পারে। তাদের সুন্দর ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে স্কুল ও পারিবারিক শাসনের মাধ্যমে সংশোধনের সুযোগ দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে দাবি জানানো হয়।

জানা যায়,গত ২৭শে আগষ্ট শনিবার বেলা ১১টার সময় বিদ্যালয়ের নবম ও দশম শ্রেনীর দু’দল শিক্ষার্থীদের মধ্যে ফুটবল খেলা কে কেন্দ্র করে পূর্ব বিরোধের জের ধরেই পাঠদান চলা কালে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে উভয়পক্ষে ১৫শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। আহত ১৫জন শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে প্রধান শিক্ষক বেলা ১২টার দিকে বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা করেন। এর পর দিন ২৮শে আগষ্ট রবিবার বিকালে এক জরুরী সভার আয়োজন করা হয়। সভায় উপজেলায় প্রতিষ্টিত স্বনামধন্য বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে কিছু দিন পূর্বে ফুটবল মাঠে খেলার মধ্যে কথা কাটাকাটির পূর্ব বিরোধের জের ধরে বিদ্যালয় চত্তরে নবম ও দশম শ্রেনীর ছাত্ররা দু-দলে বিভক্ত হয়ে সংর্ঘষে লিপ্ত হয়ে যে অনাকাংখিত ঘটনা ঘঠেছে তা খুবেই দুঃখ জনক। ফলে বিদ্যালয়ের সুষ্ট, সুন্দর পরিবশে বিনষ্ট,আইনশৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে বলে মনে করেন সবাই। দীর্ঘদিন ধরেই ৮ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী রকি আহমেদ,নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আছপিয়া,আরাফাত হোসেন শিপন,রিফাতুল ইসলাম হ্নদয়,সাজ্জাদ হোসেন ও দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী ইয়াছিন মিয়া,হানিফ মিয়া,আল মামুন বিদ্যালয়ে এসে নানা রখমের অপকর্মের সাথে জরিত ছিল। পরে উপস্থিত সকলের সর্ব সম্মতি ক্রমে ঐ ৮জন শিক্ষার্থী কে বিদ্যালয়ের সম্মান রক্ষার্থে ও ভবিষত্বতে এমন ঘটনা না ঘটার জন্য এই বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন,বাদাঘাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আপ্তাব উদ্দিন,তাহিরপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ,প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম ধানু,সহকারী শিক্ষক মোক্তার হোসেন,আফজালুল হক শিপলু সহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক,অভিবাবক,বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মী ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

উপজেলার সচেতন এলাকাবাসী জানান,স্কুল জীবনে ভুল করতেই পারে,এখন তাদের শিখার সময়। তাদের মনে এখনও ভাল মন্দ বুজার মত জ্ঞানের অভাব রয়েছে। তাদেরকে স্কুল,পারিবারিক ও সবার ঐক্যবদ্ধ চেষ্টার মাধ্যমে ছোট ছোট ভুল গুলো সংশোধনের সুযোগ রয়েছে। তার জন্য তাদের শাস্তি দেওয়া হউক তবে বহিস্কার নয়। বাদাঘাট পাবলিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,বিদ্যালয়ের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাই আমাদের এই সিদ্ধান্ত জানাব,উনার সিদ্ধান্তের পর তা কর্যকর হবে। তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা এসিল্যান্ড রফিকুল ইসলাম জানান,আমার কাছে এখন পর্যন্ত ৮শিক্ষার্থী বহিস্কারের কোন কাজ আসে নি আসলে দেখব।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: