সর্বশেষ আপডেট : ৪৩ মিনিট ১৫ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হুর-পরি পাওয়া এত সহজ নাকি প্রশ্ন শিক্ষামন্ত্রীর

14102229_1178135742209272_1534542410190682051_nস্টাফ রিপোর্টার
বেহেশতে যাওয়া ও হুর-পরি পাওয়া এত সহজ নাকি? এমন প্রশ্ন রাখলেন শিক্ষামন্ত্রী  নুরুল ইসলাম নাহিদ।তিনি বলেছেন, যাদের লাশ বাবা-মা নিতে চান না, তারা হুর-পরি পাবে কীভাবে?  গতকাল রোববার সকালে সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ে ৫ তলা ভিতবিশিষ্ট চতুর্থতলা নতুন একাডেমিক ভবন উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত মতবিনিময়সভায় এবং সিলেটে সরকারি কলেজ পরিদর্শনকালে পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সন্তানের জন্য মা-বাবার ভালোবাসা থেকে আর কিছু বড় হতে পারে না। এ সব বিভ্রান্তির বিরুদ্ধে আমাদের সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। তিনি ছাত্রছাত্রীদেরকে উদ্দেশে বলেন, কেবল জ্ঞান অর্জন করলে হবে না; ভালো মানুষ হওয়ার চেষ্টা করতে হবে। কখনো লোভে পড়বে না। মানুষ মেরে কোনোদিন বেহেশতে যাওয়া যায় না। আল্লাহ মানুষ সৃষ্টি করেছেন। মানুষ হত্যা করলে জাহান্নামে যেতে হবে, বেহেশতে নয়।

নাহিদ বলেন, সকলে মিলে জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। শিক্ষার্থীদের মন-মানসিকতার পরিবর্তন হচ্ছে কি না সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে শিক্ষক-অভিভাবকদের।’
শিক্ষামন্ত্রী অরো বলেন, বর্তমান সময়ের নতুন বিপদ হলো জঙ্গিবাদ। ইসলাম হলো শান্তি ও মানবতার ধর্ম। মানুষকে অন্ধকার থেকে আলোর পথে নিয়ে আসে ইসলাম। বিদেশি চক্রান্তকারীদের কবলে পড়ে আমাদের কিছু শিক্ষক-ছাত্রদের বিভ্রান্ত করে বিপথগামী করছে তারা। দেশে জঙ্গি হামলা করে বিদেশি-দেশের নিরপরাদ মানুষ হত্যা করে বেহেশতে যাওয়া যাবে না।

তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মই আগামী দিনের দেশের কর্ণধার। বিশ্বের সাথে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে আমাদের শিক্ষার্থীদের আধুনিক জ্ঞান, বিজ্ঞান, তথ্য-প্রযুক্তিতে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে। শুধু জ্ঞান দিলে চলবে না; তাদের সৎ, আদর্শবান, নিষ্ঠাবান, চরিত্রবান, দেশপ্রেমী উজ্জীবিত একজন পরিপূর্ণ মানুষ তৈরী করতে হবে। নিজ দেশের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, সঠিক ইতিহাস সর্ম্পকে নতুন প্রজন্মকে জানাতে হবে। কারো সন্তান জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়লে ‘সর্বনাশ হয়ে যাবে’ মন্তব্য করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তখন হায়-হুতাশ করা ছাড়া উপায় থাকবে না। এজন্য বাবা-মাকে এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ে আয়োজিত মতবিনিময়সভায় সভাপতিত্ব করেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক গোলজার আহমদ খান ও সিলেট সরকারী কলেজ পরিদর্শন ও মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আতাউর রহমান।
পৃথক অনুষ্ঠানে পরিচালনা করেন সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষক আবু সুফিয়ান ও শিক্ষিকা শিলা সাহা এবং সরকারি কলেজের অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মিঠু দেব।

পৃথক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, সিটি কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা ও মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির সহকারী প্রক্টর অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আব্বাছ উদ্দিন, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক সিলেটের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর কবির আহমদ, মহানগর পুলিশের উত্তরের ডিসি বাসু দেব বণিক, শিক্ষা প্রকৌশলী অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী নজরুল হাকিম। অভিভাবকের পক্ষে বক্তব্য রাখেন আব্দুল মুহিত ও শিক্ষকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন আজিজুর রহমান। মানপত্র পাঠ করেন সুমা পাল।

উল্লেখ্য, দু কোটি ৪১ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হতে যাচ্ছে সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ে ৫ তলা ভিতবিশিষ্ট চতুর্থতলা নতুন একাডেমিক ভবন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: