সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভারতে কুরবানি নিষেধের খবর নিয়ে বিভ্রান্তি!

india-kurbani-489x550আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ২৫ আগস্ট আনন্দবাজার পত্রিকায় দিগন্ত বন্দ্যোপাধ্যায়ের কুরবানি নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এই প্রকাশিত প্রতিবেদনের আলোকে আমাদের সময় ডটকম একটি লেখা প্রকাশ করে। সেখানে কুরবানি দেয়া নিষেধের কথা বলা হয়। এর দুই দিন পর ২৮ আগস্ট রোববার পশ্চিমবঙ্গে পশু কুরবানির ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বাংলাদেশের একটি জাতীয় পত্রিকা থেকে যোগাযোগ করলে এ ব্যাপারে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের প্রাণিসম্পদমন্ত্রী স্বপন কুমার দেবনাথ বলেন, শুধু পশ্চিমবঙ্গে নয় বরং ভারতের কোনো স্থানেই কোরবানির ওপর নিষেধজ্ঞা দেয়া হয়নি।

ওই খবরের ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ একথা জানান। তিনি আরও বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার দায়িত্ব সবার। এমন কোনো খবর প্রকাশ করা ঠিক নয় যেখানে কোনো ধরনের সম্প্রীতি ক্ষুন্ন হয়। এদিকে আনন্দবাজার পত্রিকার পক্ষ থেকে এ ধরনের কোনো খবর প্রকাশ করা হয়নি বলে দাবি করা হয়েছে। যেটি সত্য নয়।
আনন্দবাজারে প্রকাশিত খবর:

গবাদি পশুর হত্যা এবং পরিবহণের উপরে বিধিনিষেধ আরোপ করে রাজ্য সরকারকে চিঠি পাঠাল কেন্দ্র। বকর ইদ বা কুরবানির ঈদে অবাধে গরু, বাছুর, উট এবং অন্যান্য পশুর নিধন যেন না হয়। নির্দেশ ভারতীয় প্রাণী কল্যাণ বোর্ডের। অবৈধ উপায়ে গবাদি পশুর পরিবহণ যেন না হয়, তা নিশ্চিত করার জন্যও নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে রাজ্যে রাজ্যে।
কুরবানি ঈদ মুসলিমদের সবচেয়ে বড় দুই উৎসবের অন্যতম। গবাদি পশু, উট, দুম্বা ইত্যাদি বিভিন্ন পশুর কুরবানি দেওয়া হয় এই ইদে। গো-রক্ষা এজেন্ডা নিয়ে বিজেপি তথা সঙ্ঘ পরিবার যে ভাবে গোটা দেশে হইচই শুরু করেছে, তাতে কুরবানির ইদের আগে গো-হত্যার উপর কঠোর বিধিনিষেধ চাপানো প্রত্যাশিতই ছিল।

নবান্ন সূত্রের খবর গত ৪ জুলাই-ই রাজ্য সরকারের মুখ্য সচিব, রাজ্য পুলিশের ডিজি এবং রাজ্য প্রাণীসম্পদ বিভাগের কর্তাদের চিঠি পাঠিয়েছেন ভারতীয় প্রাণী কল্যাণ বোর্ডের সচিব এম রবিকুমার। বকর ইদের কথা উল্লেখ করেই চিঠিটি লেখা হয়েছে। বোর্ডের সচিব লিখেছেন:

শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, সবক’টি রাজ্য সরকারকেই ভারতীয় প্রাণী কল্যাণ বোর্ড এই চিঠি পাঠিয়েছে। রাজ্য সরকারগুলিকে কেন্দ্রীয় বোর্ডের স্পষ্ট নির্দেশ, কোথাওই কুরবানির জন্য উট নিধন করতে দেওয়া দেওয়া যাবে না। যে সব রাজ্যে গো-হত্যা রোধ আইন বলবৎ রয়েছে, সেই সব রাজ্যে গরুর কুরবানিও চলবে না বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কুরবানির ইদের আগে যাঁরা অবৈধ ভাবে পশুর পরিবহণ করছেন এবং ইদের দিন যাঁরা আইন ভাঙবেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: