সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৩৭ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘সূর্য দীঘল’ থেকে ‘দেওয়ান বাড়ি’

39-15নিউজ ডেস্ক: ২০০০ সালে দিনাজপুরের ফুলবাড়িতে বোমা হামলার মধ্যদিয়ে আলোচনায় আসে জঙ্গি সংগঠন জেএমবি। পরবর্তী সময়ে ৬৩ জেলায় সিরিজ বোমা হামলার মধ্য দিয়ে বিশ্বের কাছে নতুন জঙ্গি সংগঠন হিসেবে বার্তা পৌঁছানোর চেষ্টা করে সংগঠনটি। তাদেরই অনুসারী নিউ জেএমবি এখন আলোচনার বিষয়বস্তু। সাম্প্রতিক সময়ে রাজধানীর হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁ ও শোলাকিয়ায় ঈদগাহের পাশে হামলা চালিয়ে আলোচনায় উঠে এসেছে নিউ জেএমবি। রাজশাহীর বাগমারা এলাকা থেকে শুরু হয় জেএমবির পথচলা। ২০০০ সালে দিনাজপুরের ফুলবাড়িতে বোমা হামলার মধ্যদিয়ে জঙ্গি সংগঠনটি আলোচনায় আসে। জেএমবি প্রধান শায়খ আব্দুর রহমান ও সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাই বাগমারায় আস্তানা গেড়ে সারা দেশে এ জঙ্গি কার্যক্রম পরিচালনা শুরু করেন। তাদের নির্দেশে দেশের ৬৩ জেলায় একযোগে বোমা হামলা, গাছে ঝুলিয়ে মানুষ পিটিয়ে হত্যা, বিচারকদের ওপর আত্মঘাতী হামলাসহ নৃশংস হত্যাকাণ্ডের জন্ম দেয় জেএমবি।

২০০৫ সালের ১৭ আগস্টের পর দেশজুড়ে শুরু হওয়া জঙ্গি হামলায় বিচারক, আইনজীবী, পুলিশ, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাসহ নিহত হন ৩৩ জন। আহত হন চার শতাধিক নারী-পুরুষ। অনেকে চিরতরে পঙ্গুত্ব বরণ করে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এই অবস্থা থেকে উত্তরণে রাজশাহীসহ বাংলাদেশের সর্বত্র জঙ্গি বিরোধী অভিযান শুরু করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এ ধারাবাহিকতায় শেষ পর্যন্ত জেএমবির দুই শীর্ষ নেতাকে অবশেষে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ পুলিশ ও র‌্যাবের কমান্ডোরা। ২০০৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে গোয়েন্দারা এই দুই কুখ্যাত জঙ্গিকে ট্র্যাক করতে থাকেন। শেষ পর্যন্ত সিলেট নগরীর ‘সূর্য দীঘল’ বাড়িতে শায়খ আবদুর রহমান ও তার সঙ্গীরা লুকিয়ে আছেন বলে খবর পায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। জঙ্গি নেতা শায়খ আবদুর রহমানকে জীবিত গ্রেফতার করে অভিযান সফল করতে প্রায় ৩১ ঘণ্টা সময় লেগে যায়। রুদ্ধশ্বাস অপেক্ষার পর ওই বছরের ২ মার্চ সকাল সোয়া ৭টায় দেশের মোস্ট ওয়ানটেড শীর্ষ জঙ্গি নেতা শায়খ রহমান আত্মসমর্পণে বাধ্য হন।
এর ঠিক ৪ দিন পর, অর্থাৎ ৬ মার্চ সোমবার জেএমবির প্রধান শায়খ আব্দুর রহমানের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাইকে ৭ টা ৪৫ মিনিটের সময় ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার চেচুয়ার রামপুর থেকে র‌্যাব ৯ এর সদস্যরা গ্রেফতার করে।
২০০৫ সালে গ্রেফতারের দুই বছর পর বিচার শেষে ২০০৭ সালের ২৯ মার্চ শায়খ আব্দুর রহমান,সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলাভাইসহ জেএমবির শীর্ষ ৬ নেতার ফাঁসি কার্যকর করা হয়।

তাদের অনুসারী বর্তমান নিউ জেএমবির সামরিক শাখার প্রধান তামিম চৌধুরীও শনিবার পুলিশি অভিযানে নিহত হন। নারায়ণগঞ্জ শহরের পাইকপাড়ার বড় কবরস্থানের পাশের ৩ তলা ভবন ‘দেওয়ান বাড়ি’তে অভিযানে গুলশান ও শোলাকিয়া হামলার ‘মূলহোতা’ তামিম আহমেদ চৌধুরীসহ তিনজন জঙ্গি নিহত হন।

শনিবার সকাল ৯টা ৩৫ মিনিট থেকে ১০টা ৩৫ মিনিট পর্যন্ত এক ঘণ্টা ধরে অপারেশন ‘হিট স্ট্রং টুয়েন্টি সেভেন’ নামে এ অভিযান পরিচালনা করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। অভিযানের পর পুলিশ মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক জানান, অপারেশন হিট স্ট্রং টুয়েন্টি সেভেনে কানাডার নাগরিক ও নিউ জেএমবির সামরিক শাখার প্রধান তামিম চৌধুরী নিহত হয়েছেন।-প্রতিবেদক

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: