সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ১১ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ ফাল্গুন ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখায় কনের বাড়ি থেকে বরের পলায়ন

28533বড়লেখা প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজারের বড়লেখায় আবারও প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেয়েছে রোকশানা আক্তার (১৬) নামের এক কিশোরী। সে সদর ইউনিয়নের আদিত্যের মহাল (বিছরাবাজার) এলাকার আবুল কালামের মেয়ে। বাল্যবিবাহ আয়োজনের অপরাধে কিশোরীর বাবা আবুল কালামকে (৬০) ৭ দিনের কারাদণ্ড, মা মিনারা আক্তার ও চাচা আব্দুস ছালামকে ১ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালত।

সূত্র জানায়, শুক্রবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের আদিত্যের মহাল (বিছরাবাজার) এলাকার আবুল কালাম তার কিশোরী মেয়ে রোকশানার বিয়ের আয়োজন করেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম আবদুল্লাহ আল মামুনসহ প্রশাসনের লোকজন বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে বরপক্ষ কনের বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। পরে কনের বাড়িতে ইউএনও এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসএম আবদুল্লাহ আল মামুন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে বাল্যবিবাহ আইন-১৯২৯ এর ৬ ধারায় কনের বাবা আবুল কালামকে (৬০) ৭ দিনের কারাদণ্ড, মা মিনারা আক্তার ও চাচা আব্দুস ছালামকে ১ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড প্রদান করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এসএম আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, যথাসময়ে খবর পাওয়ায় প্রশাসন এ বাল্যবিয়েটি বন্ধ করতে পেরেছে। প্রশাসনের হস্তক্ষেপে গত ২৪ আগস্ট আরেকটি বাল্যবিয়ে ভেঙে দেওয়া হয়েছে। তারপরও অভিভাবকরা সতর্ক হচ্ছেন না।

প্রসঙ্গত, গত ১০ আগস্ট বড়লেখা উপজেলাকে বাল্যবিবাহ মুক্ত উপজেলা ঘোষণা করেন জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: