সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ৪২ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘মাদকবিরোধী যুদ্ধে’ ফিলিপাইনে তিন মাসে নিহত ১৯১৬

philipine newspic_125173_1আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফিলিপাইনে চলছে ‘যুদ্ধ’। এটি ‘মাদকবিরোধী যুদ্ধ’। নিজ দেশের প্রতিষ্ঠিত মাদকচোরাকারবারিদের বিরুদ্ধে এ যুদ্ধে গত কয়েক মাসে এক হাজার নয়’শ লোককে প্রকাশ্যে হত্যা করা হয়। এ যুদ্ধের নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্বয়ং দেশটির প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে। গত নির্বাচনের আগেই দুহার্ত বলেছিলেন, তিনি প্রেসিডেন্ট হলে দেশের যুব সমাজকে রক্ষায় মাদক ব্যবসায়ীদের ধরে ধরে হত্যা করা হবে। গত ৯ মে নির্বাচনে তাঁর জয়ের পর থেকে এ পর্যন্ত ফিলিপাইনে এক হাজার ৯০০ জনের বেশি মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। তবে কারা এদের প্রকাশ্যে হত্যা করে রক্তাক্ত লাশ রাস্তায় ফেলে রাখছে সে ব্যাপারে সরকারের দায়িত্বশীল কোন ব্যক্তি স্বীকার করছেন না।তবে হত্যার পক্ষে সাফাই গাইছেন স্বয়ং প্রেসিডেন্ট। তবে সবার ধারণা পুলিশ এবং সরকারের লোকজনই ধরে ধরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটাচ্ছেন। খবর বিবিসির।

দেশটিতে সাম্প্রতি হত্যাকাণ্ড ব্যাপক বৃদ্ধি পাওয়ায় সিনেটের ডাকা এক শুনানিতে মঙ্গলবার ফিলিপাইন পুলিশ প্রধান রোনাল্ড ডেলা রোসা বলেন, গত ২৫ দিনে ফিলিপাইনে মাদক বিরোধী অভিযানে এক হাজার ৯০০’র বেশি মানুষ মারা গেছে। পুলিশের অভিযানে ৭৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু অন্যান্য মৃত্যুর ব্যাপারে এখনো তদন্ত চলছে।

প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো মূলত ক্ষমতায় এসেছেন মাদক নির্মূলে জিহাদের ঘোষণা দিয়েই। তিনি এর আগে নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন, মাদক ব্যবসায়ীদের দেখা মাত্র গুলি করে হত্যা করার। আত্মরক্ষার্থে সন্দেহভাজন মাদক ব্যবসায়ীদের হত্যা করা পুলিশের জন্য বৈধ বলেও তিনি ঘোষণা দিয়েছিলেন।

মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা নামে এভাবে মানুষ হত্যার সমালোচনা করায় তিনি জাতিসংঘ ছাড়ারও হুমকিও দিয়েছেন গত রবিবার।বলেছেন, প্রয়োজনে চীনের নেতৃত্বে নতুন জাতিসংঘ গড়ে তোলা হবে।

ফিলিপাইনের ঘনিষ্ঠ মিত্র যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, মাদক সংক্রান্ত ঘটনায় হত্যার সংখ্যা ব্যাপক বৃদ্ধি পাওয়ায় তারা ‘গভীরভাবে উদ্বিগ্ন’।

সিনেটের যৌথ তদন্ত কমিটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন সিনেটর লেইলা ডি লিমা। তিনি ‘নজিরবিহীন’ এসব হত্যাকাণ্ড বৃদ্ধির বিষয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছেন। এছাড়া, শুনানিতে নিহতদের বেশ কয়েকজন স্বজনের বক্তব্য শোনা হয়।

পুলিশ প্রধান ডেলা রোসা জানান, মাদকবিরোধী এই অভিযানে এ পর্যন্ত এক হাজার ৯১৬ জন নিহত হয়েছেন। পুলিশের অভিযানে নিহত হয়েছেন ৭৫৬ জন।

গতকাল সোমবার তিনি ফিলিপাইনের গণমাধ্যম দ্য ইনকোয়ারকে ১৮০০ জনের মৃত্যুর খবর দিয়েছিলেন। মাত্র একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা একশ জনের বেশি দাঁড়িয়েছে।

ডেলা রোসা বলেন, ‘উল্লেখিত মৃত্যুর সব ঘটনা মাদক সংক্রান্ত নয়। এরমধ্যে ৪০ শতাংশের মৃত্যু হয়েছে ডাকাতি এবং ব্যক্তিগত বিরোধের কারণে।

তিনি আরও বলেন, ‘মাদক ব্যবহারকারী এবং ব্যবসায়ীদের হত্যা করার জন্য ঘোষিত কোনো নীতি নেই।’ পুলিশ বাহিনী ‘কসাই’ নয় বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

ফিলিপাইন পুলিশের ৩০০ জন কর্মকর্তা মাদক ব্যবসায়ের সঙ্গে জড়িত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং প্রয়োজনে চাকরি থেকে অপসারণ হবে বলে তিনি জানান।

ডেলা রোসা বলেন, মাদক বিরোধী অভিযান শুরুর পর থেকে প্রায় সাত লাখ মাদক ব্যবহারকারী এবং ব্যবসায়ী এই পথে সরে এসেছে। সামগ্রিক অপরাধ হ্রাস পেয়েছে। তবে খুন বা হত্যার ঘটনা বেড়েছে।

সোমবার দ্য ইনকোয়ারিকে তিনি বলেন, আমি স্বীকার করছি অনেক মানুষ মারা যাচ্ছে। কিন্তু আমাদের অভিযান এখনো চলছে।

সিনেটর ফ্রাঙ্ক ড্রিলন বলেছেন, মৃত্যুর সংখ্যা ‘উদ্বেগজনক।’ এতে ‘শীতল’ প্রভাব পড়বে।

দুতার্তে এর আগে দাভাও শহরের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তখন তিনি তার স্পষ্টভাষী আচরণ এবং অপরাধীদের বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের সমর্থন জানিয়ে প্রশংসা কুঁড়িয়েছিলেন। তিনি মেয়র থাকাকালীন দাভাও শহরের অপরাধের মাত্রা ব্যাপক হ্রাস পেয়েছিল।

তবে মানবাধিকার কমিশনের তথ্য মতে, তিনি মেয়র থাকাকালে এক হাজার বেশি মানুষকে বেআইনিভাবে হত্যা করা হয়েছিল।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: