সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৩১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ব্রিটিশ নাগরিক খুন: বাবা-স্বামী ফের ১৪ দিনের রিমান্ডে

150953_1আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সামিয়া শাহিদ নামে পাকিস্তানি বংশোদ্ভুত এক ব্রিটিশ নাগরিককে হত্যার দায়ে পাকিস্তানের একটি আদালত নিহতের বাবা ও তার সাবেক স্বামীর ফের ১৪ দিনের বিচারিক রিমান্ড মঞ্জুর করেছে। সাম্প্রতিককালে পাকিস্তানে এ ধরণের হত্যা ‘অনার কিলিং’ নামে পরিচিত। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের।

মামলার প্রধান তদন্তকারী কর্মকর্তা আবু বকর খুদা বলেন, আজ সোমবার পাকিস্তানের পূর্বাঞ্চলের ঝিলাম শহরের একটি আদালতে ওই দুই সন্দেহভাজন আসামিকে হাজির করা হলে বিচারক তাদের ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে কারাগারে আটক রাখার নির্দেশ দেন। তিনি আরো বলেন, এরই মধ্যে পুলিশ এই মামলার তদন্ত শেষ করেছে।

 

এর আগে সামিয়ার প্রথম স্বামী চৌধুরি শাকিলকে হত্যাকারী সন্দেহে গ্রেপ্তার এবং তার বাবা মোহাম্মদকে হত্যার সহযোগী হিসেবে আটক করা হয়। এ দুজনকে ১৩ আগস্ট পাকিস্তানের  একই আদালতে হাজির করা হলে ওই সময় আদালত তাদের চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। সোমবার পুনরায় আদালতে হাজির করার সময় তাদের হাতে হাতকড়া ও মুখ ঢাকা ছিল।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের পর নিশ্চিত হওয়া গেছে শ্বাসরোধেই মৃত্যু হয়েছে সামিয়ার।

পাকিস্তান পুলিশের বরাত দিয়ে নিউইয়র্ক টাইমস জানায়, দীর্ঘ আট বছর পর পাঞ্জাবের পান্ডেরি গ্রামে নিজের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের বিউটিথেরাপিস্ট সামিয়া শাহিদ। সেখানেই গত মাসের শেষ সপ্তাহে রহস্যজনক মৃত্যুর শিকার হন তিনি।

সামিয়ার মৃত্যুর পর তার দ্বিতীয় স্বামী সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং যুক্তরাজ্যের নাগরিক সায়েদ মুখতার কাজিম অভিযোগ করেন, পরিবারের অমতে ‘বহিরাগতকে’ বিয়ে করায় তার স্ত্রীকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমি সবসময় ভয় পেতাম পাকিস্তানে গেলে আমার স্ত্রীকে (সামিয়া শাহিদ) তার পরিবার হত্যা করবে। সেই দুঃস্বপ্নই সত্যি হলো।’

(দ্বিতীয় স্বামী সায়েদ মুখতার কাজিমের সাথে সামিয়া শাহিদ)

সায়েদ মুখতারের অভিযোগ, সামিয়ার মৃত্যুর পর পাকিস্তান থেকে তার কাছে একটি মোবাইল কল এসেছিল। যাতে এক পুরুষ কণ্ঠ তাকে জানায়, পরিবারের ‘সম্মান বাঁচাতে’ সামিয়াকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, এরপর আমি পাকিস্তানে ফোন করে জানতে পারি একদিন আগেই আমার স্ত্রীকে দাফন করা হয়ে গেছে।

(দ্বিতীয় স্বামী সায়েদ মুখতার কাজিমের সাথে সামিয়া শাহিদ)

সামিয়ার দ্বিতীয় স্বামী সায়েদ মুখতার গণমাধ্যমকে আরো বলেন, ‘হত্যার পরের দিন আমাকে সামিয়ার ভাই বলেছিল, তার হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল। কিন্তু অন্যান্য আত্মীয়রা বলছেন, তার শ্বাসকষ্ট হয়েছিল। কিন্তু আমি নিশ্চিত আমার স্ত্রীকে তার পরিবার খুন করেছে। সে সুস্বাস্থ্যবান ছিল। তার কোনো অসুখ ছিল না। তার বাবা-মা আমাদের বিয়ে মেনে নিতে না পারায় তাকে হত্যা করেছে।’

(দ্বিতীয় স্বামী সায়েদ মুখতার কাজিমের সাথে সামিয়া শাহিদ)

সায়েদ মুখতার জানান, ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে ওয়ারইয়র্কশায়ারের ব্যাডফোর্ডের উন হলে সামিয়াকে বিয়ে করেন। তিনি দুবাইতে বসবাস করতেন। পরিবারের মতের বাইরে গিয়ে বহিরাগতকে বিয়ে করায় সামিয়ার পরিবার এই বিয়ে প্রত্যাখ্যান করে। এরপর সামিয়ার পরিবারের অনেকেই ফোন করে তাকে হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ সায়েদের।

(দ্বিতীয় স্বামী সায়েদ মুখতার কাজিমের সাথে সামিয়া শাহিদ)

কিন্তু সামিয়ার বাবা ও পরিবারের সদস্যরা প্রথম থেকেই এ ধরণের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছিলেন।

এদিকে স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, নিহত সামিয়ার দেহে কোনো জখমের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। মারা যাওয়ার দিনই তাকে নিজ বাড়ির কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

এদিকে সামিয়াকে মেরে ফেলা হয়েছে এমন আশঙ্কা জানিয়ে ব্রিটেনের লেবার পার্টির এমপি নাজ শাহ  ‘তার দেহ উদ্ধার করে আবার ময়নাতদন্ত করা দরকার’ বলে মন্তব্য করেন। এর পরপরই পাকিস্তান পুলিশ নড়েচড়ে উঠে এবং নিহতের বাবা ও সাবেক স্বামীকে আটক করে।

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানে ধারাবাহিক অনার কিলিং-এর বাস্তবতা রয়েছে। হিউম্যান রাইটস কমিশন পাকিস্তান-এর বার্ষিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত বছর পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে পাকিস্তানে প্রায় ১১০০ নারী স্বজনদের হাতে খুন হয়েছেন। ২০১৪ সালে এ সংখ্যা ছিল ১ হাজার। আর ২০১৩ সালে এ সংখ্যা ছিল ৮৬৯। অথচ আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় সংস্কৃতি, প্রথা, ধর্ম কিংবা ঐতিহ্য কোনো কিছুর নামেই নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা চালানোর যৌক্তিকতা নেই।

নিউইয়র্ক টাইমস ও জিও টিভি অবলম্বনে

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: