সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রধান বিচারপতির মন্তব্যে আইনজীবীদের প্রতিবাদ

145706_1নিউজ ডেস্ক:
আইনজীবীদের সম্পর্কে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিরূপ মন্তব্যকে কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২২ আগস্ট) দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের দক্ষিণ হলে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধানমন্ত্রী এই বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

সভায় প্রধান বিচারপতির পক্ষ নেয়ায় আইনজীবীদের সম্মিলিত তোপের মুখে পড়েন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।
বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল বাসেত মজুমদার গত ১৮ আগস্ট একটি মামলা শুনানিকালে প্রধান বিচারপতি আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে ‘বিরূপ’ মন্তব্য করেন। সেই প্রেক্ষিতেই সভা আয়োজন করা হয়। আলোচ্য বিষয়ে বলা হয়, ‘গত ১৮ অগাস্ট আপিল বিভাগে আবদুল বাসেত মজুমদার কর্তৃক একটি মামলার শুনানিকালে প্রধানবিচারপতির আইনজীবীদের সম্পর্কে মন্তব্য প্রসঙ্গে’।

সভায় আইনজীবী সমিতির বিএনপি ও আওয়ামীপন্থি নেতারা প্রধান বিচারপতি এই মন্তব্যের প্রতিবাদে সরব হন। তবে প্রধানবিচারপতির মন্তব্য সব আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে ছিল না, এমন মন্তব্য করে তোপের মুখে পড়েন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, ‘মাননীয় প্রধান বিচারপতি আইনজীবীদের উদ্দেশ্যেযে বক্তব্য দিয়েছেন, সেটা অশোভন বলে আমি বিশ্বাস করি। এটা শোভা পায় না। আমাদের মর্যাদা আছে। আপনাদের মনেআছে, রেফারেন্স মিটিংয়ে আইনজীবীদের মর্যাদা ও সম্মান রক্ষার প্রত্যয় ব্যক্ত করছি।’

প্রধান বিচারপতির যে বক্তব্য নিয়ে সভা ডাকা হয়, তা সব আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে নয় বলে ওই সভাতেই জানান অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তিনি বলেন, ‘প্রধান বিচারপতির বক্তব্য লক্ষ্মীপুর বারের কিছু সদস্য সম্পর্কে। সেখানকারও সবাই না। যারা নাকি আদালতের জায়গায় ভবন করছে। আমি স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই, সব আইনজীবীদের ওপর এটা আপনারানিবেন না।’

মাহবুবে আলম বলেন, ‘আমরা যা কিছু্ করি, আমাদের সামনে কয়েকটা বিষয় বিবেচনা নিতে হবে। আমাদের যুদ্ধাপরাধেরমামলা এবং অন্যান্য কিছু বিষয়। ইতোমধ্যে জ্বালাও পোড়াও আন্দোলনের প্রেক্ষিতে অনেকগুলো মামলা, দুর্নীতি দমনকমিশনের অনেকগুলো মামলা, বাড়ি-ঘর সংক্রান্ত অনেকগুলো মামলা আছে। আমাদের ওপর অনেকে ক্ষিপ্ত, কেন এই সবমামলা আমরা সিরিয়াসলি করি।’

মাহবুবে আলম আরও বলেন, ‘সরকারের স্বার্থ, প্রজাতন্ত্রের স্বার্থ আমাদেরকে দেখতে হবে। ইতোমধ্যে একটা মামলা নিয়েঅনেক বিতর্ক হয়েছে। আমার বক্তব্য নানারকমভাবে গণমাধ্যমে এসেছে। ২৪ তারিখে মীর কাশেম আলীর মামলা (রিভিউশুনানির দিন রয়েছে)। আমি আপনাদের কাছে আকুল আবেদন করি, এই সময়ে এমন কোনো রেজুলেশন আপনারা নিবেন না,যাতে বিচার বিভাগের সাথে আমাদের মুখোমুখি অবস্থান হয়। দরকার হলে এই মিটিং ৭দিন পিছিয়ে দেন।’

এ সময় উপস্থিত আইনজীবীরা অ্যাটর্নি জেনারেলকে উদ্দেশ্য করে ‘দালাল, দালাল’ বলে হৈ চৈ করে ওঠেন।
সভায় আবদুল বাসেত মজুমদার বলেন, ‘আমি অত্যন্ত আনন্দিত, অ্যাটর্নি জেনারেল সাহেব ছিলেন যে কমেন্ট নিয়ে কথা, সেটাতিনি স্বীকার করেছেন। ডিফারেন্স হলো, উনি বলছেন, গুটি কতককে বলেছেন। সবাইকে বলেন নাই। যে টার্মগুলো বলেছেন, প্রত্যেকটা আপত্তিজনক।’

আওয়ামীপন্থি আইনজীবীদের সঙ্গে সুর মেলান সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন। তিনি বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধী যারা আছে তাদের বিচার করেন, ফাঁসি দেন; আমাদেরআপত্তি নাই। এটা আমাদের আইনজীবীদের মর্যাদার প্রশ্ন। যারা দুর্নীতিবাজ তাদের বিচার করেন, আমাদের কোনো আপত্তিনেই। যারা জ্বালাও পোড়াও করেছে তাদের বিচার করেন, আমাদের কোন আপত্তি নাই। ঠিক আছে, আমাদের আজকেরমিটিংয়ের সাথে এটার সম্পর্ক কি, মাননীয় স্পীকার?’

তিনি আরো বলেন, ‘এখানে আইনজীবীদের.. আমরা চাই, অ্যাটর্নি জেনারেল সাহেব উনি বারের সম্পাদক ছিলেন, সভাপতিছিলেন, বার কাউন্সিলের সভাপতি, উনি আইনজীবীদের পক্ষে থাকবেন বলে আমরা আশা করি।’

প্রধান বিচারপতিকে উদ্দেশ্য করে মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘আমাদের সমস্যা, ভালো-খারাপ, সব দেখার দায়িত্বআপনার। এখন আপনি আমাদেরকে যদি কর্মচারীদের মতো দেখেন, সেটা আমরা মানব না। প্রধান বিচারপতি নিয়োগের পরএত বড় সংবর্ধনা আর কখনো হয় নাই। কেন জানি, সেই পরিবেশটা খুব খারাপ যাচ্ছে। আমরা প্রধান বিচারপতির সাথেএকসাথে কাজ করতে চাই। কিন্তু আমরা পেরে ওঠছি না।’

বিএনপিপন্থি আরেক আইনজীবী তৈমুর আলম খন্দকার বলেন, ‘আইনজীবী নেতৃবৃন্দ যারা আছেন তারা যদি মনে করেন জলেবাস করে কুমিরের সাথে লড়বেন সেটা ভুল হবে, অন্যায় হবে। সংবিধানকে রক্ষা করার জন্য, আইনজীবীদের রক্ষা করারজন্য, আইন পেশাকে রক্ষার জন্য এটাকে সহজভাবে ছেড়ে দেওয়া যাবে না। যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য আমরাআছি। সকলের অবগতির জন্য বলছি, আইনজীবীরা যখন ঐক্যবদ্ধ হয়, তখন সেটা সবচেয়ে শক্তিশালী।’

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামীপন্থি আইনজীবী মো. মমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদি এবং মামুন মাহবুব।পূর্বপশ্চিম

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: