সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ০ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভুল আনন্দবাজারের অতঃপর বাংলাদেশের পত্রিকারও

india_124993নিউজ ডেস্ক: ১০১ বছর বয়সী ইতালির আনাতোলিয়া ভার্তাদেলা ছেলে সন্তান জন্ম দিয়েছেন- গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরটি স্রেফ গুজব ছিল। গত শনিবার সংবাদটি প্রথম প্রকাশ করে কলকাতার জনপ্রিয় দৈনিক আনন্দবাজার। এরপর বাংলাদেশেরও বেশ কয়েকটি পত্রিকা আনন্দবাজারের বরাত দিয়ে ওই ভুল সংবাদটি পরিবেশন করে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

কদিন আগেই দেহ ব্যবসার অভিযোগে কলকাতার এক জনপ্রিয় এক অভিনেত্রীর গ্রেপ্তারের খবর প্রকাশ করে সমালোচিত হয়েছে বাংলাদেশের বেশ কিছু অনলাইন পোর্টাল। এসব পত্রিকার বিরুদ্ধে নিজ দেশে আদালতে অভিযোগও করেছেন ওই অভিনেত্রী। এর রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও কলকাতায় প্রকাশিত গণমাধ্যমের সংবাদ যাচাই না করে ছাপার ঘটনা ঘটলো বাংলাদেশে।

যে বৃদ্ধ নারীর ছবি দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে তার নাম রোজা ক্যামফিল্ড। তিনি আরিজোনার নাগরিক। তার কোলে যে শিশুর ছবি দেখা যাচ্ছে সেটি তার পুত্র সন্তান ফ্রান্সিস নয়।কোলের শিশুটি বৃদ্ধার নাতনির মেয়ে।

ছবিটি দুই সপ্তাহ আগে রোজার নাতি ফেসবুকে আপলোড করেন। মুহূর্তেই ছবিটি ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়ে। চতুর্থ প্রজন্মকে কোলে নিয়ে তোলা ছবিটি সবার হৃদয় ছুঁয়ে যায়। ফেসবুকে অনবরত শেয়ার ও লাইক পড়তে থাকে। এর কিছু দিন পরেই গত সোমবার ওই নারী মারা যান।

ফেসবুকে ছবিটি আপলোড করা পর মুহূর্তেই ছবিটি ভাইরাল হয়ে যায়। ছবিটি লাইক দিয়েছে ২৫ লাখ মানুষ। এবং ৭৮ হাজার শেয়ার হয়েছে।

রোজা ছিলেন তিন সন্তানের জননী। তার নাতির সংখ্যা পাঁচ এবং পুতির সংখ্যা ১০। রোজার নাতনি সারাহ হাম ডেইলি মেইলকে বলেছেন, তার নানী রোজা ক্যাম্পফিল্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। দুই সপ্তাহ আগে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান। ওইদিন তিনি মেয়েকে (কায়লি) নিয়ে হাসপাতালে যান। ওইদিন ছবিটি তোলা হয়। কিন্তু এর কয়েক দিন পরেই নানী মারা যান।

‘নানী বেঁচে থাকলে খুবই খুশি হতেন’, বলেন সারাহ। এটেই হলো আসল খবর। যা যুক্তরাজ্যের ডেইলি মেইল প্রকাশ করেছে।

কিন্তু ২০ আগস্ট আনন্দবাজার পত্রিকা খবর প্রকাশ করে, ইতালির আনাতোলিয়া ভার্তাদেলা ১০১ বছর বয়সে পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। যা সম্ভব হয়েছে ওভারি ট্রান্সপ্লান্টের মাধ্যমে। আর তা নিয়েই বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছেন শতায়ু এই বৃদ্ধা। কারণ ইউরোপীয় আইন অনুযায়ী ওভারি ট্রান্সপ্লান্ট বেআইনি।

বৃদ্ধার ওই সন্তান জন্মদানকে ‘ঈশ্বরের উপহার’ বলেও উল্লেখ করা হয় খবরে। আনন্দবাজারের ওই খবর যাচাই বাছাই না করেই বাংলাদেশের কয়েকটি গণমাধ্যম তা প্রকাশ করে। কলকাতার দৈনিকটি সংশোধন করে নিলেও বাংলাদেশের পত্রিকাগুলো এখনও রয়ে গেছে ভুলের মধ্যেই।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: