সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভালবাসার নীল, শান্তির সবুজ

140461288নিউজ ডেস্ক::বিজ্ঞানের ভাষায় রং এর দিকে তাকিয়ে থাকলে তা আমাদের মনকে শিথিল করতে সাহায্য করে। এই কথাটি সম্পূর্ণ সত্য। রং আমাদের উপর মানসিকভাবে, শারীরিক এবং আবেগের উপর বিরাট প্রভাব ফেলে। উদাহরণস্বরূপ, লাল রং আপনাকে আরও বেশি উদ্বিগ্ন করে তুলবে, যেখানে হালকা রংগুলো আপনার মানসিক চাপ ও উদ্বিগ্ন কমিয়ে আপনাকে শান্ত করে তুলবে।
আপনি যদি মাত্রাতিরিক্ত চাপ অনুভব করেন, তাহলে চাপ মুক্ত হবার জন্য রং কে আপনার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এখানে, সে অনুযায়ী আমরা একটি রংয়ের তালিকা তৈরি করেছি, যা আপনাকে চাপমুক্ত হতে সাহায্য করবে।
১. নীল রং:
ভালোবাসার রং হল নীল। নীল রং এর আকারের মতই শান্তিময়, মৃদু এবং এর চাপ পরিচালনা করার অসাধারণ ক্ষমতা রয়েছে। এই রং আপনার হার্ট রেট মন্থর করতে সাহায্য করবে, আপনার মন শান্ত রাখতে এবং আপনার রক্তচাপের পরিমাণ কমাতে সাহায্য করবে। নীল রং উদ্বেগ কমাতে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করে। নীল মনোরম ও নিরপেক্ষ আলোছায়ার একটি রং। আপনার আশেপাশের পরিবেশ শান্ত ও সুন্দর করার জন্য আপনার বেডরুমের দেয়ালে নীল রং ব্যবহার করুন।
২. সবুজ রং:
সবুজ হল শান্তির রং। কারন, সবুজ হল প্রকৃতির রং। সবুজ সবচেয়ে সুন্দর রংয়ের মধ্যে একটি যা, আকর্ষণীয়ভাবে আমাদের অনুভূতিকে আকর্ষণ করে। সবুজ রং আমাদের উদ্বেগকে বিকীর্ণ করে আমাদেরকে শান্ত করে তোলে। আপনি আপনার আশেপাশের জিনিসগুলোতে সবুজ রংয়ের প্রভাব বজায় রাখতে পারেন। এতে আপনার মন সবসময় শান্তিময় অনুভূতিতে থাকবে।
৩. গোলাপি রং:
গোলাপিও একটি শান্তিময় রং। যা শান্তি প্রচার করে। এছাড়াও, পিঙ্ক শুই বিশ্বাস করেন, গোলাপি রং একটি রুমে বিভিন্ন শক্তির সঞ্চার করে। এর নির্মলতা আপনার শরীরের শক্তির ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করবে। গোলাপি রংকে একটি মেয়েলি রং হিসেবে বিবেচনা করা হয়। বিশেষ করে, একটি বাচ্চা মেয়ের নার্সারি রুমে গোলাপি রং এর প্রাধান্য বেশি চোখে পড়ে। কিন্তু, আসলে গোলাপি রংটি যে কোন রুমে অনেক ভালই মানায়।
৪. সাদা রং:
স্বচ্ছতা ও পবিত্রতার রং হল সাদা। যে সময় নিজেকে অনেক চাপের মাঝে মনে হবে, তখন আশেপাশে সাদা রংয়ের প্রাধান্য দিয়ে দেখুন। কিছুক্ষন পর আপনি চাপমুক্ত অনুভব করবেন। একটি সাদা রংয়ের রুম একজন গর্ভবতী মহিলার জন্য আদর্শ রুম হিসেবে বিবেচনা করা হয়। তবে মনে রাখুন, সাদা রংকে সবসময় পরিষ্কার করে রাখতে হয়। উজ্জ্বল বর্ণের সাদা রং ব্যবহার করুন, তবে বেশি কড়া রং করার প্রয়োজন নেই। কারন, এতে রং নিস্তেজ ও মলিন দেখায়। আপনার আবেগেও এর ফলে নিষ্প্রভতার সৃষ্টি হতে পারে।
৫. বেগুনী রং:
বেগুনী রং শক্তি, শান্তি এবং জ্ঞান প্রকাশ করে। এটি আপনার মাঝে অভ্যন্তরীণ শান্তি অনুভব করতে সাহায্য করবে এবং আপনার মাঝে ভারসাম্য রক্ষা করবে। অনেকেই শান্তিপূর্ণ পরিবেশ তৈরি করার জন্য বেগুনী রংকে শোভাকর বিবেচনা করে। এছাড়াও, বেগুনী রং শরীরের পটাশিয়াম ও সোডিয়ামের ভারসাম্য বজায় রাখে এবং হাড়ের বৃদ্ধির জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। গবেষণায় দেখা গেছে, বেগুনী রংয়ের আলোর অধীনে ধ্যান করলে স্বাভাবিকের তুলনায় ১০ গুণ বেশি লাভবান হওয়া যায়। তাহলে, আপনি এখন শক্তিশালী ধ্যান সম্পর্কে গোপন তথ্যটি জেনে গেলেন।
৬. ধূসর:
অনেকেই ধূসর রংকে নিস্তেজ, বিরক্তিকর ও বিষণ্ণতার রং মনে করেন। কিন্তু, সত্যি কথা হল ধূসর রংয়ের খুব শীতল ও ঠাণ্ডা উপস্থিতি রয়েছে। ধূসর রঙ্গটি যখন নীল বা সাদা রঙয়ের সাথে মিশিয়ে কোন কাজে লাগান হয়, তখন এর সৌন্দর্য আরও বেশি বৃদ্ধি পায়।
৭. হলুদ:
হলুদ রঙয়ের কিছু ইতিবাচক প্রভাব রয়েছে। আপনি কিছুক্ষণ হলুদ রং এর দিকে তাকিয়ে থাকলে আপনার নিজেকে আরও বেশি জীবন্ত ও কর্মচঞ্চল মনে হবে। তাই, আপনি যদি আপনার দিনটি অনলসভাবে কাটাতে চান, তাহলে নির্দিষ্ট কোন স্থানে হলুদ রঙের কিছু রাখুন, যাতে সকাল সকাল তা দেখতে পারেন। আপনার রান্নাঘরের দেয়ালের রং হলুদ করতে পারেন। কারন, সাম্প্রতিক এক গবেষণায় পাওয়া গেছে, হলুদ রং এর রুমে বসবাসকারী মানুষ বেশি কর্মঠ হয়।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: