সর্বশেষ আপডেট : ৪৮ মিনিট ১৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জামালগঞ্জে ফেনারবাঁক ইউপি ভবনটি ৩৫ বছর ব্যবহৃত হয়না

dailysylhetnewsjamalgonjজামালগঞ্জ প্রতিনিধি ::
জামালগঞ্জ উপজেলার হাওরবেষ্টিত ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের ভবনটি ৩৫ বছর ধরে ব্যবহার হয় না। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে আজ তা পরিত্যক্ত। ভবনটি অকেজো থাকায় নির্বাচিত চেয়ারম্যানগণ নির্বাচিত হওয়ার পর নিজের সুবিধা মতো উপজেলা সদরের আশে পাশে ভাড়া করা বাসাবাড়িতে অস্থায়ী কার্যালয় বসিয়ে কাজ শুরু করেন।
ফলে ইউনিয়নবাসীকে ৩৫ বছর যাবৎ নাগরিক সেবা পেতে সীমাহীন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

বর্তমানে পুরাতন ইউপি ভবনটি নামে আছে, কাজে নেই। কয়েক যুগ পেরিয়ে গেলেও তালা খোলা হয়নি এক ঘন্টার জন্যও। ভিজিডি, ভিজিএফ, নাগরিকদের চেয়ারম্যান সনদ, জন্মনিবন্ধনসহ পরিষদের যে-কোনো কাজের জন্য সকলকে উপজেলা সদরে যেতে হয়। অবশ্য উপজেলা প্রশাসন বলছে, পরিষদ ভবনের নকশা করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে।
নির্বাচনের আগে জনপ্রতিনিধিদের অনেকেরই ঘোষণা ছিল, নির্বাচিত হলে নতুন ইউপি ভবন নির্মাণের। কিন্তু কেউ কথা রাখেননি।

jamalganjnews picজামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সূত্রে জানা গেছে, ১৯৬৬ সালে ফেনারবাঁক ইউনিয়নের মধ্যবর্তী স্থান ওই গ্রামে ৫৫ শতক জায়গায় নির্মিত হয় ইউপি ভবন। কার্যালয়টি স্থাপিত হওয়ার পর প্রায় ৯ বছর চেয়ারম্যানরা নাগরিক সেবা প্রদান করেন। ১৯৭৪ সালের ভয়াবহ বন্যায় কার্যালয়টির ভিটের মাটি সরে গেলে ব্যাপক ক্ষতি হয়। এর পর থেকে ১৯৯৩ সালের পূর্ব পর্যন্ত নির্বাচিত কোনো চেয়ারম্যান কার্যালয়টি মেরামতের উদ্যোগ নেননি। প্রাক্তন ও নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু তালুকদার, সাবেক চেয়ারম্যান রথীন্দ্র কুমার তালুকদার, আজাদ হোসেন বাবলু ও বর্তমান চেয়ারম্যান মতিউর রহমান তাদের নিজ-নিজ সুবিধা অনুযায়ী কখনো উপজেলা সদরে ভাড়া করা বাসায়, আবার কখনো নিজ বাড়িতে বসেই ইউনিয়নের কার্যক্রম চালিয়ে গেছেন। চেয়াম্যানদের নিকট কোনো কাজের প্রায়োজনে দেখা করতে বর্ষায় নৌকা আর হেমন্তে প্রায় ২৫ কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে উপজেলা সদরে যেতে হয় জনসাধারণকে।
১৯৯৩-৯৪ সালে তৎকালীন বিএনপি নেতৃত্বাধীন ৪ দলীয় জোট সরকারের আমলে এই ইউনিয়ন পরিষদটির সংস্কার করে তৎকালীন চেয়ারম্যান রতীন্দ্র কুমার তালুকদার কার্যালটি চালু করেছিলেন। কিছুদিন কার্যক্রম চলার পর আবারো কাজ বন্ধ করে দেয়ার ফলে এই কার্যালয়টি অরক্ষিত হয়ে যায়।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী আবদুস ছাত্তার জানান, দুবার ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সটি নির্মাণের জন্য দরপত্র আহবান করা হয়। বর্তমান সময়ে হাওরের পরিবেশ উপযোগী উপযুক্ত ডিজাইন করে এটি নির্মাণের জন্য সদর দপ্তরে প্রস্তাবনা প্রেরণ করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: