সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সোহান, সানি ও মৌসুমীকে ঘিরে কেমন ছিলেন সালমান শাহ?

salman-shah-bg20160818114618বিনোদন ডেস্ক :: ক্ষণজন্মা নায়ক সালমান শাহ। তার চলচ্চিত্র জীবন শুরু হয় সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরে, চিত্রনায়িকা মৌসুমীকে সঙ্গে নিয়ে। পরে সালমান-মৌসুমী জুটি হয়েছেন বেশ কিছু ছবিতে। তবে সোহানুর রহমান সোহানের সঙ্গে সালমানের মনোমালিন্য তৈরী হয়। প্রথম নায়িকা মৌসুমীর সঙ্গেও মৃত্যুর আগে এক ধরনের দুরত্ব তৈরী হয় সালমানের। এসব অজানা কথা বলেছেন নির্মাতা সোহান ও নায়িকা মৌসুমী।

জানা সালমান শাহর সঙ্গে জড়িয়ে থাকা ভালো-মন্দ মুহূর্তের অজানা বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহান, চিত্রনায়িকা মৌসুমী ও চিত্রনায়ক ওমর সানি। তারা সবাই অমর নায়ক সালমান শাহকে ঘিরে স্মৃতিচারণ করেছেন। এর অধিকাংশই জানেন না দর্শক। ঈদের একটি টিভি অনুষ্ঠানে উঠে এসেছে বিষয়গুলো।

বুধবার (১৭ আগস্ট) বাংলাভিশন চ্যানেলের স্টুডিওতে বিশেষ এই অনুষ্ঠানটির দৃশ্যধারণ হয়েছে। দিনাত জাহান মুন্নীর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটিতে তিন অতিথির মুখে গুরুত্ব পেয়েছে অজানা সালমান শাহর কথা।

১৯৯৩ সালে মুক্তি পায় ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’। এরপর সোহানুর রহমান সোহানের সঙ্গে আর কোনও কাজ করেননি সালমান শাহ। এছাড়া দুজনই দুজনকে এড়িয়ে চলতেন। কেন এই মনমালিন্য- এর ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন সোহানুর রহমান সোহান।

অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘সালমান শাহ অনেক ফ্যাশন সচেতন ছিলেন। সালমান আমার পরামর্শে কখনও পোশাক পড়তেন না। আমি যদি বলতাম টিশার্ট ইন করা যাবে না। কিন্তু তিনি তাই করতেন।’

ওমর সানি বলেছেন, ‘আমি কখনও সোহান ভাইকে কাঁদতে দেখিনি। এবারই তাকে কাঁদতে দেখলাম, তাও আবার আমাদের প্রিয় নায়ক সালমান শাহের জন্য।’ এ সময় তিনিও সালমান শাহর জীবনের কিছু দিক তুলে ধরেন। এছাড়া তিনি জানান, মৌসুমীর সঙ্গে তার সম্পর্কের জন্যই নাকি সালমান ও মৌসুমীর বন্ধুত্বে ক্ষয় ধরেছিলো।

মৌসুমী তাদের বন্ধুত্বের বিভিন্ন স্মৃতি তুলে ধরেন অনুষ্ঠানে। শেষ জীবনে তার সঙ্গে সালমান শাহর মধ্যে কেন দুরত্ব বেড়ে গিয়েছিলো, সেই কথাও জানিয়েছেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। দুরত্বের কারণেই এক সময় তারা একসঙ্গে আর কোনও ছবিতে কাজ করেননি।

এ সময় মৌসুমী আরও বলেন, ‘চার বছরের ক্যারিয়ারে সালমান উপহার দিয়েছেন ২৭টি সফল ছবি। তারা মৃত্যুর পর কেটে গেছে দেড় যুগ। তার প্রতি মানুষের ভালোবাসা বিন্দুমাত্র কমেনি। দিন যতোই যাচ্ছে, সালমানের প্রতি মানুষের ভালোবাসা আরও বাড়ছে।’

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: