সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ২৯ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে ডোবায় মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত শতাধিক

Untitled-2 copyজাহঙ্গীর আলম চৌধুরী, ছাতক:
ছাতকের পল্লীতে ডোবায় মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষে নারীসহ শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। গুরুতর আহত ৩০জনকে ভর্তি করা হয়েছে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

বুধবার দুপুরে নোয়ারাই ইউনিয়নের মৌলা গ্রামের মৃত হাতিম আলীর পুত্র হাসনাত উল্লাহ ও মৃত আছদ্দর আলীর পুত্র মছব্বির আলী পক্ষদ্বয়ের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতরা ছাতক হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে হাসপাতালের অভ্যন্তরেও ফের সংঘর্ষে লিপ্ত হয় দু’পক্ষের লোকজন। এসময় হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার পুলিশে খবর দেয়। তাৎক্ষনিক ছাতক থানার ওসি(তদন্ত) ও এসআই সৈয়দ আব্দুল মান্নানসহ একদল পুলিশ হাসপাতালে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গ্রাম সংলগ্ন একটি ডোবার মালিকানা নিয়ে হাসনাত উল্লাহ ও মছব্বির আলীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। মঙ্গলবার বিকেলে হাসমত উল্লাহ পক্ষ বিরোধকৃত ডোবায় পানি সেচে মাছ ধরার প্রস্ততি নিলে মছব্বির আলী এতে বাধা প্রদান করেন। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের মধ্যস্থতায় বিষয়টি সালিশে নিষ্পত্তি করার আশ্বাস দিয়ে তাৎক্ষনিক বিষয়টি মিটমাট করে দেয়া হয়। বুধবার এ ঘটনা নিয়ে সালিশ-বৈঠকে বসার কথা ছিল। কিন্তু সকালে হাসমত উল্লাহ পক্ষের লোকজন ডোবায় অবস্থান নিলে প্রতিপক্ষ মছব্বির আলী পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তুমুল সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
প্রায় দেড় ঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষে নারীসহ উভয় পক্ষের অন্তত শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়। গুরুতর আহত ইউসুফ আলী, শিপন, জিয়া উদ্দিন, তরিবুন নেছা, এমরান, শফিক, দেলোয়ার, আব্দুস সহিদ, ওয়াছির আলী, সুরুজ আলী, সজিদ আলী, রবিউল, সাজিত মিয়া, সুজিত মিয়া, রহিম আলী, রজব আলী, আনর আলী, ফিরোজ আলী, উস্তার আলী, মানিক আলী, লাল বানু, আনোয়ার আলী, মুক্তার আলী, সায়েক আলী, সেলিম, মিনার হোসেনসহ ৩০জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কালা মিয়া, কবির মিয়া, আকবর আলী, আকিল মিয়া, রবিউল হোসেন, মছব্বির আলী, বিপন খান, আমির হোসেন, রাসেল আহমদ, ছাবিয়া বেগম, আলীরাজ, হারুন আলী, ইয়াকুব আলী, রুমেল মিয়া, আব্দুল আহাদ, মনোহর আলী, নোয়াব আলী, নবীউল হোসেন, জিয়া উদ্দিন, হাসান মিয়া, ইমরান হোসেন, লিটন মিয়া, রাসেদ, আব্দুল কাইয়ুমসহ আহতদের ছাতক হাসপাতালে ভর্তি ও প্রাইভেট চিকিৎসা দেয়া হয়। ছাতক থানার ওসি আশেক সুজা মামুন জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ দেয়া হয়নি। এলাকার পরিস্থিতি বর্তমানে শান্ত রয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: