সর্বশেষ আপডেট : ৪৭ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কুলাউড়ায় চুরি করা গরুর রং বদল করে বিক্রি করা হয় বাজারে!

unnamed (1)কুলাউড়া অফিস:
কুলাউড়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম ও চা বাগান এলাকা থেকে গরু চুরি উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে। সংঘবদ্ধ চোরচক্র গরুর গায়ে কালো মেন্দি, কলপসহ অভিনব পন্থায় রং মেখে আসল রং বদল করে চোরাই গরু পাচার ও বিক্রি করে থাকে বলে জানা গেছে। বিজিবি ও বিএসএফের সাপ্তাহিক পতাকা বৈঠকেও আলোচনায় উঠে আসে গরু চুরির বিষয়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কুলাউড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী শরীফপুর ইউনিয়নের চাতলাপুর চা বাগান, তিলকপুর চা বাগান ও লালারচক গ্রাম থেকে বেশ কয়েকটি গরু চুরি হয়। এছাড়া ৮ আগস্ট জয়চন্ডী ইউনিয়নের রামপাশা গ্রাম থেকে একরাতে ১০টি গরু চুরি হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ও সন্দেহপোষন করে লালারচক গ্রামবাসী ১২ আগষ্ট শুক্রবার চাতলাপুর চা বাগানের একবারে ত্রিপুরা সীমান্তবর্তী দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় অভিযান চালান। এ অভিযানে পাহাড়ি গোপন আস্তানা থেকে ৫ দিন আগে চুরি হওয়া একটি বলদ গরু উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত গরুটি ছিল লাল রংয়ের। চোরচক্র গরু চুরির পর পাহাড়ি এলাকায় রেখে গরুর গায়ে কালো মেন্দি লাগিয়ে গায়ের রং কালো করে ফেলে।
অভিযানে অংশ নেওয়া লালারচক গ্রামের সমাজসেবক নজরুল ইসলাম জানান, অনেক ঝুঁকি নিয়ে চোর চক্রের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে লালার চক গ্রামের এরশাদ মিয়ার গরুটি উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকালে ঘটনাস্থলে পাওয়া গেছে গরুর গায়ের রং বদল করার সামগ্রীর খালি প্যাকেট। গ্রামবাসীদের অভিযান টের পেয়ে চোরচক্র গরুটি রেখে দ্রুত স্থান পরিবর্তন করায় তাদের ধরা যায়নি।

পাহাড়ি এলাকায় গরু উদ্ধারের সূত্র ধরে ১৩ আগষ্ট শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় বেরী সঞ্জবপুর গ্রামে শরীফপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন (চিনু)-র আপন ভাগ্নে জাকার মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ অভিযানে তিলকপুর চা বাগানের বিজয় বাউরীর চুরি হওয়া একটি গাভী উদ্ধার করা হয়। চোরচক্র এ গাভীটিরও রং বদল করা হয়েছে। এ অভিযানে নেতৃত্বদানকারী শরীফপুর ইউনিয়নের সদস্য ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মকদ্দছ আলী শনিবার চেয়ারম্যানের ভাগ্নের বাড়ি থেকে চোরাই একটি গরু উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ বাড়িতে বাছুরসহ আরও ১০-১২ টি গরু দেখা গেছে। শরীফপুর ইউনিয়নের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ জুনাব আলী সম্প্রতি গরু ও ঘর চুরির বৃদ্ধির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, চোরচক্র গরুর আসল রং বদল করে যাতে মালিক চিনতে না পারে। পরে গরুটি সুযোগ বুঝে দূরের কোন হাটে বিক্রি করে। এ চক্রটি আবার মাদক ব্যবসার সাথেও জড়িত।

১১ আগষ্ট রাতে চাতলাপুর চেকপোষ্ট সংলগ্ন ভারতের উত্তর ত্রিপুরার বৌলাপাশা গ্রামের সুমন মিয়ার একটি গর্ভবতী গাভী চুরি করে নিয়ে আসে শরীফপুরের চোরচক্র। ১৩ আগষ্ট শনিবার দুপুরে চাতলাপুর চেকপোষ্ট এলাকায় বিজিবি ও বিএসএফের কোম্পানী কমান্ডার পর্যায়ে অনুষ্ঠিত সাপ্তাহিক পতাকা বৈঠকেও ভারতীয় গরু চুরির বিষয়টি আলোচিত হয়। শরীফপুর বিজিবি সীমান্তফাঁড়ির ক্যাম্প কমান্ডার রফিকুল ইসলাম সাপ্তাহিক পতাকা বৈঠকের নিশ্চিত করে বলেন, গরু উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: